ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৭ সফর ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ঘাটের যানজট পরিস্থিতির আরো অবনতি বিকল্প পথে ট্রাক চলাচলের পরামর্শ

আরিচা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৯ জুলাই, ২০১৯, ৬:২৫ পিএম

কয়েকদিন ধরে লাগাতার পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ঘাটের যানজট পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। বৃহস্পতি ও শুক্রবার এমনিতেই যানবাহনের চাপ বাড়ে। এরপর স্রোত ও ফেরির সমস্যা। এমতাবস্থায় কর্তৃপক্ষ ট্রাক চালকদেরকে বিকল্পপথে চলাচলের পরামর্শ দিয়েছেন।
জানা গেছে, গত কয়েকদিন ধরে নদীতে প্রবোল স্রোতের কারণ পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে। স্রোতের প্রতিকুলে চলতে গিয়ে ফেরিগুলো ঘণ ঘণ বিকল হয়ে পড়ছে। এতে দেখা দিয়েছে ফেরি সংকট।
এদিকে পারাপারে দ্বিগুন সময় লাগায় পদ্মার উভয়পাড়ে আটকে পড়ছে হাজারেরও বেশী পন্যবোঝাই ট্রাক। ঘন্টার পর ঘন্টা ধরে ঘাটে আটকে থাকতে হচ্ছে যাত্রীবাহী বাসকে। দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রীরা।
দুই থেকে তিনদিন ধরে পার হতে না পারায় সীমাহীন দুর্ভোগের পড়েছেন ট্রাক চালক ও সহযোগিরা। সেই সাথে ঘন্টার পর ঘন্টা ঘাটে আটকে থাকা বাস ও ছোট গাড়ীর যাত্রীরাও পড়েছেন বিপাকে।
বাংলাদেশ ইনল্যান্ড ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট কর্পোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) আরিচা অঞ্চলের উপমহাব্যবস্থাপক আজমল হোসেন বলেন, পাটু্রয়িা-দৌলতদিয়া নৌরুটে চলাচলকারী ১৫টির মধ্যে বিকল রয়েছে চারটি ফেরি। বাকী ১১টি ফেরি দিয়ে পারাপার করা হচ্ছে যানবাহন। স্রোতের বিপরীতে চলতে গিয়ে ফেরিগুলোকে নদী পার হতে সময় লাগছে দ্বিগুনেরও বেশী। এতে ফেরির ট্রিপ সংখ্যা কমে গেছে। ইঞ্জিন দুর্বল হওয়ায় কয়েকটি ফেরি স্রোতের বিপরীতে চলতে পারছে না। ফলে বিপুল সংখ্যক গাড়ি পাটুরিয়া ঘাটে ফেরি পারের অপেক্ষায় আছে। তবে এই সংকট মোকাবেলায় উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে আরো দুটি ফেরি চাওয়া হয়েছে। বিকল ফেরিগুলি পাটুরিয়া ভাসমান কারখানায় মেরামতে আছে। সেগুলি দ্রুত ফেরি বহরে যুক্ত হবে এবং কয়েকদিনের মধ্যেই দুটি ফেরি এই রুটে যুক্ত হতে পারে বলে তিনি আশা করেন।
এদিকে বৃহস্পতিবার বিকেলে দৌলতদিয়া অভিমুখী রো রো ফেরি কেরামত আলী স্রোতের টানে ৩ কিলোমিটার ভাটিতে চলে যায়। বারবার স্রোতের বিপরীতে চলার চেষ্টা করলে ফেরিটির ইঞ্জিনের সাইলেন্সার পাইপে আগুন ধরে যায়।
বিআইডব্লিউটিসি’ পাটুরিয়া কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মহিউদ্দিন রাসেল বলেন, ছোট বড় ২০টি গাড়ী ও যাত্রী নিয়ে বিকেল ৫টার দিকে ফেরিটি পাটুরিয়া ঘাট থেকে দৌলতদিয়ার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। প্রবল স্রোতের বিপরীতে ফেরিটি দেড় ঘন্টা চেষ্টার পর ফেরিটি দৌলতদিয়া ঘাটের কাছে যায়। কিন্তু দৌলতদিয়া ঘাটের কাছে নদীতে স্রোত বেশী থাকায় ফেরিটি বারবার চেষ্টা করেও ঘাটে ভীড়তে পারেনি। স্রোতের বিপরীতে দফায় দফায় চেষ্টা করার কারণে এক পর্যায়ে ফেরিটির ইঞ্জিনের সাইলেন্সার পাইপে আগুণ ধরে যায়। ইঞ্জিন দুর্বল থাকায় এই অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে জানান তিনি। তবে এতে ফেরির বড় ধরণের কোন ক্ষতি হয়নি। ফেরিতে থাকা গাড়ী বা যাত্রীদেরও কোন ক্ষতি হয়নি। উদ্ধারকারী জাহাজের সহায়তায় ৩ ঘন্টা চেষ্টার পর ফেরিটিকে দৌলতদিয়া থেকে পাটুরিয়া ফিরিয়ে আনা হয়। ফেরিতে থাকা গাড়ী ও যাত্রীদের অন্য ফেরিতে নিরাপদে দৌলতদিয়া ঘাটে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।
পাটুরিয়া ঘাট পুলিশ কন্ট্রল রুমের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর আরাফাত রাসেল বলেন, নদীতে তীব্র স্রোত এবং ফেরি সংকটের ফেরি চলাচল ব্যহত হচ্ছে। পানি বাড়ার ফলে পন্টুন ডুবে যাচ্ছে। একারণে প্রতিদিনই পন্টুন সড়িয়ে উপরে উঠানো হচ্ছে। ফেরি চলাচল ব্যহত হওয়ায় ঘাটে বিপুল সংখ্যক গাড়ী আটকা পড়েছে। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বাস ও ছোট গাড়ী পার করা হচ্ছে। আটকা পড়ছে ছয়শত পণ্যবাহী ট্রাক। পচনশীল, জরুরী পণ্য এবং শিশুখাদ্য বহনকারী ট্রাক ছাড়া অন্য ট্রাক পারাপার বন্ধ রাখা হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন