শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ১৫ মাঘ ১৪২৮, ২৫ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

কলম্বিয়ায় প্রেসিডেন্টের কপ্টারে হামলায় আটক ১০

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ জুলাই, ২০২১, ৪:৪১ পিএম

কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট ইভান দুকে মারকেজের হেলিকপ্টারে গুলির ঘটনায় দশজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এসব গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা বামপন্থী সশস্ত্র সংগঠন ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মির ‘সদস্য’ বলে দাবি কলম্বিয়া পুলিশের।

গতকাল (বৃহস্পতিবার, ২২ জুলাই) ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে তাদের গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কলম্বিয়ার অ্যাটর্নি জেনারেল ফ্রান্দিসকো বার্বোসা।
বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মির সশস্ত্র সদস্যরাই এ ঘটনায় জড়িত। গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের মধ্যে তিনজন এই হামলার পরিকল্পনা আঁটেন, যাদের মধ্যে সাবেক সেনা অধিনায়কও রয়েছেন। এরা ২০১৬ সালে আমাদের শান্তিচুক্তি প্রত্যাখান করেছিল। এদের সবার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২৬ জুন কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট ইভান দুকে মারকেজ হেলিকপ্টারে করে কলম্বিয়ার উত্তর-পূর্বে নর্তে দে সান্তান্দের প্রদেশে সীমান্ত এলাকা পরিদর্শনে যান। এলাকাটি ভেনেজুয়েলা সীমান্তঘেঁষা। প্রেসিডেন্টকে নিয়ে হেলিকপ্টারটি যখন কুকুতা অঞ্চলের উপর দিয়ে উড়ছিল, তখন হঠাৎই শুরু হয় গোলাগুলি। গুলির আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত হয় প্রেসিডেন্টকে বহনকারী হেলিকপ্টারটি। তবে অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পান প্রেসিডেন্ট ইভান ও তার সফরসঙ্গীরা।
এর আগে জুন মাসের শুরুতে কলম্বিয়ার একটি সেনাঘাঁটিতেও গাড়ি বোমা হামলা করেছিল সন্ত্রাসীরা। ওই হামলায় যুক্তরাষ্ট্রে দুজন সামরিক উপদেষ্টাসহ মোট ৪৪ জন আহত হন। ওই ঘটনায় জড়িতদের বিষয়ে তথ্য জানালে ৩ বিলিয়ন পেসো বা ৭ লাখ ৯৬ হাজার ডলার পুরস্কার ঘোষণা করেছিল কলম্বিয়া সরকার।
দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রী দিয়েগো মোলানোর অভিযোগ, প্রেসিডেন্ট ইভান দুকে মারকেজের হামলার ঘটনায় মদদ রয়েছে ভেনেজুয়েলা সরকারের।
তার অভিযোগের পেছনে যুক্তি হল, কুকুতা অঞ্চলে হামলার পর কলম্বিয়া পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দুটো রাইফেল উদ্ধার করেছে। যার একটি একে-৪৭ রাইফেল ও আরেকটি ৭.৬২ ক্যালিবারের রাইফেল। দেশটির পুলিশ প্রধান জেনারেল জর্জ ভারগাস জানিয়েছেন, এই ধরনের রাইফেল ভেনেজুয়েলার সেনারা ব্যবহার করে। দিয়াগো মোলানো রয়টার্সকে বলেন, নিশ্চিতভাবেই এ হামলাটি ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মির সদস্যরাই করেছে, যাদের মদদ দিচ্ছে ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো।
কলম্বিয়ার বামপন্থী সশস্ত্র সংগঠন ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মি ভূমি ও সম্পদ বণ্টনের বৈষম্যের বিরুদ্ধে ১৯৬৪ সাল থেকে লড়ছে। কলম্বিয়া সরকার, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন একে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে আখ্যা দিয়েছে।

২০১৬ সালে শান্তি চুক্তি প্রত্যাখানের পর কলম্বিয়া সীমান্তে এ সংগঠনের দাপট বাড়লে সরকারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয় এতে মদদ দিচ্ছে ভেনেজুয়েলা। ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্টও চুপ থাকেননি। তিনি বলেছেন, ভেনেজুয়েলা কলম্বিয়ার সন্ত্রাসীদের দ্বারা আক্রান্ত। সূত্র : রয়টার্স।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন