ঢাকা বুধবার, ২০ জানুয়ারি ২০২১, ০৬ মাঘ ১৪২৭, ০৬ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

মহাসড়কে ময়লার ভাগাড়

দূষিত হচ্ছে পরিবেশ

সাদিক মামুন, কুমিল্লা থেকে | প্রকাশের সময় : ১১ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০১ এএম

দেশের অন্যতম প্রধান ব্যস্ততম কুমিল্লার নিমসার বাজারের সবজির উচ্ছিষ্টে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে ময়লার ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে। দেশের অন্যতম সবজি বাজার নিমসারের এসব বর্জ্য আবর্জনা ফেলার নির্দিষ্ট কোন স্থান না থাকায় পরিবহনের ভেতরের ও আড়তের পঁচা, উচ্ছিষ্ট সবজির স্তুপ পড়ছে মহাসড়কের পাশে। কুমিল্লা পরিবেশ অধিদপ্তরের দৃষ্টি নেই এদিকে। গণমাধ্যমের পক্ষ থেকে কুমিল্লার পরিবেশ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালককে একাধিকবার বলা হলেও তিনি ‘বাজারের ইজারাদারকে চিঠি দিয়েছি, উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে মামলা দায়েরের সুপারিশ চেয়ে চিঠি পাঠিয়েছি’ এসব বলেই দায়িত্ব সারছেন। কিন্তু মহাসড়কের কুমিল্লার নিমসার অংশে পরিবেশের এ দুরাবস্থা স্থায়ী রূপ নিচ্ছে।
দেশের বিভিন্নস্থান থেকে প্রতিদিন ট্রাক, কাভার্ডভ্যানসহ বিভিন্ন যানবাহনে করে সবজি নিয়ে কুমিল্লার নিমসার বাজারে আসেন পাইকাররা। আবার আশপাশের উপজেলায় উৎপাদিত সবজি কৃষকরাই নিয়ে আসেন। আর দূরদুরান্তের সবজিবাহী পরিহনগুলো মধ্যরাতেই নিমসারে পৌঁছে। সবমিলে নিমসারে সবজি বিক্রির এলাহিকান্ড প্রতিদিন ভোররাত থেকে শুরু হয়ে চলে বেলা প্রায় ১১টা পর্যন্ত।
বৃহত্তম এই সবজি বাজারে ময়লা আবর্জনা ফেলার নির্দিষ্ট ডাস্টবিন বা স্থান নির্ধারণ না থাকায় প্রতিদিনই বাজারের সবজির উচ্ছিষ্ট অংশ মহাসড়কের পাশে যত্রতত্র ফেলা হচ্ছে। এগুলো পঁচে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে।
ফলে পথচারীসহ বাজারে আসা ব্যবসায়ীদের চরম দুর্ভোগে পোহাতে হয়।
স্থানীয়রা জানায়, মহাসড়কের ওপর দাঁড় করিয়ে অনেক ট্রাক, কাভার্ডভ্যান গাড়িতে রেখেই সবজি বিক্রি করায় নিমসার বাজারের ফোরলেনের উভয় অংশে থেমে থেমে যানজট সৃষ্টি হয়। আবার রোড ডিভাইডারে অনেকে সবজি বিক্রি করায় দুর্ঘটনার আশংকাও থেকে যায়। বিশেষ করে রাত থেকে সকাল পর্যন্ত সবজির উচ্ছিষ্ট, পঁচা সবজি মহাসড়কের পাশে ফেলে ময়লার ভাগাড়ে পরিণত করেছে নিমসারের অংশ।
মহাসড়কের পাশে জমছে আবর্জনার স্তুপ। দুষিত হচ্ছে পরিবেশ। মহাসড়কের পাশে সবজির ময়লা আবর্জনা ফেলায় পথচারিরা বাধ্য হয়েই সড়কের উপর দিয়ে চলাচল করায় প্রায়ই ছোটখাটো দুর্ঘটনা ঘটছে।
স্থানীয় ব্যবসায়ীদের অনেকেই জানান, এতদিন বাজারটি সরকার এককভাবে ইজারা দিলেও সম্প্রতি সরকারি নির্দিষ্ট বাজারের স্থানের বাইরেও দু’টি গ্রুপ ব্যক্তি মালিকানাধীন স্থানে পৃথক দু’টি বাজার পরিচালনা করছে। এতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়েছে বাজারের অবস্থান। আর এজন্য সড়কের পাশে একাধিকস্থানে আবর্জনার স্তুপ জমছে। আবর্জনা ফেলার নির্দিষ্ট জায়গা না থাকায় মহাসড়কের দুইপাশের পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন