সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৩ মাঘ ১৪২৯, ১৪ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

অভ্যন্তরীণ

গ্রামীণ সড়কে দুর্ঘটনার ফাঁদ

দেওয়ানগঞ্জে ব্রিজের মাঝে ধস

মো. শামছুল হুদা রতন, দেওয়ানগঞ্জ (জামালপুর) থেকে | প্রকাশের সময় : ২৮ নভেম্বর, ২০২২, ১২:০০ এএম

 

দেওয়ানগঞ্জ হাতিভাঙ্গা ইউনিয়নের সরকারপাড়া গ্রামীণ সড়কে একটি ব্রিজের মাঝের অংশ ধসে পড়েছে। প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা। বড় অঘটনের শঙ্কায় জনমনে বেড়েছে আতঙ্ক।
জনগুরুত্বপূর্ণ এই সড়কটি দিয়ে দেওয়ানগঞ্জ, বকশিগঞ্জ, রৌমারি, রাজিবপুর উপজেলার হাজার হাজার মানুষের চলাচল। কৃষকের উৎপাদিত ফসল বাণিজ্যিকভাবে বাস, ট্রাক, পিকাপভ্যানে দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করা হয়। এটি ব্যস্ত একটি গ্রামীণ সড়ক। প্রায় ছয় মাস আগে ব্রিজটির মাঝখানে ধসে পড়েছে। যান চালকরা রাস্তায় দুই লেন ব্যবহার করে ব্রিজটিতে এসে গাড়ির গতি কমিয়ে এক লেন ব্যবহার করে। কিন্তু শীতের কুয়াশায় রাতে দূর থেকে ভাঙা অংশটুকু চালকদের চোখে পড়ে না। কাছাকাছি এসে দৃষ্টিগোচর হয়। তখন গাড়ির গতি নিয়ন্ত্রণ করা অসম্ভব হয়ে পড়ে। ফলে ঘটে দুর্ঘটনা। এভাবেই প্রতিরাতে ব্রিজটির ওপর হালকা, ভারী যানবাহনের দু-চারটি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটছে।
স্থানীয় বাসিন্দা মাহাবুব ও মো. মমিন জানায়, ২০০৮ সালে ব্রিজটি নির্মাণ করা হয়েছে। সিডিউল মোতাবেক নির্মাণ না হওয়াই মাত্র ১৪ বছরেই ব্রিজটি ধসে পড়তে শুরু করেছে। এবার এই ব্রিজটি মেরামতের সময় এলজিইডির প্রকৌশলীদের উপস্থিতির মাধ্যমে সঠিক তদন্ত আশা করছি। যাতে মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার আগেই ব্রিজটি ভেঙে না পরে। এই ব্রিজটি ভেঙে গেলে বাণিজ্যিকভাবে অনেক ক্ষতি হবে চার উপজেলার ব্যাবসায়ী, কৃষক ও সাধারণ মানুষ।
হাতিভাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ জানান, ব্রিজটির মাঝখানে ধসে পড়েছে। প্রায়ই সড়ক দুর্ঘটনার কথা শুনি। বর্তমানে ব্রিজটি সম্পূর্ণ ঝুঁকিতে। জনদুর্ভোগের বিষয়টি উপজেলা কর্তৃপক্ষকে কয়েকবার জানিয়েছি। সংস্কারের অপেক্ষায় আছি। দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী মো. তোফায়েল আহমেদ দৈনিক ইনকিলাবকে জানান, ব্রিজের মাঝে ভাঙার বিষয়টি অবগত হয়েছি। ব্রিজটি সংস্কারের আবেদন অনুমোদনের জন্য সংশ্লিষ্ট দফতরে পাঠানো হয়েছে। আশা করছি দ্রুত ব্রিজটি মেরামত করা হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন