ঢাকা, শনিবার, ১১ জুলাই ২০২০, ২৭ আষাঢ় ১৪২৭, ১৯ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

বিনোদন প্রতিদিন

ডিপজল-মৌসুমীকে জুটি করে আকবরের দুলাভাই জিন্দাবাদ

| প্রকাশের সময় : ২৫ জানুয়ারি, ২০১৭, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : প্রায় এক দশকের অধিক সময় পর একসাথে অভিনয় করছেন মুভিলর্ড খ্যাত ডিপজল ও চিত্রনায়িকা মৌসুমী। তাদের নিয়ে বিশিষ্ট পরিচালক মনতাজুর রহমান আকবর নির্মাণ করতে যাচ্ছেন ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’ নামে একটি নতুন সিনেমা। এ সিনেমায় ডিপজল ও মৌসুমী জুটির পাশাপাশি দেখা যাবে বাপ্পী ও পরীমণিকে। সিনেমাটির শূটিং শুরু হবে আগামী মাসের মাঝামাঝি থেকে। সিনেমাটি প্রযোজনা করছেন নাদের খান। চলচ্চিত্রে নতুন করে প্রত্যাবর্তনের পর প্রথমবারের মতো বাইরের কোনো প্রডাকশনের সিনেমা করতে যাচ্ছেন ডিপজল। তিনি বলেন, নতুন করে সিনেমার কাজ শুরু করার পর অনেকেই প্রস্তাব নিয়ে আসছেন। তবে আমি যে ধারার সিনেমা করি, সে ধারার সিনেমা না হলে করা সম্ভব নয়। কারণ আমি দর্শকের মনের মতো সিনেমায় অভিনয় করি। গল্প সমৃদ্ধ এবং ভাল মেকিংয়ের সিনেমা। তিনি বলেন, দর্শক আমাদের দেশের সিনেমায়ই পছন্দ করে। আমার দেশের গল্প, সামাজিক ও পারিবারিক আবেগ, অনুভূতিই তারা গ্রহণ করে। আমিও আমাদের চিরায়ত এই সংস্কৃতির সিনেমা করি। আসলে সিনেমার গল্প ও নির্মাণ যেমন জটিল হতে হয়, তেমনি তা সরল করে দর্শকের সামনে উপস্থাপন করলে দর্শক তা গ্রহণ করে। এ সময়ে এ ধরনের সিনেমা খুব কম হচ্ছে। আমি চাচ্ছি, দর্শকের চিরায়ত যে চাহিদা, তা প্রাধান্য দিয়ে সিনেমায় বিনোদন দিতে। আমার লক্ষ্যও তাই। তিনি বলেন, আমি বলেছি প্রতি মাসে দুটি করে দর্শকদের সিনেমা উপহার দিব। সেই লক্ষ্য নিয়েই এখন কাজ করে যাচ্ছি। একের পর এক সিনেমার শূটিং করছি। আশা করছি, এ বছরের মাঝামাঝি থেকে দর্শক আমার সিনেমা ধারাবাহিকভাবে দেখতে পাবেন। মনতাজুর রহমান আকবর বলেন, এখন সিনেমার মতো সিনেমা হচ্ছে না বললেই চলে। সিনেমা বানালে তো হবে না। এর যে মেরুদÐ গল্প, তা থাকতে হবে। একটি জমাট ও সুবিন্যস্ত গল্প না থাকলে দর্শক তা দেখবে কেন। এ সময়ে যেসব সিনেমা নির্মিত হচ্ছে, তার অধিকাংশেরই গল্পের ধারাবাহিকতা নেই। ফলে ব্যর্থ হচ্ছে। শুধু দুই চারটা গান ও ফাইট দিয়ে সিনেমা হয় না। কেন গান হবে এবং কেন ফাইট হবে, তার যৌক্তিকতা তো থাকতে হবে। দর্শক এগুলো খুব ভালো বোঝে। দর্শকের এই বোঝাটা অনেক নির্মাতা ধরতে পারেন না বলেই সিনেমা মার খাচ্ছে। তিনি বলেন, আমি যে নতুন সিনেমাটি করতে যাচ্ছি এতে দর্শক একটি গল্প দেখতে পাবেন। আমাদের পারিবারিক যে ঐতিহ্য এবং এর ভেতরে যে নানা সুখ-দুঃখ, হাসি-কান্না এবং নাটকীয়তা রয়েছে, তাই সিনেমাটিতে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। একটি কমপ্লিট সিনেমা বলতে যা বোঝায়, তাই করা হচ্ছে। সিনেমার পূর্র্ণাঙ্গ বিনোদন এতে থাকবে। পাশাপাশি আমাদের পারিবারিক মূল্যবোধের বিষয়টিও উঠে আসবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Tusar ২৫ জানুয়ারি, ২০১৭, ৪:০২ এএম says : 0
Onek suvo kamona roilo
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন