শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২, ০৪ ভাদ্র ১৪২৯, ২০ মুহাররম ১৪৪৪

সারা বাংলার খবর

কুড়িগ্রামে ভাগ্নের কিল ঘুষিতে মামা নিহত : আটক-২

কুড়িগ্রাম জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৪ জুন, ২০২২, ৭:১১ পিএম

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে জমির সীমানা নিয়ে বিরোধে ভাগ্নের কিলঘুষিতে মারা গেছেন মামা মজির উল্যাহ (৬২)। বৃহস্পতিবার বিকেলে এ ঘটনার পর মামলা হলে শুক্রবার সকালে ভাগ্নে আসাদুল ইসলাম (৪৩) ও তার পূত্র আল আমিন (২১) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার সকালে মামা মজির উল্যাহর মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য এবং দুপুরে গ্রেফতারকৃত আসাদুল ও আল আমিনকে পুলিশ বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে কুড়িগ্রাম জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।

মামলার সূত্রে জানা যায়, মজির উল্লাহ ও তার প্রতিবেশী আসাদুল ইসলাম দুর সম্পর্কের মামা-ভাগ্নে। দুজনের বাড়ী সংলগ্ন একটি জমির সীমানা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে দুজনের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। ঘটনার দিন বৃহস্পতিবার বিকালে ভাগ্নে আসাদুল ইসলামের জমির সীমনার মধ্যে অবস্থিত একটি কঁাঠাল গাছের ডাল মামা মজির উল্লাহর রান্না ঘরের চালের উপর পরে। সেটি নিয়ে তাদের মধ্যে বাক-বিতন্ডার সৃষ্টি হয়। এরই এক পর্যায়ে উত্তেজিত হয়ে আসাদুল ও তার ছেলে আল-আমিন মামা মজির উল্লাহকে কিল ঘুষি দিতে থাকে। এতে তিনি আঘাত সহ্য করতে না পেরে মাটিতে লুটিয়ে পরেন। সেখানেই তার মৃত্যু হয়।
পরে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশের সুরৎহাল শেষে মরদেহ উদ্ধার করে নাগেশ্বরী থানায় নিয়ে যায়। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে নিহতের ছেলে আহসান হাবিব বাদী হয়ে আসাদুল, তার মা আছমা (৫৯), স্ত্রী আর্জিনা খাতুন (৩৪) ও ছেলে আল-আমিনকে আসামী করে নাগেশ্বরী থানায় একটি এজাহার দায়ের করে।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নাগেশ্বরী থানার ওসি (তদন্ত) তামবীরুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। পরে পরিবার থেকে মামলা হলে অভিযুক্ত আসাদুল ও আল-আমিনকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। শুক্রবার মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য এবং গ্রেফতারকৃত আসামীদের কুড়িগ্রাম আদালতে নেয়া হয়।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন