বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯, ০৬ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

ঘর পাচ্ছে না গৃহহীন মুক্তিযোদ্ধা পরিবার

লোহাগাড়া (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৪ এপ্রিল, ২০২২, ১২:০৭ এএম

স্বাধীনতার অর্ধশত বছর পার হলেও মৃত বীর মুক্তিযোদ্ধা হরিরঞ্জনের স্ত্রী ও তার ছেলে-মেয়ে নিজের কোন বাড়ি না থাকায় অন্যজনের পরিত্যক্ত মাটির বাড়িতে এতোদিন থাকতে দিলেও এখন ঐ বাড়িতে আর থাকতে দিচ্ছে না।

সরেজমিনে জানা যায়, য্দ্ধুকালীন কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, মৃত হরিরঞ্জন একজন সাহসী যোদ্ধা ছিলেন। ভারি অস্ত্রগুলো ওনি চালাতেন, কিন্তুু দুর্ভাগ্য তার একটি নিজের বাড়ি নেই। কারণ তার নিজ বাড়ি ছিলো কক্সবাজার জেলার কুতুবদিয়া দ্বীপে। যুদ্ধের আগে দ্বীপের ভাঙনে বাড়িঘর বিলীন হয়ে যাওয়ার পর চট্টগ্রাম লোহাগাড়া থানার আমিরাবাদ ইউনিয়নের হাজারবিঘা ৬নং ওয়ার্ড় হিন্দুপাড়া ২ ভাই এসে সামান্য জায়গা খরিদ করলে তাও আবার তার ভাই কৃষ্ণপদ একক নামে খরিদ করে বাড়ি করে বসতি স্থাপন করে। কিন্তুু দু’ভাই একসাথে থাকলেও পরবর্তীতে বিয়ে-সাদী করার পর সংসার প্রসারিত হওয়ার কারণে হরিরঞ্জনকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়া হয়েছিল। মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজ আরো বলেন, সরকার অসহায় মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বরাদ্দকৃত যে ঘর দিচ্ছে তার জন্য অনেক চেষ্টা করেছি, কিন্তুু নিজ খতিয়ানভুক্ত কোন জায়গা জমিন না থাকায় তা সম্ভব হচ্ছে না। মৃত মুক্তিযোদ্ধা হরিরঞ্জনের স্ত্রী বাসনা বলেন, আমার স্বামী যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছেন, কিন্তুু আমাদের থাকার স্থায়ী কোন ঘর নাই। সরকার মুক্তিযোদ্ধাদের মাসিক ভাতা দিয়েছেন, তা না হলে হয়তো আমাদেরকে অর্ধাহারে অনাহারে থাকতে হতো। এ বিষয়ে লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার আহসান হাবিব জিতু বলেন, আপনার মাধ্যমে বিষয়টা জেনেছি। যদি তাদের নিজস্ব কোন যায়গা না তাকে সে বিষয়ে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে লিখিত আকারে জানাবো। মন্ত্রণালয় যদি খাস জমির বন্দোবস্থ করে বাড়ি নির্মাণ করে দেয়ার নির্দেশ দেয়, তাহলে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বাড়ি নির্মাণ করে দেয়া হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps