বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ০৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

২০২২ সালেই দেশে গণতন্ত্র ফিরবে

বিদায় ঘণ্টা বেজে গেছে : ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০০ এএম

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারের বিদায় ঘণ্টা বেজে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, নতুন বছর ২০২২ সালেই দেশে গণতন্ত্র ফিরে আসবে। আশা করছি, ২০২২ সালে জনগণ মুক্ত হবে, গণতন্ত্র মুক্ত হবে এবং দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া মুক্ত পাবেন। দেশে অবশ্যই আমরা একটা জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হবো। গতকাল শনিবার ছাত্রদলের দুটি পৃথক কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ৪৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকালে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে মির্জা ফখরুল বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া হাসপাতালে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে লড়াই করছেন। ছাত্রদলের নেতৃবৃন্দ জিয়াউর রহমান সাহেবের মাজারে জিয়ারত করে তারা শপথ নিয়েছে যে, দেশনেত্রীর মুক্তি ও তার সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করবার জন্য দেশের বাইরে পাঠানো এবং গণতন্ত্রকে পুনরুদ্ধার করার চলমান আন্দোলন আরো বেগবান করবে। ২০২২ সালে তা সফল হবে ইনশাল্লাহ।

এক প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, তাকে যে বন্দি করে রাখা হয়েছে এবং তাকে সে সাজা দেয়া হয়েছে এটা সম্পূর্ণ রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক। আজকে তাকে যে চিকিৎসার সুযোগ দেয়া হচ্ছে না সেটা কোনো আইনি ব্যাপার নয়, এটা প্রতিহিংসার বিষয়।

তিনি বলেন, আজকে শেখ হাসিনা তার ব্যক্তিগত প্রতিহিংসার কারণেই এই ধরনের একটা অবস্থা তৈরি করে রেখেছেন যাতে করে দেশনেত্রীকে কোনো চিকিৎসার সুযোগ না পান। তিনি যেন ধীরে ধীরে মৃত্যুর দিকে চলে যান-এটাই তারা চাচ্ছে। তবে আমরা স্পষ্ট করে বলে দিতে চাই, এর দায়-দায়িত্ব সবই সরকারকেই বহন করতে হবে এবং এর পরিণতি যদি খারাপ হয় তারও দায় তাদেরকে নিতে হবে।

রাজনৈতিক দলগুলোর সাথে প্রেসিডেন্টের চলমান সংলাপকে অর্থহীন উল্লেখ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমরা এই সংলাপকে অর্থহীন মনে করছি। বর্তমান রাজনৈতিক সংকট, এই সংকটটা কোনো নির্বাচন কমিশন গঠনের সংকট নয় বা আইন তৈরি করার সংকট নয়। এই প্রধান যে সংকট তা হচ্ছে নির্বাচনকালীন সময়ে কোন রকম সরকার থাকবে? সেটাই হচ্ছে প্রধান সংকট। যদি আওয়ামী লীগ সরকার থাকে তাহলে সেই নির্বাচনের অর্থই হতে পারে না। অবশ্যই আমরা বলেছি নির্বাচনকালীন সময়ে একটা নিরপেক্ষ নির্দলীয় সরকার থাকতে হবে যারা নিরপেক্ষভাবে নির্বাচন কমিশন গঠন করে তাদের পরিচালনায় নির্বাচন অনুষ্ঠান করবে। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যমলের নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় সংসদের নেতৃবৃন্দ।

পরবর্তীতে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দুপুরে মহানগর নাট্যমঞ্চে ছাত্রদল আয়োজিত আলোচনা সভায় বিএনপি মহাসচিব বলেন, সরকারের বিদায় ঘন্টা বেজে গেছে। আমেরিকা র‌্যাবের ছয় কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। তারা আর বেশিদিন ক্ষমতায় থাকতে পারবে না। তিনি বলেন, শোনা যাচ্ছে-সরকারের অনেক মন্ত্রী-এমপি পাসপোর্ট-ভিসা প্রস্তুত করে রেখেছেন। খবর খারাপ দেখলেই বিদেশে চলে যাবেন। আমরা বলব, দেরি করছেন কেন, এখুনি বিদেশে চলে গিয়ে দেশের মানুষকে মুক্তি দিন। ক্ষমতাসীনদের উদ্দেশে বিএনপি মহাসচিব বলেন, গুরুতর অসুস্থ দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে অবিলম্বে মুক্তি দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করুন। এটা এখন গণদাবি। অন্যথায় আপনারাই বিদেশে চলে যান, দেশের মানুষকে মুক্তি দিন। এ সময় গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে চলমান আন্দোলন সফলে নেতাকর্মীদের বিশেষ করে ছাত্রদলকে ত্যাগ স্বীকারে প্রস্তুত থাকার আহŸান জানান বিএনপি মহাসচিব।

ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামলের সঞ্চালনায় এতে আরও বক্তব্য রাখেন-সাবেক ছাত্রনেতা শামসুজ্জামান দুদু, আসাদুজ্জামান রিপন, আমানউল্লাহ আমান, ফজলুল হক মিলন, মোশাররফ হোসেন, নাজিমউদ্দিন আলম, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, আমিরুল ইসলাম খান আলিম, আব্দুল কাদির ভুইয়া জুয়েল, ছাত্রদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবণ, সিনিয়র যুগ্ম-সম্পাদক আমিনুর রহমান আমিন প্রমুখ।#

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন