ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৪ আগস্ট ২০২০, ২০ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৩ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

মেয়েকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় বখাটের হামলা

প্রকাশের সময় : ২৩ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম

সৈয়দপুর (নীলফামারী) উপজেলা সংবাদদাতা

সৈয়দপুরে কলেজ পড়–য়া মেয়েকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় এক বাড়িতে ঢুকে হামলা চালিয়েছে এক বখাটে ও তাঁর পরিবার সদস্যরা। এতে ওই কলেজ ছাত্রীর মা-বাবা আহত হয়েছে। বাম হাতে গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত মেয়ের মা আহত মোছা. রুবি বেগমকে সৈয়দপুর ১০০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শহরের কাজীরহাট পানির ট্যাঙ্ক এলাকায় গত ১৮ জুলাই বিকেলে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সৈয়দপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আহসান হাবিব অভিযোগে বিষয়টি তদন্ত করেন। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, শহরের কাজীরহাট পানির ট্যাঙ্ক এলাকায় রিকশা চালক মো. ইয়াকুব আলীর মোছা. নাদিরা আফরোজ (২০)। সে নীলফামারী সরকারী কলেজে অনার্সের দর্শন বিভাগের ছাত্রী । নাদিয়া কলেজে আসা- যাওয়ার পথে প্রায় উত্ত্যক্ত করতো প্রতিবেশি তফুর আলীর বখাটে ছেলে বাংরু (২০)। উত্ত্যক্তের শিকার মেয়ের মা মোছা. রুবি বেগম ঘটনাটি সৈয়দপুর পৌরসভার ১০নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলরসহ বখাটের বাবা-মাকে একাধিকবার জানান। কিন্তু তারপরও ওই বখাটের উত্ত্যক্ত করার ঘটনা বন্ধ হয়নি। বরঞ্চ আগের তুলনায় তার উত্ত্যক্তের মাত্রা আরো বেড়ে যায়। এদিকে পৌর কাউন্সিলরসহ অভিভাবকের কাছে অভিযোগ করায় ক্ষিপ্ত হয়ে গত ১৮ জুলাই বিকেলে বখাটে বাংরু কলেজ ছাত্রীর ভাড়া বাড়িতে এসে কেন তাঁর পরিবারের কাছে অভিযোগ দেওয়া হয়েছে তা জানতে চায়? এ সময় কথা বলার এক পর্যায়ে বখাটে ওই কলেজ ছাত্রীর ওপর চড়াও হয়। পরে বখাটের বাবা-মা ও বড় ভাই বাবুসহ বেশ কয়েকজন লাঠি, ছোরা ও লোহার রড নিয়ে এসে তাঁর সঙ্গে যোগ দেয়। তারা কলেজ ছাত্রীর ভাড়া বাড়ির ঘরের বেড়া, আসবাবপত্র ও রান্নার চুলা ভাঙচুর করে। এ সময় নাদিয়া ও তার বড় বোনকে টানাহেঁচড়া করে বিবস্ত্র করে শ্লীলতাহানি করে ও লোহার রড দিয়ে এলোপাতাড়ি মারপিট করতে থাকে। লোহার রডের আঘাতে নাদিয়ার বাবা ইয়াকুর আলী প্রামানিকের শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয় ও মা রুবি বেগমের বাম হাতের কনুই ও হাঁড়ে আঘাত পেয়ে মারাত্মক আহত হত। এ ঘটনায় নাদিয়ার মা মোছা. রুবি বেগম নিজে বাদি হয়ে গত ১৯ জুলাই রাতে সৈয়দপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন