ঢাকা, সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯, ০৫ কার্তিক ১৪২৬, ২১ সফর ১৪৪১ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

তাকওয়া অর্জনে রোজার মাস মানবজাতির জন্য উপহার

আল্লামা ইসমাঈল নুরপুরী

স্টাফ রিপোর্টার, নরসিংদী থেকে | প্রকাশের সময় : ৫ মে, ২০১৯, ১২:০৯ এএম

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের আমির আল্লামা ইসমাঈল নুরপুরী গণকাল ও পরশু জেলার অসুস্থ দুই বয়োজ্যেষ্ঠ আলেমকে দেখতে যান। একজন হচ্ছেন বালুয়াকান্দি শামসুল উলুম মাদরাসার সাবেক মুহতামিম শতবর্ষী ইসলামী চিন্তাবিদ মাওলানা তৈয়বুর রহমান এবং অপরজন হচ্ছেন ওস্তাযুল হুফফাজ সায়খ হাফেজ হাফিজুল্লাহ। শতবর্ষী আলেম মাওলানা তৈয়বুর রহমান প্রায় অর্ধশতাব্দীকাল বালুয়াকান্দি মাদরাসার মুহতামিম হিসাবে ইসলামের খেদমত করে বয়সেরভারে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। ওস্তাযুল হুফফাজ হাফেজ হাফিজুল্লাহ দীর্ঘ বায়ান্ন বছর পবিত্র কোরআনের খেদমত করে বর্তমানে প্যারালাইসিস অবস্থায় নিজ বাড়িতে ঘরবন্দী রয়েছেন। আমিরে মজলিস আল্লামা ইসমাঈল নুরপুরী, ইসলাম ও কোরআনের খেদমতে তাদের অবদানের কথা স্মরণ করে তাদেরকে দেখতে যান।
সাক্ষাতকালে আল্লামা ইসমাঈল নুরপুরী বলেন, শতবর্ষী আলেম, মাওলানা তৈয়বুর রহমান শত শত ইসলামের সৈনিক তৈরি করেছেন। শত শত হাফেজ তৈরি করেছেন। যারা এখন ইসলাম ও কোরআনকে বুকে ধারণ করে ইসলামের খেদমতে সারাদেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। ওস্তাযুল হুফফাজ হাফেজ হাফিজুল্লাহ দীর্ঘ সময় কোরআনের খেদমত করেছেন। এরমধ্যে কমবেশি ৩৫ বছর তিনি নরসিংদী বাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে তারাবি পড়িয়েছেন। তাদের অবদানের কথা নরসিংদীর মানুষ তথা জাতি চিরদিন স্মরণ করবে। আল্লামা নূরপুরী দুই আলেমের রোগমুক্তির জন্য মহান আল্লাহর দরবারে দোয়া করেন। এ সময় তার সাথে ছিলেন নরসিংদী জামিয়া কোরআনিয়া মেরাজুল উলুম বৌয়াকুড় মাদরাসার ভাইস প্রিন্সিপাল মাওলানা আব্দুর নূর, পটিয়া দারুল উলুম মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা আব্দুল বাসেদ। একই দিন তিনি বৌয়াকুড় জামে মসজিদে খুতবা দানকালে বলেন, রমজান হচ্ছে মুসলমানদের আত্মপরিশুদ্ধির মাস। একমাস তাকওয়া অনুশীলন করে ১১ মাস তাকওয়ার ভিত্তিতে জীবন পরিচালনা করার জন্যই মহান আল্লাহ মানবজাতিকে এই রমজান মাস উপহার দিয়েছেন। সুতরাং রমজান মাসে ধৈর্য ধারণ করে তাকওয়া অর্জনই হবে মুসলমানদের কামিয়াবির একমাত্র পথ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন