শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৮ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

ব্রিজের মাঝে গর্ত ১২ গ্রামের মানুষের দুর্ভোগ চরমে

প্রকাশের সময় : ১৫ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

মো. নজরুল ইসলাম, গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) থেকে

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুর ইউনিয়নের যদুপুর গ্রামে একটি ব্রিজের মাঝে ও এক পাশের রেলিং ভেঙে গেছে। এতে যানবাহন চলাচল নিয়ে ১২টি গ্রামের মানুষ চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে। এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নিতে এলজিইডি কর্তৃপক্ষ চরম উদাসীন। জানা গেছে, বালিয়াকান্দি-মধুখালী সড়কের যদুপুর মোড় থেকে বালিয়াকান্দি সড়কের তেঁতুলিয়া পর্যন্ত এ সড়কটির দৈর্ঘ্য প্রায় সাড়ে ৩ কিলোমিটার। এ সড়কের যদুপুর খালের উপর ১৯৭০ সালে ব্রিজটি নির্মাণ করা হয়। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, সড়কটি দিয়ে ব্রিজের একপাশে আড়কান্দি, বাজার বেতেঙ্গা, মাতলাখালী, চরগুয়াদাহ, পাটুরিয়া, বারুগ্রাম, স্বর্পবেতেঙ্গা এবং অপর পাশে তেঁতুলিয়া, ভররামদিয়া, খোর্দ্দরামদিয়া, কুবদী ও পারকুল গ্রামের মানুষ যাতায়াত করে। তাছাড়া বহরপুর ইউনিয়নসহ জেলা শহরে যাওয়ার জন্য এ এলাকার মানুষ সংযোগ সড়ক হিসাবে ব্যবহার করে। এতে করে দূরত্ব কম হওয়ায় যাতায়াতের সময় ও টাকা সাশ্রয় হয়। কিন্তু ব্রিজটির মাঝখানে বড় গর্ত ও পাশের রেলিং ভেঙে যাওয়ায় দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে। কয়েকদিন পরপর রাতে সেতুতে দুঘর্টনা ঘটে। বেশি দুঘর্টনায় পড়েন মোটরসাইকেল চালকরা। ব্রিজটি দিয়ে ভ্যান, ইজিবাইক চলাচলের জন্য বাড়ি থেকে তক্তা এনে পেতে পাড় হতে হয়। দ্রুত মেরামতের প্রয়োজনীয়তা দেখা দিলেও কোন কাজের কাজ হচ্ছে না। সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে, ব্রিটির মাঝখানে বড় একটি গর্ত। রডের উপর খড়কুটো দিয়ে বাঁশের খুঁটিতে একটি লাল নিশানা টানানো হয়েছে। ব্রিজটির পাশের রেলিংও ভাঙা। বহরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রেজাউল করিম জানান, সড়কটি দিয়ে প্রতিদিন কয়েকশত মানুষ ও যানবাহন চলাচল করে। কিন্তু অনেকদিন ধরে ব্রিজটির মাঝখানে গর্ত হয়ে রয়েছে। উপজেলা এলজিইডি থেকে ব্রিজটির সংস্কার করার কথা থাকলেও কাজ শুরু হচ্ছে না। চলাচল নির্বিঘœ করতে দ্রুত কাজ করা প্রয়োজন। উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী তপন কুমার সাহা বলেন, ব্রিজটির বেহাল অবস্থার কথা শুনেছি। তবে সংস্কারের বিষয়ে অফিসের পদক্ষেপের কথা জানি না। খোঁজখবর নিয়ে বলতে পারবো। এলজিইডি কর্তৃপক্ষের চরম অবহেলার কারণে এলাকার সাধারণ মানুষ ও যানবাহন চলাচল করতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এলাকাবাসী দ্রুত এ ব্রিজটি সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন