মঙ্গলবার, ০৯ এপ্রিল ২০২৪, ২৬ চৈত্র ১৪৩০, ২৯ রমজান ১৪৪৫ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বিশ্বের গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রগুলো আ. লীগের বিরুদ্ধে সোচ্চার

বিক্ষোভ সমাবেশে ভিপি নুর

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৪ জানুয়ারি, ২০২৩, ১২:০০ এএম

ডাকসুর সাবেক ভিপি গণ অধিকার পরিষদের সদস্যসচিব নুরুল হক নুর বলেছেন, নানা অপকৌশলে আওয়ামী লীগ সরকার ভোটারবিহীন ও মধ্যরাতের নির্বাচনের পরেও বিদেশিদের সমর্থন আদায় করেছিল। বর্তমানে সারা বিশ্বের গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রগুলো আওয়ামী লীগের বর্বর কর্তৃত্ববাদী শাসনের বিরুদ্ধে সোচ্চার। এই অবৈধ শাসনকে তারা আর সমর্থন দেবে না, সরকারের গদিতে কাঁপুনি ধরেছে। তাই আওয়ামী লীগ এখন নানা ষড়যন্ত্র ও নীলনকশায় ব্যস্ত।
জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গতকাল গণ অধিকার পরিষদের আয়োজনে এক বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন। ইসরায়েল থেকে ফোনে আড়িপাতার যন্ত্রপাতি ক্রয়, গোয়েন্দা নজরদারির নামে নাগরিকদের ব্যক্তিগত নিরাপত্তা হরণের প্রতিবাদে, মিথ্যা মামলায় গ্রেপ্তারকৃত রাজবন্দিদের মুক্তি, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল এবং বিদ্যুতের বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহারের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করা হয়।
নুরুল হক নুর বলেন, নির্বাচনের আগে বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের ফোনালাপ ফাঁস হয়। প্রযুক্তি ব্যবহার করে তারা বিরোধী দলকে দমন করছে। জনগণের টাকা খরচ করে আওয়ামী লীগ সারা দেশে সাইবার বাহিনী দিয়ে গুজব প্রচার করছে। ভোট চুরি মসৃণ করতে ইভিএম প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে। এই সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে। বিশ্বগণমাধ্যমে ইসরায়েলের আড়িপাতা যন্ত্র ক্রয়ের খবর প্রকাশের মাধ্যমে সরকারের নীলনকশা উন্মোচিত হয়েছে।
নাগরিকের ফোনে আড়িপাতা সংবিধানপরিপন্থী বলে মন্তব্য করেন গণ অধিকার পরিষদের সদস্যসচিব। তিনি বলেন, সরকার হুমকি দিয়ে সবার মুখ বন্ধ করতে চায়, আন্দোলন দমন করতে চায়। বিরোধী দলের নেতাদের ফোনালাপ খবরে প্রচার কোন আইনে আছে? আওয়ামী লীগের সাইবার সেল থেকে বানানো ছবি-ভিডিও প্রকাশের জন্য গণমাধ্যমকে তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে চাপ দেওয়া হচ্ছে। সংবিধানকে কাটাছেঁড়া করে গণবিরোধী সংবিধানে পরিণত করা হয়েছে। সংবিধান সংশোধন করে জনগণের শাসন নিশ্চিত করা হবে।
ডাকসুর সাবেক এই ভিপি বলেন, সরকার যদি ছয় মাসের মধ্যে জনগণের হাতে ক্ষমতা তুলে না দেয় তবে তাদের মিসরের হোসনি মোবারকের মতো পরিণতি ভোগ করতে হবে। দ্রব্যমূল্য দফায় দফায় বাড়িয়ে জনগণকে নিঃস্ব করা হচ্ছে। জনরোষে শিগগিরই এই সরকারের পতন ঘটবে। গণতন্ত্রের মুক্তির লক্ষ্যে আমরা সব গণতন্ত্রকামী দলকে সাথে নিয়ে যুগপৎ আন্দোলন গড়ে তুলব।
সমাবেশে আরো বক্তব্য দেন গণ অধিকার পরিষদের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদ খান, যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক আহমেদ, যুগ্ম আহ্বায়ক বিপ্লব কুমার পোদ্দার, ছাত্র অধিকার পরিষদের সভাপতি বিনি ইয়ামিন মোল্লা প্রমুখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন