ঢাকা শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

মঠবাড়িয়ায় যৌতুকের কারনে শিশু সন্তানকে রেখে স্ত্রীকে মারধর করে বিতাড়ণ, থানায় মামালা

মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:৪৮ পিএম

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় যৌতুকের দাবীতে স্বামীসহ শ^শুর বাড়ির লোকজন শিশু সন্তানকে রেখে স্ত্রী পলী বেগম (২৪) কে মারধর করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিয়েছে। মারধরে আহত পলী বেগম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আবস্থায় আছে। এ ঘটনায় নির্যাতিতা গৃহবধূঁ বুধবার মঠবাড়িয়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে বাদী হয়ে স্বামী বেল্লাল বেপারী এবং শ^শুর রফিজ উদ্দিন বেপারী ও শ^শুরী কুলসুম বেগমরে বিরুদ্ধে মামলা করলে বিজ্ঞ আদালত বেল্লালের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারী করেন। 

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার দাউদখালী গ্রামের আলতাফ হাওলাদারে মেয়ে পলির সাথে হারজী নলবুনিয়া গ্রামের বাসিন্দা বেল্লালের সাত বছর আগে বিয়ে হয়। দাম্পত্য জীবনে তাদের সংসারে জাহিদ (৪) নামের একটি পুত্র সন্তান জন্ম নেয়। বিয়ের পর থেকেই পলী বেগমর কাছে স্বামীসহ শ^শুর বাড়ির লোকজন দুই লাখ টাকা যৌতুক দাবী করে আসছিল। এ ঘটনায় পলীর ওপর বিভিন্ন সময়ে চালানো হয় মানসিক ও শারিরীক নির্যাতন। তারই ধারাবাহিকতায় গত ৯ ডিসেম্বর সোমবার বিকেলে গৃহবধূঁ পলী বেগমের ওপর অমানুসিক নির্যাতন চালিয়ে শিশু পুত্রকে কেড়ে রেখে তাড়িয়ে দেয়া হয়। সংবাদ পেয়ে পলী বেগম এর পিতা আলতাফ হাওলাদার মেয়েকে উদ্ধার করে মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন