বুধবার, ১০ আগস্ট ২০২২, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৯, ১১ মুহাররম ১৪৪৪

অভ্যন্তরীণ

ধামরাইয়ে পশু চিকিৎসককে হত্যার অভিযোগে আটক ২

প্রকাশের সময় : ১৯ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ধামরাই (ঢাকা) উপজেলা সংবাদদাতা
ঢাকার ধামরাইয়ের দ্বিমুখা এলাকা থেকে ঠান্ডু মিয়া নামের এক পল্লী পশু চিকিৎসকের পুরুষাঙ্গ কর্তনসহ ক্ষতবিক্ষত লাশ ধান ক্ষেত থেকে গতকাল সোমবার সকালে উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। এ হত্যাকা-ের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে সাজু বেগম নামের এক গৃহবধূকে আটসহ তার প্রতিবন্ধী মেয়েকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে। জানা গেছে, উপজেলার চৌহাট ইউনিয়নের দ্বিমুখা গ্রামের জলিলউর রহমানের ছেলে ঠান্ডু মিয়া (৩০) পেশায় একজন পল্লী পশু চিকিৎসক। দ্বিমুখা বাজারে তার একটি মোবাইলের ফ্ল্যাক্সি লোডের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আছে। নিহত ঠান্ডু মিয়া একই গ্রামের মোয়াজ্জেম হোসেনের স্ত্রীর সাজু বেগমের সাথে পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। সাজু বেগমের স্বামী একজন গার্মেন্টস কর্মী। ফলে প্রতিনিয়ত ঠান্ডু মিয়া দেখা করার জন্য সাজু বেগমের বাড়ি যায়। সাজু বেগমের গর্ভের এক প্রতিবন্ধী মেয়ে ও রয়েছে তার বয়স ১৩/১৪ বছর। এ মেয়ের প্রতি নজর যায় ওই পশু চিকিৎসক ঠান্ডু মিয়ার। তাকে ভোগ করতে চায়। বিষয়টি টের পেয়ে মেয়ে সাজু বেগম ঠান্ডু মিয়াকে সতর্কও করে। এক পর্যায়ে রোববার রাতে সাজু বেগম পশু চিকিৎসক ঠান্ডু মিয়াকে রাত ১০টার দিকে নিজ বাড়িতে ডেকে এনে ঘুমের ট্যাবলেট খাওয়াইয়ে প্রথমে তার পুরুষাঙ্গ কর্তন করে পরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাত করে হত্যা করে। হত্যা করার পর পল্লী চিকিৎসকের লাশ তাদের বাড়ির সামনে ধান ক্ষেতে ফেলে রেখে যায়। নিহত ঠান্ডু মিয়ার মা নবী বেগম সাংবাদিকদের জানিয়েছে, প্রায় প্রতিদিন তার ছেলে রাত ১০টার দিকে বাড়ি আসে। রোববার রাতে সে বাড়ি এসে খাবার খেয়ে ঘুমাতে যায়। রাত ১১টার দিকে আটককৃত গৃহবধূ সাজু বেগম তাকে ডেকে নিয়ে যায়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন