ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬, ১৭ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

জাতীয় সংবাদ

মহাসড়কে তীব্র যানজট: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া

শাহেদ নুর | প্রকাশের সময় : ১০ আগস্ট, ২০১৯, ৬:৩৮ পিএম

আগামী ১২ জুলাই পবিত্র ঈদুল আযহা। ঈদকে সামনে রেখে শহর থেকে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ফিরছে ঘরমূখী মানুষ। সকল মহাসড়কগুলোতে সৃষ্টি হয়েছে তীব্র যানজট। এদিকে ঈদের আগ মুহূর্তে ট্রেনের ভয়াবহ সিডিউল বিপর্যয় দেখা দিয়েছে। আবার ঈদকে সামনে রেখে যাত্রীদের গলা কাটছেন পরিবহন ব্যবসায়ীরা। সব মিলিয়ে চরম ভোগান্তি যাত্রীরা। ভোগান্তি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করছেন তারা।

এমডি হাসান তার ফেইসবুকে লিখেন, ‘ঈদের আগে ঢাকা থেকে উত্তরাঞ্চলগামী যাত্রীদের চরম ভোগান্তির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক। আজ শনিবার মহাসড়কটিতে যানজট প্রায় ৭০ কিলোমিটারে পৌঁছেছে। যানজটের কারণে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের বিভিন্ন স্থানে গাড়ি থেকে নেমে বিক্ষোভ করছেন যাত্রীরা।’

‘প্রতি বছরই আমাদেরকে একই ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। আমাদের দেশের সরকার বা কর্তাব্যক্তিরা কি এসব দেখে না? কেউ কি বলতে পারেন, এই ভোগান্তির শেষ কোথায় ?’ - আবু নোমানের প্রশ্ন।

জাহিদুর রহমান লিখেন, ‘ঈদের সময় ট্রেনের ভয়াবহ সিডিউল বিপর্যয়, যাত্রীদের গলা কাটছেন পরিবহন ব্যবসায়ীরা, তীব্র যানজট; দেশে কি এগুলো দেখার কেউ নেই?’

এদিকে আজ দুপুরে ঢাকার মহাখালী বাস টার্মিনাল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, মহাসড়কে ধীরগতি তবে তীব্র যানজট নেই।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রীর এই বক্তব্যে ক্ষোভ জানিয়ে সাদিকুজ্জামান সাদিক লিখেন, ‘আপনাদের কাছে যানজট মনে তো হবে না। বাংলাদেশে মন্ত্রী, সচিব, এমপি, মেয়র, সকল ভিআইপিগণের জন্য রাস্তা ক্লিয়ার করে যাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়। যানজটে জনগণের দশা বুঝবেন কি করে! খালি ভোটের সময় জনগণকে মনে পড়ে!’

‘মানুষ যখন তীব্র যানজটের কারণে নাকাল তখন সেতুমন্ত্রীর এইসব উদ্ভট কথা কাটা ঘায়ে নুনের ছিটার মত। - নাজমুল হাসানের মন্তব্য।

শাহিনুর ইসলামের জিজ্ঞাসা, ‘যানযট ও ধীর গতি তফাৎটা কি? ধীর গতির কারণ কি? ঘন্টায় কত কি.মি হলে যানযট আর কত কি.মি হলে ধীর গতি? যেমন গাবতলি হতে পাটুরিয়া আসতে লেগেছে ৭ ঘন্টা এটা কি, যানযট না ধীর গতি?’

‘ভোর ৫ টায় গাড়িতে উঠে বাড়ি পৌঁছেছি রাত ১১ টায়। ১৮ ঘণ্টায় ঢাকা থেকে গোপালগঞ্জ। সত্যিই রাস্তায় কোন জ্যাম ছিল না। খাঁটি ও নির্ভেজাল সত্য বলার জন্য "ওকা" কাকুকে ধন্যবাদ।’ - লিখেছেন সনিয়া আক্তার।

পরিহাস করে নাহিদ হাসান লিখেছেন, ‘জ্বি জনাব,সত্যিই বলেছেন কোনো যানজট নেই।মানুষ খুশির ঠেলায়,ঘোরতে গিয়ে গাড়ির গতি কমায়ে ফেলছে..’

‘আজ পবিত্র আরাফাতের দিন। তাই গালিগালাজ থেকে বিরত থাকলাম। আল্লাহ আপনাদেরকে হেদায়েত দান করুক। একটু হলেও দেশের মানুষের কথা চিন্তা করুক। তাদের ভোগান্তি দূর করার চেষ্টা করুন। দয়া করে আমাদের নিয়ে মজা করবেন না।’ - যানজট ও ওবায়দুল কাদেরের ছবি শেয়ার করে লিখেন শরীফুল ইসলাম।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন