ঢাকা, শুক্রবার , ২২ নভেম্বর ২০১৯, ০৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

‘ঈদে মিলাদুন্নবী (স.) মুসলিম জাহানের জন্য বড় নেয়ামত’

রাউজান (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৮ নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০২ এএম

ঢাকা নারিন্দা মশুরীখোলা দরবারের গদিনশীন পীর সাহেব মাওলানা শাহ মুহাম্মদ আহছানুজ্জামান (মুজিআ) বলেছেন, ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) মুসলিম জাহানের জন্য বড় নেয়ামত। তিনি বলেন নবী (সা.) পথ ও মতে চলতে হবে, হালাল রুজী রোজগার করে খেতে হবে, হকভাবে চলতে হবে, যুবক ছেলেদের ভালো শিক্ষা দিতে হবে, অন্যায় অবিচার থেকে নিজেকে দূরে রাখতে হবে, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআতের অনুস্বারী হয়ে ইসলামের খেদমত করতে হবে, বাতিল মোনাফেক থেকে দূরে থেকে ঈমান আকিদাকে হেফাজত রাখতে হবে। তিনি গত মঙ্গলবার রাতে জাহানপুর কবির মোহাম্মদ সিকদার বাড়ি সমাজ উন্নয়ন সমিতির ব্যবস্থাপনায় ৩৯ তম ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) মাহফিলে প্রধান অতিথির তকরির করছিলেন। বেতাগী দরবারের পীরে তরিকত মাওলানা গোলামুর রহমান আশরাফ শাহর সভাপতিত্বে অনুষ্টিত মাহফিলে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন সমাজ উন্নয়ন সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ আলমগীর। খতিব মাওলানা জাফর উদ্দিন কামালীর সঞ্চালনায় তকরির করেন জামেয়া আহমদিয়া সুন্নীয়া মাদরাসার সাবেক অধ্যক্ষ হাফেজ আল্লামা মুহাম্মদ সোলায়মান আনছারী, পীরে তরিকত সৈয়দ মুহাম্মদ মছিহুদ্দৌলাহ। প্রধান বক্তা ছিলেন চট্টগ্রাম ছোবহানীয়া আলীয়া মাদরাসার প্রধান মুহাদ্দিস আল্লামা কাজী মঈনুদ্দিন আশরাফী। বিশেষ বক্তা ছিলেন মিডিয়া ব্যক্তিত্ব হাফেজ ক্বারী মাওলানা গোলাম কিবরিয়া। বিশেষ অতিথি ছিলেন আল্লামা এম এ মান্নান, আল্লামা হোসাইন আহমদ ফারুকী, মাওলানা জিয়াউর রহমান আহমদ উল্লাহ শাহ। এর আগে দুপুরে খতমে কোরআন, ছহিহ খতমে বোখারী শরিফের খতম অনুষ্টিত হয়। রাতে মিলাদ কিয়াম শেষে মোনাজাত করেন পীর শাহ মুহাম্মদ আহছানুজ্জামান।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
Salahuddin ৮ নভেম্বর, ২০১৯, ৬:৫০ পিএম says : 0
ঈদে মিলাদুন নবী পালন করা বিদয়াত
Total Reply(0)
মাওঃমোঃ শহীদুল ইসলাম। ৮ নভেম্বর, ২০১৯, ৬:২৩ পিএম says : 0
ঈদে মিলাদুন্নবী পালন করা বেদয়াত।কারন,রাসুল(সঃ) নিজে এটা করেননি।সাহাবা(রাঃ)আজমাঈন ও করেননি।কোরআন হাদীসের বাইরে কোন ইবাদত তালাশ করা গোমরাহী।
Total Reply(0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন