সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯, ০৯ মুহাররম ১৪৪৪ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

কী নির্মম! বান্ধবীকে হত্যা করে পেট চিরে নবজাতক চুরি

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ নভেম্বর, ২০২১, ৩:০১ পিএম

নৃশংস এ ঘটনাটি ব্রাজিলের দক্ষিণাঞ্চলীয় সান্তা ক্যাটারিনা প্রদেশের ক্যানেলিনহা শহরে ঘটেছে। নিউইয়র্ক পোস্টের প্রতিবেদনে জানা গেছে, ২৪ বছর বয়সী ফ্ল্যাভিয়া গোডিনহো মাফরার সঙ্গে বন্ধুত্বের সম্পর্ক গড়ে তুলেন ২৭ বছর বয়সী ঘাতক রোজালবা। ২০২০ সালের ২৭ আগস্টে মাফরাকে ক্যানেলিনহা শহরের এক প্রান্তে একটি পুরাকীর্তির স্থানে বেড়াতে যেতে প্রলুব্ধ করেন রোজালবা। সেখানে যাওয়ার পর একটি নির্জন স্থানে মাফরার মাথায় ইট দিয়ে একের পর এক আঘাতে জখম করেন রোজালবা। এতে মাফরা নিস্তেজ হয়ে পড়লে একটি ধারালো ছুরি দিয়ে তার পেট চিরে ফেলেন রোজালবা। পরে পেটের ভেতর থেকে ৩৬ সপ্তাহের নবজাতকটিকে বের করে এনে পালিয়ে যান রোজালবা। পালানোর সময় বান্ধবী মাফরার মরদেহটি একটি চুল্লির ভেতর লুকিয়ে রাখেন ঘাতক বান্ধবী।
এ ঘটনার পর রোজালবা তার প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে নবজাতকটির প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য একটি হাসপাতালে যায়। এর কিছুদিন আগেই প্রেমিককে রোজালবা জানান, তিনি সন্তান সম্ভবা। তাই প্রেমিকও নবজাতকটিকে নিজের সন্তান ভেবেছিলেন।
হাসপাতালে গিয়ে কর্মীদের কাছে রোজালবা দাবি করেন, একটু আগেই তিনি নবজাতকটির জন্ম দিয়েছেন। এখন নবজাতকটিকে প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা দেওয়ার প্রয়োজন। কিন্তু হাসপাতালের কর্মীদের কাছে রোজালবার আচরণ ও শারীরিক সামর্থ্য দেখে সন্দেহ হয় । তাই ঘটনাটি খতিয়ে দেখতে পুলিশে খবর দেয় তারা।
হত্যাকাণ্ড ও নবজাতকটি চুরির ঘটনায় রোজালবা মারিয়া গ্রিমের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ওই নারীকে ৫৭ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন ব্রাজিলের একটি আদালত। এ ঘটনার সঙ্গে কোনো যোগসূত্র না থাকায় সন্দেহভাজন হিসেবে গ্রেফতার হওয়া রোজালবার প্রেমিককে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে।
১৫ ঘণ্টার শুনানিতে আদালতকে রোজালবা জানান, নিহত মাফরা স্থানীয় একটি স্কুলের শিক্ষিকা ছিলেন। মাফরাকে হত্যা পরিকল্পনাই শুধু নয়, হত্যার পর নবজাতকটিকে কীভাবে পেট থেকে বের করে আনবেন তা নিয়েও বিস্তর পড়াশোনা করেছিলেন। মায়ের গর্ভে বাচ্চাটি পরিণত হতে অপেক্ষা করছিলেন রোজালবা। সূত্র : নিউইয়র্ক পোস্ট

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন