ঢাকা শনিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ০২ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউল সানী ১৪৪২ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

কুমিল্লা উত্তরের মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটিগুলো ভেঙে দেয়ার দাবি

মোহাম্মদ জসিমউদ্দিন মোল্লা, কুমিল্লা উত্তর থেকে | প্রকাশের সময় : ১৩ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০১ এএম

কুমিল্লা উত্তরের ৭টি উপজেলা ও ইউনিয়ন কমিটিগুলো ভেঙে ঢেলে সাজানোর জোরালো দাবি উঠেছে তৃণমূল থেকে। তৃণমূল নেতা-কর্মীদের স্পষ্ট বক্তব্য, কমিটি গঠনে আমাদের প্রাণপ্রিয় নেত্রীর রূপরেখা বাস্তবায়ন করতে মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটিগুলো ভেঙে ত্যাগি, জনপ্রিয়, নৈতিক ও আদর্শিকভাবে পরিচ্ছন্ন ইমেজের নেতাদের মাধ্যমে আহবায়ক/এডহক কমিটি গঠন করা জরুরি হয়ে পড়েছে। একইভাবে উপজেলা আহবায়ক কমিটির মাধ্যমে প্রতিটি ইউনিয়নে সম্মেলন করে সুবিদাবাদী ও হাইব্রিড মুক্ত করে প্রকৃত মজিব আদর্শের নেতাদের পূনর্বহাল করতে হবে। জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশমতো ত্যাগি নেতাদের মূল্যায়ন করতে হবে।
এদিকে স্থানীয় রাজনৈতিক অভিজ্ঞ মহলও অভিন্ন সুরে একই কথা বলছেন। সকলেরই অভিমত এখানকার উপজেলা ও ইউনিয়ন কমিটিগুলো নিষ্ক্রিয় ও হাইব্রিড মহামারিতে আক্রান্ত। এতে করে বিভিন্ন স্তরের সংগঠনগুলোতে দেখা দিয়েছে চরম বিপর্যয়কর দুর্দদশা। তা থেকে উত্তরণে পরিচ্ছন্ন, জনপ্রিয় ও ক্লিন ইমেজের নেতাদের নেতৃত্বে আহবায়ক কমিটি গঠন করে একেবারে ওয়ার্ড কমিটি থেকে দলকে পুননর্গঠন করা।
কুমিল্লা উত্তর জেলা আ.লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি এবিএম গোলাম মোস্তাফা ইনকিলাবকে বলেন, আ.লীগের প্রাণশক্তি হলো তৃণমূল। জননেত্রীও ত্যাগিদের মূল্যায়নের কথাও বলছেন। সভানেত্রীর রূপরেখা ও আদেশ-নির্দেশ বাস্তবায়ন করাই আমাদের জেলা কমিটির প্রধান এজেন্ডা। তাই তৃণমূলের দাবিকে অগ্রাধিকার দিতে হবে। তিনি বলেন, যেসকল উপজেলার কমিটি মেয়াদোত্তীর্ণ হয়েছে, সেখানে আহবায়ক কমিটি দিতে আমি জেলা সভায় উপস্থাপন করবো। যুগ্মসাধারণ সম্পাদক বাসুদেব ঘোষ বলেন, দলে যেন আর সুবিদাবাদীরা ঢুকতে না পারে সে বিবেচেনায় জেলা কমিটির সিদ্ধানের প্রয়োজন।
দফতর সম্পাদক অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম রাজিব বলেন, কয়েকটি উপজেলার সাংগঠনিক অবস্থা খুবই নাজুক। ওখানে আহবায়ক কমিটির মাধ্যমে ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন কমিটিগুলো সম্মেলন করে পরিচ্ছন্ন কর্মীদের দিয়ে নতুন করে ঢেলে সাজানো হলে সংগঠনে প্রাণ ফিরে পাবে।
দাউকান্দি উপজেলা আ.লীগের সহ-দফতর সম্পাদক জাকির হোসেন হাজারী বলেন, পরিচ্ছন্ন, ত্যাগি ও প্রকৃত মুজিব সৈনিকদের দিয়ে তৃণমূল ঢেলে সাজানো জরুরি।
তিতাস উপজেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি শাহ আলম শান্তি বলেন, হাইব্রিডদের হাত থেকে দলকে বাঁচাতে হলে এই মুহূর্তে পরিচ্ছন্ন নেতাদের মাধ্যমে আবহবায়ক কমিটি গঠন ছাড়া বিকল্প আর কিছু দেখছি না।
তিতাস উপজেলা আ.লীগ নেতা মিজান ইবনে হাসেন বলেন, উপজেলা ও ইউনিয়ন কমিটিগুলোতে বিতর্কিত ও হাইব্রিডরা ঢুকে সংগঠনের বরোটা বাজিয়েছে। বর্তমান এই করুনদশা থেকে দলকে বাঁচাতে হলে আহবায়ক কমিটি গঠনের বিকল্প নাই।
তিতাস উপজেলার কলাকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান এবং ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি বাহারুল বাহার বলেন, হাইব্রিডদের দাপটে হামলা-মামলা খেয়ে নিঃশ^াস বন্ধ হযে আসছে, আমরা ত্যাগিরা অসহায় হয়ে পড়েছি। জরুরি ভিত্তিতে আহবায়ক কমিটি গঠন করে আমাদেরকে ও দলকে বাঁচানোর দাবি জানাচ্ছি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন