ঢাকা বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮ আশ্বিন ১৪২৭, ০৫ সফর ১৪৪২ হিজরী

শিক্ষাদিক্ষা

জাবি ভিসির অপসারণ দাবিতে আবারও বিক্ষোভ

৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে ভিসি অপসারণ না হলে কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি

জাবি সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৬:৫২ পিএম

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) ভিসি অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’র ব্যানারে আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। বুধবার দুপুর একটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদ ভবনের সামনে থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক ও একাডেমিক ভবন প্রদক্ষিণ করে মুরাদ চত্বরে গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হয়। সমাবেশে বক্তারা ভিসির বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগের সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে বিচার নিশ্চিত করা ও আন্দোলনকারীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলায় মদদের অভিযোগে তার অপসারণ দাবি করেন।

সমাবেশে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট জাবি শাখার দফতর সম্পাদক রেবেকা আহমেদ বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন প্রকল্পের অপরিকল্পনা ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমরা দীর্ঘদিন আন্দোলন করে আসছি। চলমান প্রকল্পের অধীন ছাত্রীদের তিনটি হলের কাজের সাথে সিডিউলের প্রায় ১৪ কোটি টাকার হিসেব মিলছে না। এসবের বিরুদ্ধে আমাদের নৈতিক ও যৌক্তিক আন্দোলনে ছাত্রলীগের হামলার বিচার এখনো হয়নি। তাই আমাদের দাবি, ভিসিকে অপসারণের মধ্য দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুর্নীতির পথ বন্ধ করা হোক।’

বাংলা বিভাগের অধ্যাপক শামীমা সুলতানা বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বার্থে মহাপরিকল্পনার কাজ যেন সুষ্ঠু ও স্বচ্ছভাবে সম্পন্ন হয় এ দাবিতেই আমরা আন্দোলন শুরু করি। এখন দেখা যাচ্ছে, কেমন অব্যবস্থাপনার মধ্য দিয়ে মহাপরিকল্পনার কাজ চলছে। ভিসি স্বেচ্ছাচারিতার মধ্য দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনার চেষ্টা করছেন।’

আন্দোলনের সমন্বয়ক অধ্যাপক রায়হান রাইন বলেন, ‘জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় স্বায়ত্ত্বশাসনের মর্যাদা ভিসি নষ্ট করেছেন। তিনি হল খোলার বিষয়ে সরকারের কাছে অনুমতি চান। একইভাবে তিনি পদত্যাগ করবেন কিনা সে ব্যাপারেও সরকারের সাথে কথা বলেন। অর্থাৎ তিনি প্রতিটি ক্ষেত্রে উচ্চপদস্থদের হস্তক্ষেপ কামনা করে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বায়ত্ত‌্শাসন নষ্ট করছেন। ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে এই ভিসি অপসারণ না হলে কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে।’

সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের জাবি শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক শোভন রহমানের সঞ্চালনায় সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন, ছাত্র ইউনিয়নের কার্যকরী সদস্য রাকিবুল হক রনি, জাহাঙ্গীরনগর সাংস্কৃতিক জোটের সহ-সভাপতি ওয়াসিম সাজ্জাদ, বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের সদস্য ইকবাল হোসাইন প্রমুখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন