রোববার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ১৭ আশ্বিন ১৪২৯, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

ভাঙনে বিলীন হচ্ছে ঘরবাড়ি ও কৃষিজমি

ফেনী নদী থেকে বালু উত্তোলন : হুমকির মুখে আশ্রয়ণ প্রকল্প

ছাগলনাইয়া (ফেনী) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৮ আগস্ট, ২০২২, ১২:০৭ এএম

ফেনী নদীর ভাঙন কবলিত ছাগলনাইয়া উপজেলার শুভপুর ইউনিয়নের জয়পুর-সোনাপুর গ্রাম ও তিলকের চর এলাকায় অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের ফলে বিলীন হচ্ছে ঘরবাড়ি-কৃষিজমি। হুমকির মুখে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্প। এ ব্যাপারে এলাকাবাসী জেলা প্রশাসকসহ বিভিন্ন দপ্তরে বারবার লিখিত অভিযোগ দিয়েও কোন ফল পায়নি। নিরুপায় হয়ে এলাকাবাসী মাঝে মাঝে ঐক্যবদ্ধ হয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের প্রতিবাদে ফেনী নদীর তীরে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে এবং লাঠি-সোটা নিয়ে বালু দস্যু দলকে ধাওয়া করে। গ্রামবাসীর বিক্ষোভের মুখে বালু উত্তোলন বন্ধ করে কিছু সময়ের জন্য পালিয়ে গেলেও পরবর্তীতে শক্তি সঞ্চয় করে অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে পুনরায় হানা দেয় মিরসরাই এলাকার বালুদস্যু সন্ত্রাসীরা। কিছুদিন পূর্বে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন কাজে ব্যবহৃত একটি ড্রেজার মেশিন ও একটি বালু ভর্তি বোট আটক করে পুলিশের নিকট হস্তান্তর করেন স্থানীয়রা। এলাকাবাসী জানান, মিরসরাই এলাকার কামরুল ও রাসেল এবং নিজকুঞ্জরার হারুনের নেতৃত্বে একটি অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী গ্রুপ দীর্ঘদিন ধরে কয়েকটি ড্রেজার মেশিন ও বালু বহনকারী ইঞ্জিন চালিত নৌকার সাহায্যে ভাঙন কবলিত ছাগলনাইয়া উপজেলার শুভপুর ইউনিয়নের জয়পুর-সোনাপুর গ্রাম ও তিলকের চরএলাকায় তীর ও চর কেটে মাটি ও বালু নিয়ে যাচ্ছে। ফলে ফেনী নদীতে বিলীন হচ্ছে বহু ঘরবাড়ি-কৃষিজমি, হুমকির মুখে রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর মুজিববর্ষের উপহার গৃহহীন মানুষদের আবাসস্থল আশ্রয়ণ প্রকল্প। আশ্রয়ণ প্রকল্পের বাসিন্দা জসিম উদ্দিন, অহিদের রহমান, আমির হোসেন, ফিরোজ, মোহাম্মদ আলী, রফিক, জোসনা ও সাহারা খাতুন অভিযোগ করে বলেন, অবৈধভাবে ফেনী নদীর তীর ও চরকাটা অব্যাহত থাকলে খুব দ্রুত আশ্রয়ণ প্রকল্প নদীতে বিলীন হয়ে যাবে। আমরা আবার গৃহহীন হয়ে যাব। ওরা অস্ত্রধারী তাই ভয়ে আমরা কিছু বলতে সাহস পাইনা। স্থানীয় ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেন পলাশ বলেন, বালু সন্ত্রাসীদের অত্যাচারে আমরা অতিষ্ট। নিরুপায় হয়ে এলাকার কৃষি জমি ও বাড়িঘর রক্ষা করার জন্য আমরা জীবনবাজি রেখে মাঝে মাঝে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ করি।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মৌমিতা দাশ বলেন, অবৈধভাবে বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ছাগলনাইয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মেজবাউল হায়দার চৌধুরী সোহেল বলেন, ভাঙন কবলিত এবং আশ্রয়ণ প্রকল্প এলাকা হওয়ায় তিলকের চর এলাকাটি ইজারা দেয়নি ফেনীর জেলা প্রশাসন। ইজারাবিহীন অবৈধভাবে যারা বালু উত্তোলন করবে তাদের বিরুদ্ধে কঠিন এবং কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন