শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০ আশ্বিন ১৪২৮, ১৭ সফর ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

তিন বছর পর রাজশাহীতে সাজাপ্রাপ্ত আসামি র‌্যাবের হাতে আটক

রাজশাহী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১ আগস্ট, ২০২১, ১১:০৪ এএম

রাজশাহী মহানগরীতে ১ বছরের বিনাশ্রম সাজাপ্রাপ্ত ও ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ডে দন্ডিত ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী নুরে ইসলাম মিলনকে আটক করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব-৫। আটক মিলন দৈনিক উপচার পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক। তিনি নগরীর বোয়ালিয়া থানাধীন ঘোড়ামারা এলাকার মৃত মোস্তাক হোসেন ওরফে ডাবলুর ছেলে। বর্তমানে তিনি সাগরপাড়া (বটতলা) মোড়ের একটি বাড়িতে বসবাস করেন। শনিবার দুপুর সোয়া ২ টার দিকে তাকে নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থানাধীন হড়গ্রাম নতুন বস্তিপাড়া এলাকা থেকে আটক করে র‌্যাব-৫ এর একটি দল। পরে তাকে বোয়ালিয়া মডেল থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। র‌্যাব জানায়, র‌্যাব-৫ রাজশাহীর সিপিএসসি মোল্লাপাড়া ক্যাম্পের একটি দল গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, সিআর ৩৮৯/২০১৭(সি), দায়রা নং-৬৬৬/২০১৭ ধারা-এনআই এ্যাক্ট-১৩৮ (সাজাপ্রাপ্ত ওয়ারেন্ট) এর সাজাপ্রাপ্ত আসামী নুরে ইসলাম (মিলন) নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা ধানাধীন হড়গ্রাম মোল্লাপাড়া নতুন বস্তি এলাকায় ঘোরাফেরা করছে। বিষয়টি জানতে পেরে র‌্যাবের ওই দলটি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করে সাজা পরোয়ানার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পরে সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্সের সহায়তায় ঘটনাস্থল নতুন বস্তির পাঁকা রাস্তার উপর থেকে তাকে গ্রেফতার করে। বিধি মোতাবেক দেহ তল্লাশী করে আসামীর যাবতীয় মানবাধিকার সংরক্ষণ পূর্বক হেফাজতে গ্রহণ করে র্যাব। আসামীকে রাজশাহী মহানগরীর বোয়ালিয়া থানায় সোপর্দ করা হয়। খোঁজ নিয়ে আরো জানা যায়, থানা সূত্রে জানা গেছে, মামলার বাদী একজন প্রতিবন্ধী। রেলে চাকুরী দেয়ার নামে একটি চেকের মাধ্যমে মোটা অঙ্কের টাকা গ্রহণ করে মিলন। ২০১৭ সালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা যুগ্ম জজ আদালত-২ এ প্রতিবন্ধী রায়হান আলী বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। মামলা নং-৬৬/১৭। মামলার বাদী চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ থানার বাবুপুর গ্রামের আমিনুল হকের ছেলে। মামলার এক বছর পর ২০১৮ সালের জানুয়ারী মাসের ১৮ তারিখে আদালতের বিচারক মিলনকে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ডে দন্ডিত করেন। কিন্তু তিনি তখন পলাতক ছিলেন। ২০১৮ সাল থেকে মামলার ওয়ারেন্ট থাকলেও মিলন গ্রেফতার হননি। শনিবার র‌্যাব তাকে গ্রেফতার করে বোয়ালিয়া মডেল থানায় হস্তÍান্তর করে। তার বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা চলমান রয়েছে। নগরের বোয়ালিয়া মডেল থানার কর্তব্যরত অফিসার জানান, ওয়ারেন্ট থাকায় র‌্যাব-৫ মিলনকে আটক করে বোয়ালিয়া থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে। আইন অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন