ঢাকা সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১০ কার্তিক ১৪২৭, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

ইসলামী বিশ্ব

ফিলিস্তিনি পরিবারকে উচ্ছেদের নোটিশ ইসরাইলের

| প্রকাশের সময় : ১৯ আগস্ট, ২০১৭, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : ফাহমিয়া শামসনেহ ৭৫ বছর বয়সী ফিলিস্তিনি নারী। তিনি তার পরিবার নিয়ে ৫০ বছরেরও বেশি সময় ধরে জেরুজালেমের শেখ জারাহ এলাকায় বসবাস করছেন। স¤প্রতি তাদের ওই বাড়ি খালি করে দেয়ার জন্য একটি নির্দিষ্ট সময়সীমা বেঁধে দিয়েছে ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ। অর্ধ শতাব্দী ধরে সেখানে বৈধভাবে বসবাসকারী পরিবারটিকে চলে যাবার জন্য নির্দিষ্ট সময়সীমা বেধে দেয়া সত্তে¡ও ফাহমিয়া তার জিনিসপত্র প্যাকেট করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। পূর্ব জেরুজালেমের অধিকৃত ওই এলাকায় বসবাসরত পরিবারটিকে ওই স্থান খালি করার জন্য সময় বেঁধে দেয় ইসরাইলি সুপ্রিমকোর্ট। প্যালেস্টাইনের প্রতিবেশি শেখ জারাহ এলাকায় ইহুদি বসতি স¤প্রসারণের ব্যাপক পরিকল্পনার অংশ হিসেবে খালি করা বাড়িগুলো ইসরাইলি ইহুদিদের হাতে হস্তান্তর করা হবে-এতে বিন্দু মাত্র সন্দেহ করছেন না উচ্ছেদ হওয়া পরিবারগুলো। ইসরাইলি দখলদারিত্ব-বিরোধী গ্রæপ পিস নাউ-এর তথ্যানুযায়ী, ২০০৯ সালের পর প্রথমবারের মতো সেখানে উচ্ছেদ অভিযান চালাচ্ছে ইসরাইল এবং তা জেরুজালেমের বিতর্কিত স্থানের বিরুদ্ধে যুদ্ধের অংশ হয়ে উঠেছে। সমগ্র শহরটিকে ইসরাইল তার অবিচ্ছেদ্য অংশ হিসাবে দাবি করছে। অন্যদিকে, জেরুজালেমের পূর্বাংশকে ফিলিস্তিনিরা তাদের ভবিষ্যত রাজধানী হিসাবে বিবেচনা করে আসছে। ফাহমিয়ার অসুস্থ স্বামী আউউব (৮৪)। এই দম্পতির ছেলে তার পরিবার নিয়ে গত ৯ আগস্ট তাদের ৫০ বর্গ মিটারের বাড়ি ছেড়ে চলে যেতে বাধ্য হয়। ফাহমিয়া বলেন, এখানে আমি গত তিপ্পান্ন বছর স্বামীর সঙ্গে বাস করছি। আমি যখন এই বাড়িতে এসেছিলাম তখন আমি ছিলাম একজন কিশোরী। তাদের কোথাও যাওয়ার জায়গা নেই উল্লেখ করে অসহায় ফাহমিয়া বলেন, পুলিশ আমাদেরকে হুমকি দিচ্ছে। কি করব আমরা তা বুঝতে পারছি না। আমরা কোথায় যাব তা আমরা জানি না। ককয়েক দশকের ইসরাইলি আইন অনুযায়ী, যদি ইহুদিরা প্রমাণ করতে পারেন যে পূর্ব জেরুজালেম এলাকায় ১৯৪৮ সালের যুদ্ধের আগে থেকে বসবাস করছেন, সেক্ষেত্রে তাদের মালিকানা ফিরিয়ে দেয়া হয়। ১৯৬৭ সালের যুদ্ধের সময় জর্দানের নেতৃত্বাধীন আরব বাহিনী শহরটির দখল নিলে শত শত ইহুদি পালিয়ে জেরুজালেমে আশ্রয় নেয়। অন্যদিকে, হাজার হাজার ফিলিস্তিনি তাদের ভূখÐ থেকে পালিয়ে গিয়েছিল। পরে ফিলিস্তিনিদের ওই ভূখÐে ইসরাইল রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হয়। কিন্তু যেসব ফিলিস্তিনি তাদের ভূমি হারিয়েছেন তাদের ভূমি উদ্ধারে সেখানে কোনো আইন নেই। ১৯৬৭ সালের আরব-ইসরাইলের মধ্যকার ৬ দিনে যুদ্ধে ইসরাইল পূর্ব জেরুজালেম দখল করে নেয় এবং পরবর্তীতে এটিকে দেশটির সঙ্গে সংযুক্ত করে। যদিও তা আন্তর্জাতিক স¤প্রদায়ের দ্বারা স্বীকৃত হয়নি। বর্তমানে প্রায় ২,০০,০০০ ইসরাইলি ইহুদি পূর্ব জেরুজালেমে বসতি স্থাপন করেছে; যা আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী অবৈধ বলে গণ্য করা হয়। ফাহমিয়ার পরিবার বলেছে যে, ১৯৬৭ সালে থেকে তারা ইসরাইলের জেনারেল কাস্টওডিয়ানকে ২৫০ শেকেল (৭০ ডলার) করে প্রদান করে আসছেন। এর অর্থ হচ্ছে- পরিবারটিকে তাদের স্থাবর সম্পত্তি হিসাবে কর্তৃপক্ষ কর্তৃক স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে। কিন্তু তারপরেও তাদের সেখান থেকে চলে যাবার জন্য নোটিস দেয়া হয়েছে। এএফপি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (4)
MD Alam ১৯ আগস্ট, ২০১৭, ১০:৩৮ এএম says : 0
এই হলো মানবতা, এই ঊচ্ছেদের নোটিশ যদি ইস্রাইলকে দিত বিশ্ব মিডিয়া আলোড়ন হয়ে যেত, সুতরাং মুসলিম নেতাদের এখনো সময় আছে এক হওয়ার।
Total Reply(0)
Md Shahossain ১৯ আগস্ট, ২০১৭, ১০:৪০ এএম says : 0
আল্লাহপাক্ ঈমান্দার নারি ও পুরুষদের রক্ষা করো।আমিন
Total Reply(0)
H M Nazrul Islam ১৯ আগস্ট, ২০১৭, ১০:৪৯ এএম says : 0
allah ae sokol muslimdark hefajot korun
Total Reply(0)
মস্তফা ১৯ আগস্ট, ২০১৭, ১২:৫৮ পিএম says : 0
আল্লাহ মুসলমানদের রক্ষা করুন
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন