মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৪ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

শিমুলিয়া ঘাটে সাংবাদিকের মোবাইল ছিনিয়ে ভিডিও ডিলিট, ট্রাফিক পরিদর্শক প্রত্যাহার

লৌহজং (মুন্সীগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৭ জুলাই, ২০২১, ৩:৫৯ পিএম

মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার শিমুলিয়া ঘাটে প্রথম আলোর জেলা প্রতিনিধি ফয়সাল হোসেনের কাছ থেকে মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে ভিডিও ডিলিট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত মাওয়া ট্রাফিক পুলিশ পরিদর্শক (টিআই) মো. জাকির হোসেনকে প্রত্যাহার করা হয়েছে

মুন্সীগঞ্জ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) সুমন দেব ট্রাফিক পুলিশ পরিদর্শক (টিআই) মো. জাকির হোসেনের প্রত্যাহারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গতকাল শুক্রবার সকাল পৌনে ১০টার দিকে শিমুলিয়াঘাটে এ ঘটনা ঘটে। সাংবাদিক ফয়সাল হোসেন দৈনিক ইনকিলাবকে বলেন, শুক্রবার সকাল পৌনে ১০টার দিকে নৌ-পুলিশের মাঠে শতাধিক গাড়ি অপেক্ষমাণ ছিল। আটকে থাকা যাত্রীদের ভিডিও বক্তব্য নিচ্ছিলাম। এসব যাত্রীরা ৬-৭ ঘণ্টা, এমনকি একদিন পর্যন্ত আটকে ছিল। তারা অভিযোগ করে বলছিল, ভিআইপি গাড়ি সিরিয়াল না মেনে আগেভাগে ফেরিতে যেতে দেওয়া হচ্ছে। এমন সময় আটকে থাকা যাত্রীরা সড়কে এসে একটি প্রাইভেট কার আটকে দেয়। খবর পেয়ে ট্রাফিক পুলিশ পরিদর্শক জাকির হোসেনসহ ৪-৫ জন পুলিশ সদস্য ঘটনাস্থলে আসে। এক পর্যায়ে যাত্রী ও পুলিশের মধ্যে হট্টগোল তৈরি হয়। আমি সে ঘটনার ভিডিও করছিলাম। এটা দেখে পুলিশ পরিদর্শক জাকির হোসেন তেড়ে আসে এবং আমার মোবাইল কেড়ে নিয়ে আরেকজন পুলিশ সদস্যকে দিয়ে ভিডিও ডিলিট করে দেয়।
সাংবাদিক ফয়সাল আরও জানান, ট্রাফিক পুলিশ পরিদর্শক জাকির হোসেনকে সাংবাদিক পরিচয় দিলেও তিনি তা শোনেননি। পরিচয় শুনে সে আরও রূঢ় আচরণ করে। প্রায় দুই মিনিট তিনি মোবাইল আটকে রাখেন এবং মোবাইলে থাকা একাধিক ভিডিও ডিলিট করে দেন।
জানতে চাইলে মাওয়া ট্রাফিক পুলিশ পরিদর্শক জাকির হোসেন সাংবাদিকদের বলেন,এটি ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। আর কিছু হয়নি।’

 

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন