রোববার, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ১৫ মাঘ ১৪২৯, ০৬ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

অভ্যন্তরীণ

দীর্ঘদিন ৩টি লোকাল ট্রেন বন্ধ

সিলেট-আখাউড়া রেলপথ

কুলাউড়া (মৌলভীবাজার) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৭ ডিসেম্বর, ২০২২, ১২:০১ এএম

সিলেট-আখাউড়া রেলপথে চলাচলকারী ৪টি লোকাল ট্রেনের মধ্যে ৩টি ট্রেন দীর্ঘদিন থেকে বন্ধ রয়েছে। লোকবলের সংকট দেখিয়ে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ দীর্ঘদিন থেকে এসব লোকাল ট্রেন বন্ধ রেখেছে। বর্তমানে সিলেট-ঢাকা রোডে চলাচলকারী একমাত্র ট্রেন সুরমা মেইল চালু থাকলেও সঠিক সময়ে গন্তব্যস্থলে যাওয়া-আসা না করায় স্থানীয় লোকাল ট্রেনের যাত্রীদের চরম ভোগান্তী পোহাতে হচ্ছে প্রতিদিন।
স্থানীয় যাত্রী ও রেলওয়ে সূত্রে জানা যায়, এক সময় সিলেট-চট্টগ্রাম রোডে চলাচলকারী যাত্রীদের কাছে জনপ্রিয় ট্রেন জালালাবাদ এক্সপ্রেস, সিলেট-আখাউড়া রোডে কুশিয়ারা এক্সপ্রেস এবং এই রোড দিয়ে চলাচলকারী একমাত্র ডেমু ট্রেন নিয়মিু যাত্রী ও মালামাল নিয়ে চলাচল করতো। কিন্তু রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ লোকবলের সংকট ও অন্যান্য অজুহাত দেখিয়ে করোনাকালীণ সময় থেকে জালালাবাদ এক্সপ্রেস, ২০১৯ সাল থেকে ডেমু এবং প্রায় ২ বছর থেকে কুশিয়ারা এক্সপ্রেস লোকাল ট্রেনগুলো এ রোড দিয়ে যাতায়াত একেবারে বন্ধ করে দিয়েছে। ফলে অধিকাংশ লোকাল স্টেশনের যাত্রীরা ট্রেন যাতায়াতে চরম ভোগান্তী পোহাচ্ছেন দীর্ঘদিন থেকে। একমাত্র লোকাল হিসেবে সিলেট-ঢাকাগামী সুরমা মেইল ট্রেন চালু থাকলেও সঠিক সময়ে গন্তব্যস্থলে পৌছাতে না পারায় যাত্রীরা বিকল্প হিসেবে সড়কপথে বাস, সিএনজিসহ অন্যান্য গাড়ির দিকে ঝুঁকে পড়েছে। এতে বিভিন্ন লোকাল স্টেশনে যাত্রী ও মালামাল বহনে সরকার মোটা অংকের রাজস্ব আয় থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এছাড়াও সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন সিলেট অঞ্চলের মৎস্য ও সবজী ব্যবসায়ীরা। চট্টগাম থেকে ইলিশ মাছ আমদানী করা ব্যবসায়ী কুলাউড়ার গিয়াস উদ্দিন ও আয়াজ আলী বলেন, জালালাবাদ ট্রেনটি দীর্ঘদিন থেকে বন্ধ থাকায় সবচেয়ে ক্ষতির সম্মূখীন হচ্ছেন মৎস্য ব্যবসায়ীরা। সাগরের মাছ ও চাঁদপুরী ইলিশ মাছ আগে খুব সহজে চট্টগ্রাম স্টেশনে বুকিং দিয়ে জালালাবাদ ট্রেনে করে ব্যবসায়ীরা যার যার স্টেশনে নিয়ে আসতে পারতো। এতে মালামাল বহনে ব্যয়ও কম হতো। কিন্তু ট্রেন বন্ধ থাকায় দু’গুণ খরচ দিয়ে বিকল্প পথে এসব পরিবহন করায় সময় ও ভোগান্তি বাড়ছে।
সিলেট-আখাউড়া রেলপথে বিভিন্ন লোকাল স্টেশনের যাত্রীদের দাবি যতো দ্রুত সম্ভব পুনরায় এসব ট্রেনগুলো চালু করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবি জানান।
এ ব্যাপারে কুলাউড়া স্টেশন মাস্টার মো. মুহিব উদ্দিন আহমদ জানান, খুব দ্রুত কর্তৃপক্ষ পুরাতন আন্তনগর ট্রেনের বগিগুলো মেরামু করে কুশিয়ারা ট্রেন চালু করা হবে। ডেমু ট্রেনটি যান্ত্রিক ক্রুটির কারনে বন্ধ রয়েছে। তবে জালালাবাদ ট্রেনটি বন্ধ থাকলেও মাছসহ মালামাল বহনকারী কয়েকটি বগি চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী লোকাল ট্রেনের সাথে সংযুক্ত করে দেয়া হয়। পরে আখাউড়া স্টেশনে সেই সব বগিগুলো ওই ট্রেন থেকে বিচ্ছিন্ন করে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা সিলেটগামী সুরমা মেইল ট্রেনের সাথে সংযুক্ত করে সিলেটের ব্যবসায়ীদের আমদানী করা মালামাল এভাবেই আপাততো বহন করা হচ্ছে। ট্রেনগুলো বন্ধ থাকায় অনেক লোকাল স্টেশনের যাত্রীরা যাতায়াতে কিছুটা কষ্ট হচ্ছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন