বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ০৭ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

শিক্ষাঙ্গন

বর্ণাঢ্য আয়োজনে রাবিতে বিশ্ব সমাজকর্ম দিবস পালিত

রাবি সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৫ মার্চ, ২০২২, ৩:০৫ পিএম

বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে(রাবি) বিশ্ব সমাজকর্ম দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি পালনে নানা উদ্যোগ নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়টির সমাজকর্ম বিভাগ।

এবছরের প্রতিপাদ্য বিষয় নির্ধারণ করা হয়েছে "একটি নতুন ইকো সামাজিক বিশ্ব গড়ে তুলি: কাউকে পিছিয়ে না রেখে''

এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে মঙ্গলবার (১৫ মার্চ) সকাল ১০ টায় দিবসটি উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের মমতাজ উদ্দিন আহমেদ একাডেমিক ভবন থেকে সমাজকর্ম বিভাগ কর্তৃক আয়োজিত একটি র‍্যালি শুরু হয়। র‍্যালিটি ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে বিভাগের গ্যালারি কক্ষে এসে এক আলোচনা সভায় সমবেত হয়।

সমাজকর্ম বিভাগের অধ্যাপক ড. মো: জামিরুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন বিভাগের জেষ্ঠ্য শিক্ষক অধ্যাপক ড. আশরাফুজ্জামান।

এ সময় অধ্যাপক আশরাফুজ্জামান বলেন, সমাজকর্ম হচ্ছে বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিনির্ভর একটি সাহায্যকারী ও সক্ষমকারী পেশা , যা সমস্যাগ্রস্ত ব্যক্তি তথা মানুষকে এমনভাবে সাহায্য করে যাতে মানুষ তার বস্তুগত ও অবস্তুগত সম্পদের সর্বোত্তম ব্যবহারের মাধ্যমে নিজেই নিজেদের সমস্যা সমাধানে সক্ষম হয়ে উঠে ।
তিনি আরো বলেন, সমাজকর্ম ব্যক্তি , দল ও সমষ্টির সম্পদ ও অন্তর্নিহিত শক্তিকে জাগ্রত করে এবং সমস্যা সমাধান প্রক্রিয়ায় তাদের সক্রিয় অংশগ্রহণ নিশ্চিত করে । এছাড়াও আধুনিক শিল্পসমাজের বহুমুখী ও জটিল সমস্যা সমাধানে সমাজকর্মের গুরুত্ব অপরীসীম। এক কথায়, বিজ্ঞানিরা যন্ত্র আবিস্কার করেন আর সমাজকর্মীরা নির্ধারণ করেন এই যন্ত্রটা কোন স্থানে, কোথায়, কখন, কিভাবে কাজে লাগাতে হয়।

এসময় বর্তমান প্রেক্ষাপটে সমাজকর্মের প্রয়োজনীয়তা ও অদূর ভবিষ্যতে এর সম্ভাবনা নিয়ে অন্যান্যদের মধ্যে আলোকপাত করেন সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের সাবেক ডিন ও সমাজকর্ম বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. ফখরুল ইসলাম, বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. রবিউল করিম, অধ্যাপক ড. শরিফুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. তানজিমা জোহরা হাবিব, অধ্যাপক ড. আকতার হোসেন মজুমদার প্রমুখ। অনুষ্ঠানে বিভাগের অন্যান্য শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী সহ প্রায় চার শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, প্রতিবছর মার্চ মাসের তৃতীয় মঙ্গলবার বিশ্বব্যাপী সমাজকর্ম দিবস পালিত হয়ে থাকে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps