ঢাকা শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ৪ বৈশাখ ১৪২৮, ০৪ রমজান ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

জমি নিয়ে বিরোধে মা ও অন্তঃসত্ত্বা মেয়েকে পাশবিক নির্যাতন

কুষ্টিয়া থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১২:০০ এএম

কুষ্টিয়ার কুমারখালীর চাঁদপুর ইউনিয়নের মধুপুর গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে মা ও অন্ত:সত্তা মেয়েকে শারীরিকভাবে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। বর্তমানে মেয়ে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এলাকাবাসী জানায়, দীর্ঘদিন যাবৎ জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে দুই পরিবারের মাঝে। ইতিপূর্বে সবুজ ও তার পরিবারের লোক কয়েকবার হামলা চালিয়েছে মৃত খন্দকার মকবুল হোসেনের পরিবারের উপর। ৩-৪ মাস আগে এলাকার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষার্থে সবুজ ও তার পরিবারকে কুমারখালীর চৌরঙ্গী ক্যাম্পের পুলিশ সতর্ক করে যায় এবং বিষয়টি মীমাংসা করে দেয়। কিন্তু পুলিশের নির্দেশ অমান্য করে আবার গত ২৪ ফেব্রুয়ারী মকবুল হোসেনের পরিবারের উপর অমানবিক নির্যাতন করেছে।

শান্তার স্বামী ফরিদুল ইসলাম জানান, গত ২৪ ফেব্রুয়ারী দুপুর ১টার সময় জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে চাঁদপুর ইউনিয়নের মধুপুর গ্রামে তার শ্বশুড় মৃত খন্দকার মকবুল হোসেনের স্ত্রী আয়শা, বড় মেয়ে রুবিনা এবং ৩ মাসের অন্তঃসত্তা তার স্ত্রী শান্তা ইসলামের উপর লাঠি এবং লোহার রড দিয়ে হামলা চালায় প্রতিবেশী মৃত শমসের আলীর ছেলে সবুজ একই গ্রামের মৃত মতিনের ছেলে রাজা এবং সবুজের মা রাবেয়া ও তার স্ত্রী রোজিনা। মারধরের এক পর্যায়ে অন্তঃসত্তা শান্তা মাটিতে পড়ে গেলে সবুজ তার পেটে লাথি মারতে থাকে। এবং এক পর্যায়ে রক্তক্ষরন শুরু হলে সবুজ গং ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে পরিবারের লোকজন শান্তাকে উদ্ধার করে মধুপুর বাজারে প্রাথমিক চিকিৎসার পর কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন