ঢাকা মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭ আশ্বিন ১৪২৭, ০৪ সফর ১৪৪২ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহারে ঝুঁকিপূর্ণ কাঠের সিঁড়ি

জয়পুরহাট জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৭ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০১ এএম

দেশের ঐতিহাসিক প্রতœততœ নির্দশন পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহারের মূল মন্দিরের চূড়াই ওঠার কাঠের সিঁড়িরগুলো নষ্ট হয়ে ঝুঁকিপূণ হয়ে পড়েছে। মন্দিরে প্রবেশের কাঠের তৈরি পদচারী সেতুর পাটাতনের কিছু অংশ খুলে পড়েছে। প্রায় দুই মাস ধরে এ অবস্থা বিরাজ করছে। এতে দশনার্থীরা মূল মন্দিরে ভেতরে প্রবেশ ও মন্দিরের চ‚ঁড়াই উঠতে দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন।
জানা যায়, ২০১৬ সালে সাউথ এশিয়ান ট্যুরিজম ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্টের আওতায় এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের অর্থায়নে দুই ধাপে পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহারের উন্নয়ন ও সংস্কারের কাজ করা হয়। এম/এস ঢালি কনস্ট্রাকশন লিমিটেড নামে একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান উন্নয়ন ও সংস্কারের কাজটি করেছিল। মন্দিরের দেয়ালের পুরানো আঙ্গিকে পোড়ামাটির টেরাকোটা লাগানো হয়েছিল। মূলমন্দিরের প্রবেশের জন্য কাঠের পদচারী সেতু ও মন্দিরের চ‚ঁড়াই ওঠার জন্য কাঠের সিঁড়ি নির্মাণ করা হয়। সংস্কার ও উন্নয়নে তিন বছরের মাথায় মন্দিরের দেয়ালগুলোর পোড়া মাটির টেরাকোটা খসে পড়ছে। মন্দিরে যাওয়ার কাঠের পদচারী সেতুটির পাটাতন নষ্ট হয়েছে। মূল মন্দিরের উত্তর কাঠের সিঁড়িটি নষ্ট হয়েছে। প্রায় দুই মাস আগে বাঁশের চেকার দিয়ে সিঁড়ির মুখটি বন্ধ করে রাখা হয়েছে। কেন্দ্রীয় মন্দিরের প্রধান সিঁড়িপথ ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ায় উপরে উঠা থেকে বিরত থাকার জন্য সকলকে অনুরোধ করে কাঠের সিঁড়ির একপাশে একটি সাইনর্বোড লাগানো হয়েছে। এসব সমস্যার কথা জানিয়ে পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহারের কাস্টেডিয়ান সংশ্লিষ্ট দপ্তরে পত্র দিয়েছেন।  
পাহারপুর ভ্রমনে আসা কয়েক জন দর্শনার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, কাঁঠের সিঁড়ি বন্ধ থাকায় সিঁড়ির মদিরের চ‚ঁড়ায় উঠতে তাঁদের সমস্যা হচ্ছে। কাঁঠের সিঁড়ি বন্ধ থাকায় অনেকেই ঝুঁকি নিয়ে দুই পাশ দিয়ে ইট বয়ে মন্দিরের চ‚ঁড়ায় উঠছেন। আবার অনেকেই মন্দিরের চার পাশ ঘুরে দেখে চলে যাচ্ছেন। মন্দিরের চ‚ড়াই ওঠার কাঠের সিঁড়িটি নষ্ট রয়েছে একারণে অনেকে কষ্ট করে মন্দিরের চ‚ড়ায় উঠতে হচ্ছে। কাঁঠের সিঁড়িটি দ্রæত সচল করার দাবি জানিয়েছেন দর্শনার্থীরা।
পাহাড়পুর জাদুঘরের কাস্টেডিয়ান আবু সাইদ ইনাম তানভিরুল বলেন, পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহারের মূল মন্দিরে প্রবেশের কাঠের পদচারী সেতুর পাটাতন কিছু অংশ নষ্ট হয়েছে। মন্দিরের চ‚েড়াই ওঠার কাঠের সিঁড়িটি নষ্ট হয়েছে।
মহাপরিচালক মহোদয়কে চিঠির মাধ্যমে বিষয়টি অবগত করা হয়েছে। চিঠির প্রেক্ষিতে প্রতœতত্ত¡ বিভাগের প্রধান প্রকৌশলী এসেছিলেন। তবে এখন পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন