ঢাকা, রোববার, ১৩ জুন ২০২১, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ০১ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

আনোয়ারা ও লামায় দু’জনের আত্মহত্যা

অভ্যন্তরীণ ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ৫ মে, ২০২১, ১২:০১ এএম

চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলায় ঈদে পছন্দের কাপড়ের জন্য অভিমান করে সায়মা আক্তার নামে এক কিশোরি আত্মহত্যা করেছে। এছাড়া বান্দরবানের লামায় পারিবারিক কলহে দিপক দাশ নামে এক যুবক গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এ বিষয়ে সংবাদদাতাদের পাঠানো প্রতিবেদনÑ

আনোয়ারা (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, আনোয়ারায় ঈদে পছন্দের কাপড়ের জন্য অভিমান করে সায়মা আক্তার (১৩) নামে এক কিশোরি আত্মহত্যা করেছে। গত সোমবার বিকাল সাড়ে ৫টায় উপজেলার বটতলী ইউনিয়নের চাপাতলী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ঐ কিশোরি স্থানীয় আইয়ুব আলীর কন্যা। জানা যায়, সায়মার মা রাবেয়া খাতুন পাড়া-মহল্লায় কাপড় বিক্রি করে। সোমবার সায়মা একটি কাপড় চায়। মা রাবেয়া খাতুন সায়মার পছন্দের কাপর না দিয় কাপড় বিক্রি করার জন্য বিকেলে ঘর থেকে বের হয়ে যায়। এ সুযোগে মায়ের সাথে অভিমান করে সায়মা আত্মহত্যা করে।

আনোয়ারা থানার ওসি এস এম দিদারুল ইসলাম সিকদার জানান, মায়ের সাথে অভিমান করে সায়মা আক্তার (১৩) নামে এক কিশোরি ঘরে গলায় ওড়না দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। পুলিশ খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থলে যায়।

লামা (বান্দরবান) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, পারিবারিক কলহের জের ধরে দিপক দাশ (৩৫) নামে এক যুবক গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। দিপক লামা মাছ বাজার সংলগ্ন ভাড়া বাসায় পরিবার নিয়ে থাকে। গত সোমবার এ ঘটনা ঘটে। মৃতের স্বজনদের ভাষ্য, পারিবারিক কলহের জের ধরে সে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। জানা যায়, চট্টগ্রামের সাতকানিয়ার ঠাকুরদীঘি এলাকার সন্তোষ ধরের ছেলে দীপক ধর লামা বাজারের বিপুল মাস্টারের দোকানে দীর্ঘদিন ধরে কর্মচারি হিসেবে চাকরি করে আসছে। এরমধ্যে প্রায় পাঁচ বছর আগে লামা সদর ইউনিয়নের মেরা খোলা এলাকার অরবিন্দু ধরের কন্যা রূপালী ধরের সাথে তার বিয়ে হয়। তাদের সংসারে দুইটি সন্তান রয়েছে। তবে, দীপক ও তার স্ত্রীর মধ্যে কথা কাটাকাটি নিয়ে সব সময় ঝগড়া লেগেই থাকতো বলে জানায় স্বজনরা।

দীপকের স্ত্রী রূপালী ধর জানায়, সোমবার বিকালে তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। এরমধ্যেই আমার স্বামী কাউকে কোনো কিছু না বলে ঘরের দরজা বন্ধ করে দেয়। অনেক চেষ্টা করেও দরজা খুলতে না পেরে স্থানীদের সহায়তায় দরজা খুলে দেখি আমার স্বামী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

লামা থানার এসআই আব্দুস সামাদ জানান, ইফতারের সময় খবর পেয়েই তাৎক্ষণিক আমরা গিয়ে লাশটি উদ্ধার করেছি। ময়নাতদন্তের জন্য গতকাল মঙ্গলবার জেলা মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন