ঢাকা রোববার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২ আশ্বিন ১৪২৭, ০৯ সফর ১৪৪২ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

স্বস্তিতে কুমিল্লার আলু চাষিরা

ডায়মন্ড রোজগোল্ড কার্ডিনালসহ ১৫ জাতের আলুর বাম্পার ফলন

কুমিল্লা থেকে সাদিক মামুন | প্রকাশের সময় : ২৫ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৭ এএম

খুশিতে আটখানা কুমিল্লার আলুচাষীরা। প্রায় ১২ হাজার হেক্টর জমিতে ডায়মন্ড, কার্ডিনালসহ ১৫ জাতের আলুর আবাদ করেছেন চাষীরা। এবারে অনুকূল আবহাওয়ায় প্রতিবিঘা জমিতে ২০ থেকে ২৫ মণ আলু বেশি ফলন পেয়েছেন চাষীরা। আর তাই এবারে আলু চাষীদের আনন্দের মাত্রাটাও অনেক বেশি দেখা দিয়েছে তাদের চোখেমুখে।

কুমিল্লার ১৭ উপজেলার মধ্যে দাউদকান্দি, চান্দিনা, দেবিদ্বার, আদর্শ সদর, বুড়িচং, হোমনা, মেঘনা, তিতাস, মুরাদনগর, সদর দক্ষিণ, বরুড়ায় এবারে আলুর ব্যাপক ফলন হয়েছে। তবে ফলনের দিক থেকে দাউদকান্দি এগিয়ে রয়েছে। এ উপজেলায় ৫ হাজার ৩৩০ হেক্টর জমিতে আলু আবাদ হয়েছে। ফলনের দিক থেকে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে চান্দিনা উপজেলা। দাউদকান্দি, চান্দিনা, বুড়িচং, মুরাদনগর, আদর্শ সদর ও দেবিদ্বারের কয়েকটি গ্রাম ঘুরে আলু চাষীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে এবারের মৌসুমে চাষিরা ডায়মন্ড, কার্ডিনাল, গ্র্যানোলা, মালটা, হীরা, অরিগো, কোস্টারিকা, পেট্রোনিজ, বেলেনী, এস্টারিক্স, সাগিতা, বারিদশ, এটলাস, ভৈরবী ও রোজগোল্ডসহ ১৫ জাতের আলুর আবাদ করেছেন। তবে ডায়মন্ড ও কার্ডিনাল জাতের আলুর ব্যাপক ফলন হয়েছে।

আলু চাষিরা জানান, অনুকূল আবহাওয়া ও কৃষি উপকরণ সুলভ মূল্যে পাওয়ায় এবার ফলন ভাল হয়েছে। আর শুরু থেকে এখন পর্যন্ত দাম লাভের ঘরেই রয়েছে। মাঠ পর্যায়ে কৃষি কর্মকর্তাদের পরামর্শ মেনে চলায় শীত ও ঘন কুয়াশেও আলু ক্ষেতের কোনরকম ক্ষতি হয়নি। জমিতে সঠিক মাত্রার সুষম সার প্রয়োগ করায় এবারে ফলন বেশি হয়েছে। বিগত বছরের চেয়ে এবারে আলুর আবাদ অনেক ভালো। বাম্পার ফলনে তাদের খুশির সীমাও ছাড়িয়ে গেছে। তাই আলু চাষে তাদের আগ্রহ আগের চেয়ে অনেক বেড়েছে।
কৃষি সম্প্রসারণ অফিস, কুমিল্লার উপ-পরিচালক কৃষিবিদ দিলীপ কুমার অধিকারি জানান, কুমিল্লার সবকটি উপজেলার মাটি আলু চাষের জন্য খুব উপযোগী। এবারে আলুর বাম্পার উৎপাদন হয়েছে। ক্ষেতে আলু ভাল রাখতে প্রতিষেধক হিসেবে ছত্রাকনাশক প্রয়োগ করে সুফল পেয়েছেন আলু চাষীরা। আমাদের কর্মকর্তাসহ মাঠকর্মীরা সার, কীটনাশক প্রয়োগের ব্যাপারে কৃষকদের প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিয়েছেন। যা এবারের বাম্পার ফলনেই এ চিত্র ফুটে উঠেছে। আমরা কেবল আলু নয়, সবধরণের কৃষিপণ্য উৎপাদনে কৃষকরা যাতে তাদের প্রয়োজন মতে সহযোগিতা, পরামর্শ পেতে পারে এজন্য জেলা উপজেলা পর্যায়ে কৃষি অফিসগুলোকে দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখার জন্য নির্দেশনা দিচ্ছি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন