ঢাকা, সোমবার ২২ জুলাই ২০১৯, ০৭ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৮ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

স্বাস্থ্য

উচ্চ রক্তচাপ এবং কিডনি

ডাঃ মোঃ ফজলুল কবির পাভেল | প্রকাশের সময় : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

আমাদের দেশের প্রায় ২ কোটি মানুষ কোন না কোন কিডনি রোগে আক্রান্ত। কিডনি বিকল হয়ে অনেক মানুষ প্রতিদিন মারা যায়। কিডনি বিকলের অন্যতম তিনটি কারণ হলো ডায়াবেটিস, নেফ্রাইটিস ও উচ্চ রক্তচাপ। উচ্চ রক্তচাপ হতে যেমন কিডনি বিকল হয় আবার কিডনি বিকলের কারণেও কিন্তু উচ্চ রক্তচাপ হতে পারে।

রক্তনালীতে রক্ত প্রবাহকালে রক্তনালীর গায়ে যে চাপ প্রয়োগ করে তা রক্তচাপ। রক্তচাপ মাপার মেশিন দিয়ে এটি পরিমাপ করা হয়। হৃদপিন্ড সংকোচনের সময় যে রক্তচাপ হয় তাকে বলা হয় সিস্টোলিক বøাড প্রেসার এবং হৃদপিন্ডের স¤প্রারণের সময় রক্তচাপকে বলা হয় ডায়াসটোলিক বøাড প্রেসার। একজন সুস্থ মানুষের রক্তচাপ ১২০/৮০ মিলি মিটার পারদ চাপের কাছাকাছি থাকে।
উচ্চ রক্তচাপ হৃদপিন্ড ও সারা দেহের রক্তনালীর ক্ষতি সাধন করে। এতে কিডনির রক্তনালী নষ্ট হয় এবং কিডনির নেফ্রন নষ্ট হয়ে কিডনি বিকল হয়ে যায়। উচ্চ রক্তচাপের কারণে কিডনি বিকল হতে প্রায় ১০ থেকে ১৫ বছর সময় লাগে। তবে অনিয়ন্ত্রিত রক্তচাপ খুব বেশি থাকলে কয়েক সপ্তাহ বা মাসের মধ্যেও কিডনি বিকল হতে পারে।
যাদের উচ্চরক্তচাপ আছে তাদের রক্ত ও প্রস্রাব পরীক্ষার মাধ্যমে কিডনি আক্রান্ত হচ্ছে কিনা তা নির্ণয় করা যায়। উচ্চ রক্তচাপ কিডনির রক্তনালীর ক্ষতি করলে রক্তের প্রোটিন প্রস্রাবে নির্গত হয়। ল্যাবরেটরি টেস্টের মাধ্যমে তা সহজেই নির্ণয় করা সম্ভব। এমনকি একেবারে প্রাথমিক অবস্থায় যখন খুব সামান্য এ্যলবুমিন যায় তখন প্রস্রাব পরীক্ষার মাধ্যমে তা নির্ণয় করা সম্ভব এবং এই পর্যায়ে চিকিৎসার মাধ্যমে কিডনি রোগ পুরোপুরি ভাল করা যায়।
উচ্চ রক্তচাপ থেকে কিডনি ছাড়াও অন্যান্য মূল্যবান অঙ্গের ক্ষতি হতে পারে। অনিয়ন্ত্রিত উচ্চ রক্তচাপ হতে করোনারী হার্ট ডিজিজ, হার্ট এ্যাটাক ও হার্ট ফেইলিউর, ব্রেইন স্ট্রোক, চোখের ও পায়ের রক্তনালীর ক্ষতি হতে পারে। তাই রক্তচাপ সর্ম্পকে সচেতন হতেই হবে।
মাঝে মাঝেই রক্তচাপ মাপতে হবে। নিয়মিত ওষুধ খেতে হবে। উচ্চ রক্তচাপ নিয়ে ভয়ের কারণ নেই। চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া কখনও ওষুধ বন্ধ করা যাবেনা এবং প্রায় ক্ষেত্রেই দেখা যায় উচ্চ রক্তচাপের ওষুধ সারা জীবন খেতে হয়। উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখলে কিডনি নষ্ট হবার সম্ভাবনা অনেকটাই কমে যাবে। সচেতনতাই পারে আমাদের এই ক্ষতি থেকে রক্ষা করতে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন