ঢাকা, বৃহস্পতিবার , ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বান্ধবীর সহযোগিতায় গণধর্ষণ

ঢাকায় শিশুসহ শিকার ৬ : আটক ৮

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

এবার রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরে বান্ধবীর সহযোগিতায় গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক কিশোরী। এ ঘটনায় ওই কিশোরীর বান্ধবীসহ তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলায় প্রেমিকাকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে বন্ধুদের নিয়ে ধর্ষণ করানোর ঘটনা ঘটেছে। গাজীপুরের শ্রীপুরে মুখ বেঁধে সাড়ে চার বছরের শিশুকে ধর্ষণ করল চাচা। নেত্রকোনায় মুখে গামছা বেঁধে কিশোরীকে রাতভর ধর্ষণের খবর পাওয়া গেছে। এছাড়া রাজধানীর পল্লবীতে শিশু, চাটমোহরে স্কুলছাত্রী, উলিপুরে ৬ষ্ঠ শ্রেণীর শিক্ষার্থী ও বড়াইগ্রামে ঘুমন্ত গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টার ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এদিকে, পুঠিয়ায় ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে শিক্ষকসহ বিভিন্ন স্থানে ধর্ষণ মামলায় ৮ জনকে আটক করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।
ঢাকা : রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর নবীনগর এলাকায় (১৬) বছরের এক কিশোরীকে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ওই কিশোরীর বান্ধবীসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল বুধবার দুপুরে ওই কিশোরীকে শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হলো-সজিব, মিন্টু এবং ওই কিশোরীর বান্ধবী।
কামরাঙ্গীরচর থানার ওসি এবিএম মশিউর রহমান জানান, গত শুক্রবার রাতে ধর্ষণের শিকার কিশোরীর বান্ধবী তাকে ডেকে নবীনগর এলাকার একটি ফাঁকা বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে সজিব, মিন্টুসহ আরও একজন তাকে গণধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় মঙ্গলবার ওই কিশোরীর পরিবার থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছে। মামলা নম্বর ৩২। পরে সজিব, মিন্টু এবং ওই কিশোরীর বান্ধবীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মামলার অপর এক আসামি পলাতক রয়েছেন। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান ওসি মশিউর।
অন্যদিকে রাজধানীর পল্লবী এলাকা থেকে ১ম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক ছাত্রীকে ধর্ষণে জড়িত অভিযোগে সেলিম ওরফে সেলু নামে একজনকে আটক করে র‌্যাব-৪। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় র‌্যাব-৪ এর একটি দল ১০নং জোটপট্টি রাব্বানী হোটেলের সামনে থেকে সেলুকে আটক করে। সেলু ভিকটিমের সম্পর্কে আপন ফুফাত ভাই।
র‌্যাব-৪ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া কো-অর্ডিনেটর) সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাজেদুল ইসলাম সজল জানান, অভিযুক্ত সেলিম ওরফে সেলু বিভিন্ন অজুহাতে নিজ বাসায় নাবালিকা মামাতো বোনকে ডেকে নিয়ে বিগত প্রায় ১৫ দিন যাবৎ সুকৌশলে আসামি ভিকটিমকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে ধর্ষণসহ বিভিন্ন অশ্লীল, অপকর্ম করে আসছিলেন। এই বিষয়ে ভিকটিমের বাবা র‌্যাব-৪ এর অধিনায়ক বরাবর অভিযোগ দায়ের করে। পরে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
গাজীপুর : গাজীপুরের শ্রীপুরে আপন চাচা মুখ বেঁধে সাড়ে চার বছরের এক শিশু মেয়েকে ধর্ষণ করেছে। গুরুতর অবস্থায় মেয়েটিকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
শিশুর বাবা জানান, তার মেয়েকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না জেনে তিনিসহ তার স্ত্রী কর্মস্থল থেকে দুপুরেই বাড়ি ছুটে যান। ব্যাপক খোঁজাখুঁজির পর দুপুর ২টার দিকে পাশের গড়গড়িয়া মাস্টারবাড়ি এলাকায় ঢাকা ও ময়মনসিংহ মহাসড়কের পশ্চিম পাশে একটি সেতুর কাছে ঝোপের ভেতর পাওয়া যায় তাদের। ওই সময় বিবস্ত্র অবস্থায় তার মেয়ের মুখ বাধা ছিল। তাকে দেখে তার ছোট ভাই ছুটে পালিয়ে যায়।
পাবনা : পাবনার চাটমোহরে এক স্কুলছাত্রী (১৪) সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছে। গত মঙ্গলবার চাটমোহর থানায় গণধর্ষণের মামলাটি রেকর্ড হবার পর পুলিশ অভিযানে নেমে আরিফ হোসেন (২২) নামের এক যুবককে আটক করে। আটককৃত আরিফ উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের কলাপাড়া গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে।
নেত্রকোনা : নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার রামপুর বাজারে। এ ঘটনায় নির্যাতনের শিকার মেয়েটি বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছে। পুলিশ ইতোমধ্যে মামলার তিন আসামিকেই গ্রেফতার করেছে। গতকাল বুধবার তাদের আদালতে পাঠানো হয়েছে।
সাতক্ষীরা : সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলায় প্রেমিকাকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে বন্ধুদের নিয়ে ধর্ষণ করানোর ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় কথিত প্রেমিকসহ দুই ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার সন্ধ্যায় গোবরাখালী গ্রাম থেকে তাদের আটক করা হয়।
গ্রেফতার ধর্ষক দুজন হলো, আবু সুফিয়ান (২৭) উপজেলার গোবরাখালী গ্রামের আছাফুর সরদারের ছেলে ও একই গ্রামের শিক্ষক মোশারফের ছেলে জিল্লুর রহমান (২৮)। মেয়েটিও একই গ্রামের বাসিন্দা।
উলিপুর (কুড়িগ্রাম) : কুড়িগ্রামের উলিপুরে হত-দরিদ্র পরিবারের ৬ষ্ট শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ উঠেছে। থানায় অভিযোগ দাখিলের ৫ দিন পেরিয়ে গেলেও পুলিশ মামলা গ্রহন করেনি। অভিযোগ উঠেছে, যৌন নিপিড়নের মতো স্পর্শকাতর ঘটনা ধামাচাপা দিতে পুলিশ রহস্যজনক নিরবতা পালন করছে। এদিকে থানায় লিখিত অভিযোগ করায় ভূক্তভোগী ঐ পরিবারটি চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছেন।
শিশুটির বাবা আজাদ মিয়া কান্নাজড়িত কন্ঠে সাংবাদিকদের বলেন, হাসেন আলী এমন ঘটনা ঘটালো যা মেনে নিতে কষ্ট হচ্ছে। তিনি এ ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। এ বিষয়ে তদন্তকারী কর্মকর্তা এস.আই হাসান ফারুক বলেন, অভিযোগ করেছে তবে এজাহার করেনি। এ কারণে মামলা নেয়া সম্ভব হচ্ছে না।
বড়াইগ্রাম (নাটোর) : নাটোরের বড়াইগ্রামে নিজ ঘরে ঘুমন্ত গৃহবধ‚কে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার কুমরুল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় গত মঙ্গলবার রাতে বড়াইগ্রাম থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।
পুঠিয়া (রাজশাহী) : পুঠিয়ায় ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ মাজেদুর রহমান (৪২) নামের এক শিক্ষককে আটক করেছে পুঠিয়া থানা পুলিশ। গত মঙ্গলবার দিবাগত রাত্রি সাড়ে ৯টার সময় উপজেলার বাশ্বের ইউনিয়নের রঘুরামপুর তার বাড়ি থেকে আটক করা হয়। আটক মাজেদুর রহমান রঘুরামপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক এবং ওই গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা রহমতউল্লার ছেলে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (8)
Abdul Mannan ১৭ অক্টোবর, ২০১৯, ১:৪১ এএম says : 0
ধিক্কার জানানোর মতো কোনো ভাষাই খুঁজে পাচ্ছি না, তাই সমস্ত দেশবাসীর কাছে একটি আকুল আবেদন এই যে আপনারা এই বিষয়গুলোর প্রতি গুরুত্ব দিন এবং রুখে দারান,প্রকৃত দোষীদের পৃথিবী কাঁপানো শাস্তি প্রদান করা হোক এটাই কামনা
Total Reply(0)
Asish Mondal ১৭ অক্টোবর, ২০১৯, ১:৪১ এএম says : 0
এদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করছি,
Total Reply(0)
AJ M Saifur Rahman ১৭ অক্টোবর, ২০১৯, ১:৪২ এএম says : 0
কি যে শুরু হয়েছে বাংলাদেশে
Total Reply(0)
Kabir Humayun ১৭ অক্টোবর, ২০১৯, ১:৪৩ এএম says : 0
সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধি ও অপরাধীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে ,তাহলেই মহামারী আকার থেকে এটা নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব। কোন দেশ ই এটা চিরতরে বন্ধ করতে পারে নাই হয়তোবা সম্ভব ও নয়।
Total Reply(0)
শফিক রহমান ১৭ অক্টোবর, ২০১৯, ১:৪৩ এএম says : 0
কর্মক্ষেত্রে, পরিবহনে, স্কুল, মাদ্রাসায় এমন কি কোচিং সেন্টারেও নারীর শীলতাহানী করা হচ্ছে। ধর্ষণের পর হত্যাও করা হচ্ছে। এ সকল ঘটনায় অনেক ক্ষেত্রেই পুলিশ অভিযোগ নিতে টালবাহানা করে। অন্যদিকে স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তিরা সালিশের নামে অভিযুক্তকে রক্ষা করার চেষ্টা করে।
Total Reply(0)
Sabbir Ahamed ১৭ অক্টোবর, ২০১৯, ১:৪৩ এএম says : 0
বিচারহীনতা বন্ধ হলেই এইগুলোও বন্ধ হয়ে যাবে।
Total Reply(0)
কাবাতুল্লাহ ১৭ অক্টোবর, ২০১৯, ১:৪৩ এএম says : 0
দেশে প্রতিদিনই এমন বর্বরতার ঘটনা ঘটছে। আল্লাহ তায়ালা কি আমাদের ‍মুক্তি দেবে না।
Total Reply(0)
মজলুম আহমেদ ১৭ অক্টোবর, ২০১৯, ৬:১৬ পিএম says : 0
যেখানে-সেখনে নারীদে যাওয়া অনুচিৎ। নিরাপত্তা ও ইজ্জাতের কথা বিবেচনা করেই চলতে হবে। অন্যথায় বিপদ, ইজ্জাত ও জান হারাতে হবে। ইসলামেই শান্তি।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন