রোববার ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশে ভোলায় খুন হয়েছে রহিম : রিজভী

লোডশেডিং ও জ্বালানি খাতে অব্যবস্থাপনার প্রতিবাদে জেলায় জেলায় বিএনপির বিক্ষোভ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১ আগস্ট, ২০২২, ১২:০৪ এএম

ভোলায় স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা আব্দুর রহিমকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশে খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, জনগণ ও বিএনপির নেতাকর্মীরা যাতে আন্দোলনমুখী না হয় সেজন্য ভয় পাইয়ে দিতেই পরিকল্পিতভাবে নিরাপত্তা বাহিনীকে দিয়ে এ হত্যাকাণ্ড ঘটানো হয়েছে। গতকাল রোববার রাজবাড়ী রোডস্থ দলীয় কার্যালয়ের প্রাঙ্গণে গাজীপুর জেলা বিএনপি আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সারাদেশে বিদ্যুতের ভয়াবহ লোডশেডিং ও জ¦ালানী খাতে সীমাহীন দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনার প্রতিবাদে সারাদেশের জেলায় জেলায় বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে বিএনপি

গাজীপুর জেলা বিএনপি আয়োজিত সমাবেশে রুহুল কবির রিজভী বলেন, সরকার নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের নামে হাজার হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার করে এই লোডশেডিং বাড়িয়েছে। সরকার কয়েকদিন আগেও বুলি আওরিয়ে ছিলেন লোডশেডিং যাদুঘরে পাঠিয়েছে। আসলে সবই ফাঁকা বুলি, জনগণের সাথে ধোঁকাবাজি। তিনি বলেন, সরকার সর্বখাতে হাজার হাজার কোটি টাকা লোটপাট করে দেশে ভয়ংকর এক নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি তৈরি করেছে।

গাজীপুর জেলা বিএনপি’র সভাপতি ফজলুল হক মিলনের সভাপতিত্বে এবং সাখাওয়াত হোসেন সবুজের সঞ্চালনায় এসময় আরো বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা বক্তব্য রাখেন।
একই কর্মসূচির অংশ হিসেবে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ঢাকা জেলা বিএনপি আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, তারা (আওয়ামী লীগ) ক্ষমতায় থেকে ভোট চুরি করেছে, ডাকাতি করেছে। এবার তারা ইভিএমের নামে লুট করতে চায়। আমরা স্পষ্ট করে বলে দিতে চাই, কিছুতেই দেওয়া হবে না, কোনো মতেই নয়। দেশটা আমরা লিজ দেই নাই কাউকে। দেশ আমাদের, দেশকে আমরা বাঁচাব ইনশাল্লাহ।

তিনি বলেন, আজকে দেশের মানুষ কষ্টে আছে। বিদ্যুৎ নেই। ঢাকায় যারা আছেন কিছুটা ভালো আছেন। কিন্তু গ্রামের মানুষ আরও কষ্টে আছে। সারা দিনে গ্রামে ৪/৫ ঘণ্টার বেশি বিদ্যুৎ থাকে না। কৃষকরা যারা পাম্প দিয়ে ক্ষেতে চাষ করে তাদের পাম্প চলা বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। ক্ষেতে যদি পানি না দিতে পারে তাহলে ফসল উৎপাদন হবে না। কদিন পরে যখন ফসল একটু বড় হবে তখন সারও লাগবে। এই সরকার বিদ্যুতের অভাব দেখিয়ে, জ্বালানি তেলের অভাব দেখিয়ে সার কারখানা বন্ধ করে দিয়েছে। মানুষ সার কোথায় পাবে? কীভাবে দেশের কৃষির উন্নয়ন হবে, আমার কোটি কোটি কৃষক বাঁচবে কীভাবে? আমাদের পুরোপুরিভাবে পরনির্ভরশীল করার চেষ্টা হচ্ছে।

নজরুল ইসলাম বলেন, বিএনপি জনগণের পক্ষের দল। জনগণের যে আজকে কষ্ট, আজকে তাদের যে দুর্গতি, তাদের যে সংকট এই সংকটে তাদের পাশে থেকে তাদের সাথে নিয়ে মোকাবিলার জন্য এগিয়ে যেতে হবে। আগামী দিনের তরুণ প্রজন্মের কাছে অনুরোধ, এই দেশটাকে যদি বসবাসের যোগ্য করতে চান, যদি দুর্নীতি-অনাচার মুক্ত করতে চান, যদি স্থায়ী সমৃদ্ধি অর্জন করতে চান তাহলে এই ফাঁকা বেলুনের মতো উন্নয়ন নয়, স্থায়ী উন্নয়ন-টেকসই উন্নয়ন। তাহলে এই গণবিরোধী অনির্বাচিত সরকারের পতন ঘটাতে হবে, নির্বাচিত সরকার প্রতিষ্ঠিত করতে হবে।

কেরানীগঞ্জ, ধামরাই, সাভার, নবাবাগঞ্জ ও দোহার থানা থেকে নেতাকর্মীরা হাত পাখা ও হারিকেন হাতে নিয়ে সমাবেশে স্লোগান দিয়ে বিক্ষোভ করেন। জেলা বিএনপির সভাপতি দেওয়ান মো. সালাউদ্দিনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আবু আশফাকের পরিচালনায় সমাবেশে বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য নিপুণ রায় চৌধুরীসহ জেলার নেতারা বক্তব্য রাখেন।
বগুড়া ব্যুরো জানায়, শহরের নবাববাড়ী রোডে বগুড়া জেলা বিএনপি আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি আমান উল্লাহ আমান বলেছেন, বর্তমান সরকার সকল ক্ষেত্রে ব্যর্থ হয়েছে। তাদের কথার সাথে কাজের কোন মিল নেই। ব্যর্থতার কারণে তারা পুলিশ বাহিনীকে মাঠের নামিয়ে ভোলায় গুলি করে বিএনপি কর্মী আব্দুর রহিমকে হত্যা করেছে।

জেলা বিএনপির আহবায়ক ও পৌর সভার মেয়র রেজাউল করিম বাদশার সভাপতিত্বে সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন- চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট একেএম মাহবুবর রহমান, জেলা বিএনপির একেএম সাইফুল ইসলাম টুলু ও ফজলুল বারী তালুকদার বেলাল, সাবেক এমপি কাজী রফিকুল ইসলাম, জয়নাল আবেদীন চাঁন, আলী আজগর তালুকদার হেনা, লাভলী রহমান প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

নোয়াখালী ব্যুরো জানায়, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টু বলেছেন, অনির্বাচিত, দখলদার, অবৈধ, দুর্নীতিবাজ সরকারকে আর সময় দেওয়া উচিত নয়। কারণ যদি আমরা আর সময় দেই, তাহলে তারা পুরো বাংলাদেশকে গিলে ফেলবে এবং পঙ্গু করে দিবে অথবা বিদেশের কাছে বিক্রি করে দিবে। গতকাল নোয়াখালী প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণে বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, দাবি আদায়ের জন্য আমরা মাঠে ঘাটে রাস্তায় যেখানেই পারি প্রতিবাদ করব। এ সরকারকে পতন ঘটনাতে বাধ্য করব। নোয়াখালী জেলা বিএনপির সভাপতি গোলাম হায়দার বিএসসির সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আবদুর রহমানের সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য রাখেন, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মো.শাহজাহান, জেলা যুবদলের নুরুল আমিন খান, সদর বিএনপির জসিম উদ্দিন, কোম্পানীগঞ্জ বিএনপির মাহমুদুর রহমান রিপন প্রমুখ।

ঝালকাঠি জেলা সংবাদদাতা জানান, সারাদেশে লোডশেডিং ও জ্বালানি খাতে অব্যবস্থাপনার প্রতিবাদে ঝালকাঠিতে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশে আওয়ামী লীগ হামলায় অন্তত ১০ নেতাকর্মী আহত হয়েছে। গতকাল জেলা আইনজীবী সমিতির সামনে এ ঘটনা ঘটে। বিএনপির নেতৃবৃন্দ জানান, সকাল ১১টায় জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশে অংশ নিতে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির গণ শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যক্ষ সেলিম ভূইয়া উপস্থিত হয়। তারা আইনজীবী সমিতির সামনে দিয়ে দলীয় কার্যালয়ের দিকে যাওয়ার পথে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা লাঠিসোটা নিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালায়। এতে জেলা বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের অন্তত ১০ নেতাকর্মী আহত হয়। ফলে পণ্ড হয়ে যায় বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ।

নাটোর জেলা সংবাদদাতা জানান, শহরের আলাইপুরের জেলা বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয় থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করার চেষ্টা করলে পুলিশ বাঁধা দেয়। পুলিশি বাঁধার মুখে সেখানেই নেতাকর্মীরা সমাবেশ করে। জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আমিনুল হকের সভাপতিত্বে ও নাটোর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব রহিম নেওয়াজের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির বন ও পরিবেশ বিষয়ক স¤পাদক মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল। সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির শহিদুল ইসলাম বাচ্চু, সাইফুল ইসলাম আফতাব, জেলা যুবদলের এ হাই তালুকদার ডালিম, ছাত্রদলের কামরুল ইসলাম প্রমুখ।

স্টাফ রিপোর্টার, মাগুরা থেকে জানান, জেলা বিএনপির ইসলামপুর পাড়া কার্যালয়ের সামনে এক প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক প্রফেসর ড. এবিএম ওবায়দুল ইসলাম। প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ সমাবেশে মাগুরা জেলা, মাগুরা সদর, মাগুরা পৌরসভা, মোহাম্মদপুর, শালিখা ও শ্রীপুর থানা এবং দক্ষিণ মাগুরা ইউনিটের বিএনপি ও তার সকল অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন জেলা বিএনপির আহবায়ক আলী আহম্মদ।

মানিকগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা জানান. বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ বলেছেন, আগামীতে বাংলাদেশে হাসিনার অধীন কোন নির্বাচন হবে না। প্রধান অতিথি এসপি, ডিসি, পুলিশের উদ্দেশ্যে বলেন, এই অবৈধ সরকারের পক্ষ না নিয়ে জনগণের পক্ষে অবস্থান নিন। জেলা শহরের জেলা বিএনপি কার্যালয়ে সহ-সভাপতি অ্যাভোকেট আজাদ হোসেন খানের সভাপতিত্বে এবং নির্বাহী সদস্য গোলাম কিবরিয়া সাঈদের পরিচালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় ও জেলার নেতৃবৃন্দ।

পঞ্চগড় জেলা সংবাদদাতা জানান, পঞ্চগড়ে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বোদা, দেবীগঞ্জ উপজেলা ও পঞ্চগড় পৌর শাখার উদ্যোগে সারাদেশে লোডশেডিং ও জ্বালানি খাতে অব্যবস্থাপনার প্রতিবাদে রোববার বেলা ১২টায় দলীয় কার্যালয়ের সামনে এই সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

রাজবাড়ী জেলা সংবাদদাতা জানান, জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সামনে সমাবেশে সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ প্রধান অতিথি ছিলেন। জেলা বিএনপির আহবায়ক এ্যাড. লিয়াকত আলী বাবুর সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন- কেন্দ্রীয় নেতা সেলিমুজ্জামান সেলিম। জেলা বিএনপির হারুন অর রশিদ হারুন, এ্যাড. কামরুল আলম, রেজাউল করিম পিন্টু প্রমুখ।
শেরপুর জেলা সংবাদদাতা জানান, দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশে জেলা বিএনপির সভাপতি মাহমুদুল হক রুবেলের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় নেতা মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল। জেলা বিএনপির মো: হযরত আলী, সিরাজুল হক, ফজলুল হক লাভলু, এসএম শহিদুল ইসলাম ভিপি, আওয়াল চৌধুরী, আতাহারুল ইসলাম, আক্রামুজ্জামান রাহাত প্রমুখ।

পটুয়াখালী জেলা সংবাদদাতা জানান, পটুয়াখালীর কলেজ রোড বনানী মোড়ে বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয় সামনে জেলা বিএনপির আহবায়ক আব্দুর রশিদ চুন্নু মিয়ার সভাপতিত্বে ও সদস্য মো. মিজানুর রহমানের সঞ্চালনায় প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির ছিলেন চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা এ্যাড. সৈয়দ মো. শামছুল আলম। বক্তব্য রাখেন- জেলা বিএনপি স্নেহংশু সরকার কুট্টি, পৌর বিএনপির মো. কামাল হোসেন, জেলা যুবদলের মনিরুল ইসলাম লিটন।

কুড়িগ্রাম জেলা সংবাদদাতা জানান, গতকাল মোক্তারপাড়াস্থ দলীয় কার্যালয় থেকে নেতাকর্মীরা মিছিল বের করলে পুলিশ বাঁধা দেয়। পরে জেলা বিএনপি কার্যালয়ে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির আলতাফ হোসেন, আশরাফুল হক রুবেল প্রমুখ।

নওগাঁ জেলা সংবাদদাতা জানান, নওগাঁ বিএনপি আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন জেলা বিএনপি’র আহবায়ক আবু বক্কর সিদ্দিক নান্নু। প্রধান অতিথি ছিলেন কৃষক দলের সহ-সভাপতি ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু। জেলা বিএনপি’র জাহিদুল ইসলাম ধলু, শহিদুল ইসলাম টুকু, নাছির উদ্দিন আহমেদ, রেজাউল ইসলাম রেজু, আমিনুল হক বেলাল, মামুনুর রশিদ রিপন এবং শফিউল আযম ভিপি রানা প্রমুখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন