ঢাকা বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

তুরস্কের সাথে বিরোধে গ্রীসের সমর্থনে ইউএই

মধ্যপ্রাচ্যের রাজনীতি ও তুরস্ক -শেষ পর্ব

ডন | প্রকাশের সময় : ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

লক্ষণীয় বিষয় হচ্ছে, সউদী আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের (ইউএই) সাথে সম্পর্কের অবনতি ঘটার পর তুরস্ক কাতারকে সমর্থন দিয়েছিল এবং অবরুদ্ধ দেশটিতে ত্রাণ সামগ্রী এবং ৫ হাজার তুর্কি সৈন্য পাঠিয়েছিল। এই ক্রমবর্ধমান সংঘাতের সর্বশেষ ময়দান হল লিবিয়া। সেখানে ইউএই জেনারেল খলিফা হাফতারের লিবিয়ান ন্যাশনাল আর্মিকে সমর্থন দিতে বিপুল অর্থের যোগান দিয়েছে। যদিও অন্যান্য উপসাগরীয় দেশ, মিশর ও ফ্রান্সের সর্বাত্মক সমর্থনে মাসব্যাপি আক্রমণাত্মক যুদ্ধ সত্তে¡ও সম্প্রতি তাদের পরাজয় ঘটেছে।

জাতিসংঘের এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, ইউএই হাফতারকে অত্যাধুনিক অস্ত্রের যোগান দিতে হাফতার নিয়ন্ত্রিত বিমানবন্দরগুলিতে কয়েক ডজন গোপন ফ্লাইট চালিয়েছিল। এখানে আমরা আবারও বিপরীত দিকে দেখেছি যে, তুরস্ক জাতিসংঘ স্বীকৃত লিবিয়ান ‘গভর্নমেন্ট অব ন্যাশনাল অ্যাকর্ড’ সরকারকে সমর্থনে দিচ্ছে। কেবলমাত্র মিত্র হিসাবে কাজ করার জন্যই যে তুরস্ক তার আদর্শগত অবস্থান ধরে রাখছে তা নয়। তুরস্কের পক্ষে একটি বন্ধুত্বপূর্ণ লিবিয়া ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলে অবাধ বিচরণের পথ উন্মুক্ত করে দেবে। যদি তুরস্ক কিছু চায়, এটি বাজি ধরে বলা যায় যে, সংযুক্ত আরব আমিরাত তাতে বাগড়া দেয়ার চেষ্টা করবে। এবং তাই পূর্ব ভূমধ্যসাগরে তুরস্ক এবং গ্রীসের মধ্যকার সর্বশেষ উত্তেজনায় আমরা দেখি যে, ইউএই গ্রিসের প্রতি সম্পূর্ণ সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে, এমনকি গ্রীক সামরিক বাহিনীর সাথে যৌথ প্রশিক্ষণের জন্য ৪ টি এফ-১৬ যুদ্ধবিমান পাঠিয়েছে।

এই প্রেক্ষাপটে তুরস্কের জন্য ঝুঁকিটা বেশি। প্রচুর পরিমাণে প্রয়োজনীয় গ্যাস এবং জ্বালানি সরবরাহের জন্য অনুসন্ধান চালানো কারণে দেশটি ইউরোপীয় শক্তিগুলি, বিশেষত ফ্রান্সের ক্রমবর্ধমান বিরোধিতার মুখোমুখি হচ্ছে। ফ্রান্সের লক্ষ্য তুরস্ককে কোণঠাসা করে নিজস্ব স্বার্থ সম্প্রসারণ করা এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের কাছে নিজেরকে উপস্থিত মিত্র হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা। অন্যদিকে, তুরস্কের আঞ্চলিক মিত্রের সংখ্যা কম এবং সামনের দশকগুলিতে অত্যন্ত সাবধানতার সাথে তার কৌশলগত নীতিগুলির সামঞ্জস্য ঘটাতে হবে। (সমাপ্ত)

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (9)
Sohrab Hossain ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ২:৩০ এএম says : 0
তুরস্ক মুসিলম বিশ্বের হাল ধরুক এটা এখন সবার চাওয়া।
Total Reply(0)
Sohrab Hossain ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ২:৩১ এএম says : 0
মধ্যপ্রাচ্যের মুসলিম দেশগুলোর প্রতি মুসলমানদের আস্থা হারিয়ে গেছে। এরদোগানকে নেতৃত্ব দিতে এগিয়ে আসতে হবে।
Total Reply(0)
নীল আকাশ ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ২:৩২ এএম says : 0
তুরস্কের সাথে গ্রীসের বিরোধে সব মুসলিম দেশের উচিত ছিল তুরস্ককে সমর্থন দেয়া্।
Total Reply(0)
তাসফিয়া আসিফা ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ২:৩৩ এএম says : 0
ইনশায়াল্লাহ, এরদোগানের নেতৃত্বে তুরস্ক মুসলিম বিশ্বের পরিচালনা করবে। মুনাফেক িহতে সাবধান।
Total Reply(0)
হোসাইন এনায়েত ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ২:৩৩ এএম says : 0
মধ্যপ্রাচ্যের মোনাফেক মুসলিম শাসকদের হতে সাবধান।
Total Reply(0)
সত্য বলবো ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ২:৩৪ এএম says : 0
আরব আমিরাতকে সব মুসলিম দেশের বয়কট করা জরুরি।
Total Reply(0)
কে এম শাকীর ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ২:৩৪ এএম says : 0
তুরস্কের সাফল্য কামনা করছি।
Total Reply(0)
নাসিম ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৯:১৬ এএম says : 0
আমিরাতের বিশ্বাসঘাতকতা অনেক কিছুই হার মানিয়েছে।
Total Reply(0)
Jack Ali ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:২০ পিএম says : 0
May Allah's curse on UAE and French government. Ameen
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন