ঢাকা, বৃহস্পতিবার , ২৩ জানুয়ারী ২০২০, ০৯ মাঘ ১৪২৬, ২৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ভারতে ঢুকে পড়েছে সাত পাকিস্তানি কমান্ডো, সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ৪:৪৫ পিএম

ভারতে ঢুকে পড়েছে প্রশিক্ষিত ৭ পাকিস্তানী কমান্ডো। নেপাল সীমান্ত পেরিয়েই তারা ভারতে ঢুকেছে। এমনই তথ্য পেয়েছে ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা। এই পাক জঙ্গিরা দু’টি দলে ভাগ হয়ে উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুর এবং অযোধ্যায় গা ঢাকা দিয়ে রয়েছে। অযোধ্যার অস্থির পরিস্থিতিকে কাজে লাগিয়ে তারা সেখানে নাশকতা সৃষ্টির চেষ্টা করছে। জঙ্গিরা উপত্যকায় প্রবেশ করতে স্থানীয় জঙ্গিদের সঙ্গে যোগাযোগ রেখেছে। গোটা ঘটনার গোয়েন্দা রিপোর্ট জানার পরই ৭ জঙ্গির খোঁজে বিভিন্ন এলাকায় চিরুনী তল্লাশি করা হচ্ছে।
গোয়েন্দা সূত্রে খবর, নেপাল সীমান্ত হয়ে ভারতে জঙ্গি ঢোকাচ্ছে পাকিস্তান। যে সাত কমান্ডো ভারতে অনুপ্রবেশ করেছে তাদের পাঁচজনকে ইতিমধ্যেই শনাক্ত করা গিয়েছে। এরা হল মহম্মদ ইয়াকুব, আবু হামজা, মহম্মদ শাহবাজ, নিসার আহমেদ এবং মহম্মদ কাউমি চৌধুরী। বাকি দু’জনের পরিচয় এখনও জানা যায়নি। ইতিমধ্যেই রাজ্যগুলিকে অ্যালার্ট করা হয়েছে।
একটি গোয়েন্দা সূত্র জানিয়েছে, গুজরাটের কচ্ছের রণ এলাকায় পানিপথে পাকিস্তানের প্রশিক্ষিত কমান্ডোরা ঢুকে পড়তে পারে। তারা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্টের চেষ্টা চালাতে পারে বা জঙ্গি হামলাও চালাতে পারে। এমন তথ্যই পেয়েছেন ভারতীয় গোয়েন্দারা। এরপরই রাজ্যের সব বন্দরেই কঠোর সতর্কতা জারি করা হয়েছে।
জানা গেছে, ঠিক কোন জায়গা দিয়ে জঙ্গিরা ঢুকতে পারে, সেই নির্দিষ্ট তথ্যও হাতে এসেছে গোয়েন্দাদের। আদানি পোর্ট ও স্পেশাল ইকোনমিক জোন (সেজ)-এর একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, উপকূলরক্ষী বাহিনীর কার্যালয় থেকে তাদের জানানো হয়েছে, কচ্ছ উপসাগরের হারামি নালা বা স্যর প্রিক রো দিয়ে জঙ্গিরা ভারতীয় ভূখন্ডে ঢুকতে পারে। এই জঙ্গিরা পানির নীচে হামলা চালানোতেও প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত।
সতর্কতা জারি করে উপকূলরক্ষী বাহিনী জানিয়েছে, সম্ভাব্য পাকিস্তানি জঙ্গি হামলার আশঙ্কায় নিরাপত্তায় সর্বোচ্চ পর্যায়ে সতর্ক থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যে কোনও রকম পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে বাহিনীকে।
কী ধরনের সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিতে হবে, তারও একটি গাইডলাইন দিয়েছে উপকূলরক্ষী বাহিনী। এতে বলা হয়েছে, সর্বোচ্চ পর্যায়ে প্রস্তুত থাকতে এবং ২৪ ঘণ্টা কড়া নজরদারি রাখতে হবে। স্পর্শকাতর এলাকায় সর্বোচ্চ সংখ্যক বাহিনী মোতায়েন করতে হবে। তল্লাশি চালাতে হবে সন্দেহজনক ব্যক্তি, বস্তু বা নৌকা দেখলেই। উপকূল বরাবর স্থলভাগের সমস্ত অফিস বা বাড়িতে পার্ক করা গাড়িতেও তল্লাশি চালানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে চলছে ২৪ ঘণ্টা নজরদারি।
সূত্রের খবর, এই ৭ পাক জঙ্গির কাছেই আছে অত্যাধুনিক আগ্নেয়াস্ত্র ও গোলাবারুদ। কোথায় যে তারা নাশকতা চালাবে সে বিষয়ে কোনও ধারণাই নেই গোয়েন্দাদের। ৩৭০ ধারা বিলুপ্ত হওয়ার পর থেকেই কাশ্মীরে পাকিস্তানের সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘনের ঘটনা বেড়েছে। এই ঘটনা তারই প্রমাণ বলে মনে করা হচ্ছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (6)
oti_shadharon ২৪ নভেম্বর, ২০১৯, ৯:২৩ পিএম says : 2
খবরটা কতদূর সত্য জানিনা, তবে সারা ভারত জুড়ে মুসলিমদেরকে তল্লাশির নামে উত্যক্ত করার পটভূমি তৈরি করার জন্য এধরণের প্রোপাগান্ডা বিশেষ সহায়ক।
Total Reply(0)
Kazi Sheikh Mohammad Abdullah ২৫ নভেম্বর, ২০১৯, ৩:২২ এএম says : 2
Only for 7 persons terrorist all India red alert.... wowww. . If 50000 come then what to do
Total Reply(1)
alim ২৫ নভেম্বর, ২০১৯, ৪:২৪ পিএম says : 2
indian army will have a heart attack.
Abu ২৫ নভেম্বর, ২০১৯, ১০:৩৩ পিএম says : 2
ভারতের মুসলমানদের আরো বেশী অত্যাচার করার নতুন কৌশল এটা।।। আজকে যারা এই সুন্দর পৃথিবীকে অশান্ত করে তুলেছি সবার একটাই কথা মনে রাখা উচিত আমরা একদিন মরে যাব আর আমাদের পাপ পূণ্যের ফল আমাদের ভোগ করতে হবে।।।। মুসলমানদের জন্য অনেক বেশি কষ্ট হয়।।। আল্লাহ আমাদের নিশ্চয়ই সহায়ক হবেন।।।
Total Reply(0)
shaik ২৭ নভেম্বর, ২০১৯, ৭:৪১ এএম says : 1
HANDU raa Voyee akhon COW MUT khacche
Total Reply(0)
taijul Islam ২৭ নভেম্বর, ২০১৯, ৯:০৯ এএম says : 1
জনগণের ট্যাক্সের পয়সায় রিজিক যাদের তাদের মানুষের গায়ে হাত তুলতে হলে হিসেব করা দরকার।
Total Reply(0)
Md Imran Hossain ৩০ নভেম্বর, ২০১৯, ৩:৩১ পিএম says : 1
এটা যদি ওদের মুসলমানদের উপর অত্যাচারের ষড়যন্ত্র হয়ে থাকে আল্লাহ তুমি ওদেরকে সফল হতে দিও না। হে আল্লাহ তুমি আমাদের সকল মুসলিমকে সাহায্য কর।আমিন।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন