শনিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯, ০৫ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

অভ্যন্তরীণ

তিতাসে শিশুদের ঝগড়াকে কেন্দ্র করে মারামারি : ৩ নারী আহত

তিতাস (কুমিল্লা) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩০ নভেম্বর, ২০২২, ১২:০০ এএম

কুমিল্লার তিতাস উপজেলায় শিশুদের ঝগড়াকে কেন্দ্র করে দুই নারীর মধ্যে চুলোচুলির ঘটনায় তিন নারী আহত হয়েছে। গত সোমবার রাত প্রায় ৮টায় উপজেলার বন্দরামপুর গ্রামের মোহর সরকার ধন মিয়ার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের উদ্ধার করে তিতাস উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক শামীমা আক্তার শেফালিকে (৩৫) উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করেন এবং জোসনা আক্তারকে (৪৫) ভর্তি করে নেন। অপর আহত ফারজানা আক্তার (৩৩) প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে তিনি বাড়ি চলে যান।
আহত শেফালির ভাসুর হালিম মিয়া বলেন, আমার ছোট ভাইয়ের স্ত্রী শামীমা আক্তার শেফালি তার ছেলে শাহাদত (৮) কে গ্রামের মাদরাসা থেকে বাড়ি নিয়ে আসার পথে প্রতিপক্ষ ধন মিয়ার বাড়ির সামনে এলে আগে থেকে ওৎ পতে থাকা ধন মিয়া ও তার স্ত্রী জোসনা বেগম, ছেলে ফয়সাল এবং মেয়ে ফারজানা মিলে শেফালিকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। এখন সে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
অপরদিকে মোহর সরকার ধন মিয়া বলেন, আমার স্ত্রী জোসনা বেগম (৪৫) কড়িকান্দি ইউনিয়নের ৪, ৫ ও ৬নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত সদস্য। আমার নাতি সাইফ (৮) ও শেফালির ছেলে শাহাদত (৭) একই মাদরাসায় পড়ে। তাদের দু’জনের মধ্যে ঝগড়া হয়েছে, এই নিয়ে আমার স্ত্রী ও মেয়েকে শেফালি টচলাইট দিয়ে মাথায় আঘাত করে রক্তাক্ত জখম করে। এসময় আমি বাড়িতে ছিলাম না।
তিতাস উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডা. মাসুদ করিম বলেন, গত সোমবার রাতে মারামারি করে আহত তিন নারী চিকিৎসা নিতে আসলে শামীমা আক্তারকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা প্রেরণ করা হয়েছে এবং জোসনা বেগমকে এখানে ভর্তি দিয়েছি। ফারজানাকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি চলে গেছে।
তিতাস থানার ওসি সুধীন চন্দ্র দাস বলেন, মারামারির ঘটনায় দু’পক্ষই লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নিবো।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন