সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২১ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ছন্দ পেল গ্রন্থমেলা

| প্রকাশের সময় : ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮, ১২:০০ এএম

এহসান আব্দুল্লাহ : রাজনৈতিক উত্তাপ কাটিয়ে আবার পুরোনো রুপে ফিরেছে প্রাণের বইমেলা। সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ার কারণে গতকাল বইমেলা শুরু হয় সকাল ১১টা থেকে। প্রথম প্রহরেই অন্যান্য ছুটির দিনের মতোই ছিল শিশু প্রহর। তাই সকালেই শিশুরা তাদের বাবা মায়ের হাত ধরে আসতে থাকে মেলা প্রাঙ্গনে। বরাবরের মতোই তাদের চোখে মুখে দেখা যাচ্ছিল উৎসাহ আর উচ্ছাছ। দেশের রাজনীতির হালচাল তারা আর কি বুঝে তাই কোন শঙ্কা বা ভীতি ছিলনা তাদের কারো চেহারায়। কতগুলো ফুলের কলি যেন ছুটোছুটি করছে মেলা প্রাঙ্গন জুড়ে, এমনটিই ছিল গতকালের শিশুপ্রহরের দৃশ্য।
শিশু চত্বরের বিক্রেতারা বলেন, কাল যে রকম অবস্থা গিয়েছে তাতে কিছুটা শঙ্কা ছিল আজকের মেলা নিয়ে। তবে আজকে আমরা অনেক আনন্দিত। কালকের কোন প্রভাবই আজকের মেলায় পড়েনি। লোকসমাগম অন্যান্য দিনের তুলনায় আজ অনেক বেশিই হয়েছে।
ধানমন্ডি ল্যাবরেটরী স্কুলের ২য় শ্রেণীর শিক্ষার্থী রাতুল আয়মান এসেছে তারা বাবা মায়ের সাথে বইমেলায়। মেলায় এসে সে জানায়, ‘অনেক ভালো লাগছে মেলায় এসে। এখানে অনেক কার্টুন আছে।’ শিশু চত্বরে সিসিমপুরের মঞ্চ দেখিয়ে সে বলে, ‘ঐখানে আমি খেলেছি অনেক মজা হয়েছে আমার একটা বন্ধুও হয়েছে এখানে।’
বিকেলের মেলায়ও দেখা যায় প্রচুর জনসমাগম। সব শঙ্কা কাটিয়ে রাজধানীসহ রাজধানীর বাহিরের দর্শনার্থীরাও এসেছেন মেলায়। যেন হঠাৎ ছন্দ হারানো মেলা আবার হঠাৎ করেই ছন্দ পেল। ক্রেতাদের এমন উপস্থিতিতে সন্তুষ্ট বিক্রেতারাও। আগত দর্শনার্থীরা জানান, যে কোন রাজনৈতিক সঙ্কটের কারনে বইমেলা থমকে গেল তা আমাদের জন্য একটি অশনী সংকেত। বইমেলা শুধু একটি মেলাই নয় বরং এটি আমাদের সংস্কৃতি ও আবেগের সাথে সম্পৃক্ত।
অধিকাংশ স্টলের বিক্রেতারা জানান, বৃহস্পতিবারের অবস্থা দেখে খানিকটা শঙ্কায় ছিলাম আজকের দিনটি নিয়ে। তবে আমরা আশাবাদী ছিলাম যে আজ মেলার অবস্থা আবার আগের মতোই হয়ে যাবে। সেটাই সত্যি হলো। আমরা আজকে বেচাকেনা নিয়ে সন্তুষ্ট।
রাজধানীর উত্তরা থেকে মেলায় আসা রাজীব হয়দার বলেন, বৃহস্পতিবার রাস্তায় কোন যানবাহন না থাকার কারনে মেলায় আসা সম্ভব হয়নি। তাছাড়া পুলিশি হয়রানীর ভয়ও ছিল। আজ পরিস্থিতি একদমই স্বাভাবিক তাই আসতে পেরেছি।
বইমেলায় আজ ঐতিহ্য প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত হয়েছে বুলবুল সারওয়ারের ভ্রমণ গ্রন্থ মহাভারতের পথে ২, বাবুই প্রকাশনী থেকে তাছলিমা শাহনুরের কাব্যগ্রন্থ অমিমাংসীত ও মুক্তচিন্তা প্রকাশনী থেকে ড. আনিস আহমেদের বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী কিসিকিসি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন