ঢাকা, সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬, ২৩ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

অবরুদ্ধ কাশ্মীরে জঙ্গি হামলা, পুলিশসহ নিহত ২

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ আগস্ট, ২০১৯, ৩:৪৪ পিএম

স্বায়ত্তশাসন কেড়ে নেয়ার পর প্রথমবারের মতো কাশ্মীরে জঙ্গি হামলার শিকার হলো ভারতীয় পুলিশ। কয়েক সপ্তাহ অবরুদ্ধ অবস্থার পর বুধবার উত্তর কাশ্মীরের বারামুল্লাতে বন্দুকযুদ্ধ হয়, যাতে একজন জঙ্গি এবং একজন পুলিশ কর্মকর্তা নিহত হয়েছেন। দিল্লীর ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলে কাশ্মীরজুড়ে কারফিউ জারি করে রাখে মোদি সরকার, কয়েক লাখ সেনায় অবরুদ্ধ অঞ্চলটির কর্তৃপক্ষ প্রথমবারের মতো এমন জঙ্গি হামলার প্রতিবেদন জানায়।

কাশ্মীর জোন পুলিশ টুইটারে জানিয়েছে, 'একজন সন্ত্রাসী নিহত। অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার হয়েছে এবং এক পুলিশ অফিসার নিহত এবং দুইজনকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।’

নিহত জঙ্গিকে লস্কর-ই-তৈয়বার (এলইটি) সঙ্গে সম্পৃক্ত স্থানীয় বাসিন্দা হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে বলে পরবর্তীর এক টুইটে জানায় কাশ্মীর জোন পুলিশ। জাতিসংঘের তালিকাভুক্ত পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন এলইটি। দিল্লী ও ওয়াশিংটনের সংগঠনটির বিরুদ্ধে ২০০৮ সালে মুম্বাই হামলার মূল পরিকল্পনার অভিযোগ তুলেছিল, যে হামলায় ১৬৬ জন নিহত হয়েছিল।

ভারতীয় সুরক্ষা বাহিনী এবং ভারতীয় শাসনের বিরোধিতাকারী জঙ্গিদের মধ্যে সংঘর্ষ একটি সাধারণ ঘটনায় পরিণত হয়েছে। এসব সংঘর্ষে কাশ্মীরে বিগত ৩০ বছরে কয়েক হাজার মানুষ নিহত হয়েছে, যার বেশিরভাগই বেসামরিক। যা নয়াদিল্লির প্রতি জনগণের বিরক্তি বাড়িয়ে তুলেছে।

ভারতের একমাত্র মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ অঞ্চলটির নাগরিকদের বিশেষ অধিকার কেড়ে নেয়া ৫ আগস্টের ঘোষণাকে ঘিরে শুরু থেকেই উদ্বিগ্ন মোদীর বিজেপি সরকার। জনগণের ক্রোধ রোধ করতে, মানুষের চলাচল সীমাবদ্ধ রাখতে এবং ল্যান্ডলাইন, মোবাইল ফোন ও ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন রেখে কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠায় ৭০ হাজারের বেশি অতিরিক্ত সেনা আধা-সেনা মোতায়েন করে কাশ্মীরে।

সম্প্রতি ল্যান্ডলাইনগুলো চালু করেছে কেন্দ্র, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুললেও সেখানে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি নেই বললেই চলে। কাশ্মীরের উত্তাপ বিশ্বে এর নৈস্বর্গিক বৈশিষ্ট্যকে ছাপিয়ে এক নেতিবাচক অঞ্চল হিসেবে খ্যাত করেছে, যে অঞ্চল ঘিরে প্রতিবেশি পারমাণবিক শক্তিধর দেশ সর্বদা যুদ্ধ পরিস্থিত তৈরিতে ব্যস্ত। সেখানে ভারতের এমন পদক্ষেপ যে এমন হামলার ঘটনাকে ত্বরান্বিত করবে, তা অনুমিত। সূত্র: আল-জাজিরা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (13)
আবদুল হালিম দুলাল ২১ আগস্ট, ২০১৯, ৪:৫৭ পিএম says : 1
দয়া করে জঙ্গী লিখবেন না। এরা স্বাধীনতা কামী।
Total Reply(0)
Mohsin Reza ২২ আগস্ট, ২০১৯, ৫:৩৭ এএম says : 1
Apni ekjon shadhinotakami k kivabe jongi likhlen??? Tahole 1971 e amra sobai ki jonggi silam?
Total Reply(0)
আব্দুল হালিম ২২ আগস্ট, ২০১৯, ৭:২৪ এএম says : 1
স্বাধীনতা চাওয়াও জংগীবাদ??? তাইলেতো ভারতীয় সেনা ও পুলিশ সবাই জংগী !!! যে হাড়ে তারা কাস্মীরীদের হত্যা করতেছে!!!!
Total Reply(0)
Engr Sowqat Chowdhury ২২ আগস্ট, ২০১৯, ৯:৫০ এএম says : 1
স্বাধীনতাকামী সংগ্রামী লোকদেরকে যদি জঙ্গী বলা হয় তাহলে এ দেশের মুক্তি আন্দোলনের সকল কর্মীকে মুক্তিযুদ্ধাকে জঙ্গী বলা হয় তাহলে কি দাঁড়ায় এই পত্রিকা আমাদের মুক্তিযোদ্ধাদেরকে দেশপ্রেমিকদের কে জঙ্গী পর্যায়ে নিয়ে গেছে। আপনাদেরকে দালালি বন্ধ করার জন্য অনুরোধ করতেছি।
Total Reply(0)
mooedul islam ২২ আগস্ট, ২০১৯, ৮:১৭ পিএম says : 1
তারা কাশ্মীরী মুক্তিযোদ্ধা
Total Reply(0)
mooedul islam ২২ আগস্ট, ২০১৯, ৮:১৭ পিএম says : 1
তারা কাশ্মীরী মুক্তিযোদ্ধা !
Total Reply(0)
মোহাঃ জসিম উদ্দীন তালুকদার ২২ আগস্ট, ২০১৯, ৮:৪৮ পিএম says : 1
দয়া করে এদের জংগী উপাধী দিবেন না। আমরা যেমন ১৯৭১ পাকিস্তানী গোলামি থেকে মুক্তি পেতে এক সাগর রক্ত বিনিময় দিতে হয়েছে। তেমনি তারাও ভারতীয় আগ্রাসন থেকে মুক্তি পেতে আরো বেশি ত্যাগ স্বীকার করতে হচ্ছে। ওরা জংগী নয় কাশ্মীরি মুক্তিযোদ্ধা। আল্লাহ তাদের এই ত্যাগের মহিমায় ভারতীয় গোলামী থেকে মুক্ত করে স্বাধীন কাশ্মীর প্রতিষ্টিত হউক।
Total Reply(0)
মোহাঃ জসিম উদ্দীন তালুকদার ২২ আগস্ট, ২০১৯, ৮:৪৮ পিএম says : 1
দয়া করে এদের জংগী উপাধী দিবেন না। আমরা যেমন ১৯৭১ পাকিস্তানী গোলামি থেকে মুক্তি পেতে এক সাগর রক্ত বিনিময় দিতে হয়েছে। তেমনি তারাও ভারতীয় আগ্রাসন থেকে মুক্তি পেতে আরো বেশি ত্যাগ স্বীকার করতে হচ্ছে। ওরা জংগী নয় কাশ্মীরি মুক্তিযোদ্ধা। আল্লাহ তাদের এই ত্যাগের মহিমায় ভারতীয় গোলামী থেকে মুক্ত করে স্বাধীন কাশ্মীর প্রতিষ্টিত হউক।
Total Reply(0)
Md Faruk Hossain ২২ আগস্ট, ২০১৯, ১১:০১ পিএম says : 1
Please don't write terrorist.They’re freedom fighters of Kashmi.
Total Reply(0)
মামুন ২২ আগস্ট, ২০১৯, ১০:২৭ পিএম says : 1
আপনাদের মতো সাংবাদিক যে দেশে থাকবে সে দেশে কোনও দিন সঠিক বিচার আশা করা যায় না .আপনারা ই আসল গান্ধার.
Total Reply(0)
All mamun ২২ আগস্ট, ২০১৯, ১০:২৮ পিএম says : 1
আপনাদের মতো সাংবাদিক যে দেশে থাকবে সে দেশে কোনও দিন সঠিক বিচার আশা করা যায় না .আপনারা ই আসল গান্ধার.
Total Reply(0)
md jabed irfan ২৫ আগস্ট, ২০১৯, ২:৪৬ পিএম says : 1
তাদের কে কাশ্মীরি বীর বলবেন দয়া করে জঙ্গী বলবেনা
Total Reply(0)
Ehsan ২৭ আগস্ট, ২০১৯, ৭:১৯ এএম says : 1
তারা সবাই কাশ্মীরি মুক্তিযোদ্ধা
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন