শুক্রবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১৪ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দৃষ্টান্ত স্থাপনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছেন সাংবাদিকরা’

ফেনী জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৪ অক্টোবর, ২০২২, ১২:০৮ এএম

ধর্ম যার যার রাষ্ট্র সবার। রিপোর্টার্স ইউনিটির মত প্রতিষ্ঠানগুলো জাতির বিবেক। তারা যখন এটিকে অনুধাবন করে, অসাম্প্রদায়িক চেতনার মূল্যবোধে বিশ্বাস করে, তখন কিন্তু দেশে সাম্প্রদায়িক যে বিষপাপ ছড়ায় তারা কিন্তু অনেকাংশে নিস্কিয় হয়ে যায়। আজকে ফেনী রিপোর্টার্স ইউনিটি দূর্গা উৎসবে চমৎকার একটি ব্যতিক্রম আয়োজন করেছেন, সত্যি আমি আপনাদের প্রতি কতজ্ঞ। গত রোববার রাতে ফেনী রিপোর্টার্স ইউনিটির সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ও সদর আ.লীগের সাধারন সম্পাদক শুসেন চন্দ্র শীল এসব কথা বলেন। তিনি বলেন আমাদের সমাজটি দিন দিন বন্ধুহীন হয়ে যাচ্ছে, একে অপরের প্রতি বিদ্বেষ ছড়ানোর প্রতিযোগিতায় নেমেছে। আমাদের প্রতিটি ক্ষেত্র যেন প্রতিযোগিতায় না গিয়ে প্রতিহিংসার দিকে দাবিত হচ্ছে। আমাদের এই ছোট ছোট জায়গাগুলো থেকে পারস্পরিক সৌহার্দ্যপূণ্য পরিবেশ তৈরি করতে পারবো ততবেশি সমাজে সাম্প্রদায়িক বিষপাপ ছড়ানোর অপশক্তিগুলো হ্রাস পাবে। তিনি আরো বলেন, ফেনী জেলায় ১৪৩টি পূজা মন্ডপে আমরা পূজা অর্চনা করছি। এ জায়গায় আপনাদের সার্বিক সহযোগিতা পাচ্ছি। সহাবস্থান ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির যে দৃষ্টান্ত স্থাপনের ক্ষেত্রে সাংবাদিকরা কিন্তু অগ্রণী ভূমিকা পালন করছেন। তেমনিভাবে পুলিশ সুপার, জেলা প্রশাসন করেছেন। আমাদের সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারীও দলীয় সকল নেতাকর্মীকে নিরাপত্তা নিশ্চিতে কাজ করার নির্দেশ দিয়েছেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান যে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের জন্য মুক্তিযুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছেন তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন এটিকে টিকিয়ে রাখার জন্য। সে জায়গায় আমি মনে করি সার্থক একটি অনুষ্ঠান আপনারা আজকে করেছেন। এটি সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির একটি উজ্জল দৃষ্টান্ত। আমি আপনাদের প্রতি কৃতজ্ঞ। এসময় উপস্থিত ছিলেন, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ ফেনী জেলার সভাপতি শুকদেব নাথ তপন, ফেনী রিপোর্টার্স ইউনিটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ওসমান হারুন মাহমুদ দুলাল। ইউনিটির বর্তমান সভাপতি মো. শাহাদাত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক দিদারুল আলম, সহ-সভাপতি ইসমাইল হোসেন সিরাজীসহ ইউনিটিতে কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন