ঢাকা, বুধবার, ০৮ জুলাই ২০২০, ২৪ আষাঢ় ১৪২৭, ১৬ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

৩৫ বছরে ইনকিলাব

এ এম এম বাহাউদ্দীন | প্রকাশের সময় : ৪ জুন, ২০২০, ১২:০০ এএম | আপডেট : ১০:৪৪ এএম, ৪ জুন, ২০২০

আলহামদুলিল্লাহ। দৈনিক ইনকিলাব ৩৫ বছরে পদার্পণ করল। প্রথমেই কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি মহান আল্লাহর প্রতি। এদিনে ইনকিলাবের সাংবাদিক-কর্মচারী, পাঠক, বিজ্ঞাপনদাতা ও শুভানুধ্যায়ী সকলকে অভিনন্দন। সবার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় নানা সমস্যা ও প্রতিবন্ধকতা অতিক্রম করে ইনকিলাব এতদূর এসেছে। সময়ের প্রয়োজনে ইনকিলাব প্রতিষ্ঠা করেন আমার আব্বা আলহাজ্ব মাওলানা এম এ মান্নান (রহ.)। প্রথম প্রকাশিত হয় ১৯৮৬ সালের ৪ জুন। আমি মহান আল্লাহর প্রতি আবারো কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি এই জন্য যে, দীর্ঘপথ-পরিক্রমায় ইনকিলাব এখন শুধু একটি পত্রিকা নয়, লাখো মানুষের কণ্ঠস্বর।

ইনকিলাবের এই দীর্ঘ চলার পথ মোটেও কুসুমাস্তীর্ণ ছিল না। চলার পথে নানান সঙ্কট ও বাধা এসেছে; কিন্তু দমে যায়নি। দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব এবং গণমানুষের স্বার্থের পক্ষে থেকেই স্বকীয়তা বজায় রেখে এগিয়ে চলছে নিরলসভাবে। ইনকিলাব যেমন দেশের তৌহিদী জনতাকে নতুন আলোর দিশা দেখিয়েছে; তেমনি সব শ্রেণীর মানুষ এবং পাঠকদের নিজ নিজ ধর্মীয় চেতনাকে শাণিত করেছে। তবে এটা ঠিক, ইনকিলাব সব সময় ইসলামবিদ্বেষীদের আস্ফালনের লাগাম টেনে ধরার চেষ্টা করেছে রক্তচক্ষু উপেক্ষা করেই।

‘শুধু দেশ ও জনগণের পক্ষে’ শ্লোগান নিয়ে ইনকিলাব এগিয়ে চলছে। তখন প্রিন্ট মিডিয়ায় প্রযুক্তি এখনকার মতো উন্নত ছিল না। তবুও প্রতিষ্ঠার সময়েই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে সর্বোচ্চ প্রযুক্তির মেশিন এনে ছাপাখানা করা হয়েছিল। ইনকিলাব প্রতিষ্ঠার কিছুদিন পর ইংরেজি দৈনিক ‘ডেইলি টেলিগ্রাফ’ প্রকাশ করা হয়। সেখানে সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন, আমানুল্লাহ কবীর, রিয়াজ ভাই (রিয়াজ উদ্দিন আহমদ)-এর মতো প্রখ্যাত সাংবাদিক কাজ করেছেন। অবশ্য রাজনৈতিক কারণে টেলিগ্রাফের প্রকাশনা অব্যাহত রাখা সম্ভব হয়নি। সে অন্য প্রসঙ্গ।

বলছিলাম ইনকিলাব প্রতিষ্ঠার কথা। ইনকিলাব দেশের সংবাদপত্র শিল্পে নতুন ধারার সূচনা করেছে। দৈনিক পত্রিকায় সাহিত্য পাতা থাকলেও খেলাধুলার খবর খুব কমই গুরুত্ব পেতো। ক্রীড়াপ্রেমীদের জন্য দৈনিক ইনকিলাব ১৯৮০-এর দশকে পুরো পৃষ্ঠার ক্রীড়া বিভাগটি চালু করে। প্রতিদিন পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের সময়সূচি প্রকাশ এবং রমজান মাসে ইফতার-সেহরির সময়সূচি প্রকাশ করে। কয়েক বছর থেকে অন্যান্য পত্রিকা তা অনুসরণ করছে। ডে ইভেন্টকে বিভাগওয়ারি প্রকাশ যেমন- বাংলাদেশ, মহানগর, প্রতিদিন, আন্তর্জাতিক, ইসলামী জীবন, অভ্যন্তরীণ, বিনোদন প্রতিদিন, ব্যবসা-বাণিজ্য, শিক্ষা, মহিলা বিভাগ চালু করে। ইনকিলাব প্রথম কৃষকদের খবরাখবর প্রকাশের জন্য ক্ষেতখামার এবং চিকিৎসার খবরাখবর প্রচারের জন্য স্বাস্থ্য বিভাগ চালু করে।
জন্মলগ্ন থেকেই দেশের রাজনীতি, অর্থনীতি, সমাজনীতি, বিশ্ব রাজনীতি, সার্বভৌমত্ব, স্বকীয়তা যা কিছু দেশের মানুষ ও জনগণের জন্য মঙ্গলজনক, সে পথে থেকে সংবাদ পরিবেশন করছে ইনকিলাব। শতকরা ৯২ ভাগ মুসলমানের ভ্যানগার্ড হিসেবে পরিচিতি পেলেও ইনকিলাব সব ধর্ম-বর্ণ-গোত্র এবং সব শ্রেণী-পেশার মানুষের পক্ষে থেকেছে অবিচল; খবর প্রচারে থেকেছে নিরপেক্ষ। ইনকিলাব প্রতিষ্ঠা হয় মূলত দেশ ও জনগণের সেবা করার প্রেরণা থেকে। নানান সঙ্কট ও বাধা-বিপত্তির মধ্যেও এখনো তা অব্যাহত রয়েছে। গত কয়েক বছরে দেশে সংবাদপত্র তথা মিডিয়া জগতে বিপ্লব ঘটে গেছে। আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে অসংখ্য পত্রিকা এবং অন্যান্য মিডিয়া প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। অধিকাংশ মিডিয়া কর্পোরেট হাউসের অধীনে পরিচালিত হওয়ায় তাদের অর্থনৈতিক নিরাপত্তা মজবুত। কিন্তু ইনকিলাব অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি আনতে কখনো ব্যবসা-বাণিজ্য ঢাল-তরবারি হিসেবে ব্যবহার করেনি; মানুষের অধিকার আদায়ের পক্ষে কথা বলেছে। প্রতিযোগিতার বাজারে এ জন্য বিভিন্ন সময় আর্থিক সঙ্কটে পড়তে হয়েছে; কিন্তু থেমে থাকেনি, সব বাধা অতিক্রম করে আপোষহীনভাবেই এগিয়ে চলেছে। বিশ্বের অধিকাংশ দেশেই এখন সাংবাদিকতা ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে গেছে। এর মধ্যে অদৃশ্য করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব সব কিছুকেই কঠিন করে তুলেছে। প্রতিকূলতার কারণে বিশ্বের প্রভাবশালী অনেক গণমাধ্যম বন্ধ হয়ে গেছে। কিন্তু নানা সীমাবদ্ধতা, আর্থ-সামাজিক টানাপেড়েন, সংবাদপত্রশিল্পে অস্থিরতা এবং রাজনৈতিক অনিশ্চয়তার দোলাচলের মধ্যেই এগিয়ে যাচ্ছে ইনকিলাব। দেশের সার্বভৌমত্ব, জাতীয় স্বার্থ আর গণমানুষের ন্যায়সঙ্গত অধিকারের পক্ষে সোচ্চার ভূমিকা পালন করে ইনকিলাব এখন পাঠকদের কাছে আরো আকর্ষণীয় হয়ে উঠেছে। সকালে ইনকিলাব না পড়ে নাস্তার টেবিলে যেতে পারেন না এমন পাঠকের সংখ্যা দেশে কম নয়।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম শক্তিশালী হওয়ায় মিডিয়া জগতে চলছে প্রতিযোগিতা। খবরের জন্য ২৪ ঘণ্টা অপেক্ষা নয়; অনলাইন মিডিয়ার বদৌলতে ঘণ্টায় ঘণ্টায় খবর পাচ্ছেন পাঠক। এজন্য ইনকিলাবের ডিজিটাল ভার্সন হয়ে যায় অত্যাবশকীয়। সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে কাগজের প্রিন্ট পত্রিকার সঙ্গে প্রতিদিন অনলাইন সংস্করণ প্রকাশ করা হচ্ছে। আমাদের অনলাইনের খবর পৃথিবীর পূর্ব-পশ্চিম-উত্তর-দক্ষিণ সব গোলার্ধের দেশেই পাঠকদের কাছে সমানভাবে সমাদৃত হচ্ছে। একঝাঁক তরুণ, দক্ষ ও মেধাবী সংবাদকর্মীর পাশাপাশি নব্বই ঊর্ধ্বে বয়সী ভাষা সৈনিক জ্ঞানতাপস অধ্যাপক আবদুল গফুর, মাওলানা রূহুল আমীন খান, মোবায়েদুর রহমানের মতো প্রবীণ সাংবাদিকগণ কাজ করছেন ইনকিলাবে।

ইনকিলাব সব পাঠকের পত্রিকা। সম্পাদকীয় নীতির প্রশ্নে আপোষহীন থেকেই ‘খবর’ প্রচার করছে। প্রতিদিনের খবরে বিশ্ব রাজনীতি, অর্থনীতি, ভূ-রাজনীতি, সংস্কৃতি, প্রবন্ধ-নিবন্ধ, মতামত, বিশ্লেষণ, তথ্য-প্রযুক্তি, আন্তর্জাতিক ঘটনাবলীর খবরাখবর তুলে ধরেছে সব শ্রেণীর পাঠকের জন্য।

প্রতিষ্ঠার পর থেকে চিন্তা-চেতনায়, কর্মে পরিবর্তিত বিশ্ব ও বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে যা কিছু সত্য, সুন্দর, ভালো, মহৎ, জনকল্যাণকর এবং দেশ-জনগণের পক্ষে সেগুলো তুলে ধরছে ইনকিলাব। ইসলামী মূল্যবোধের ব্যাপারে আপস না করেও ইনকিলাব সব ধর্ম তথা হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টানসহ সকল ধর্মাবলম্বী মানুষের অধিকার, মত-পথকে সমান গুরুত্ব দিয়েছে। ইসলামী চেতনা লালন করেও গোড়ামিকে প্রশ্রয় দেয়নি; ইনকিলাবই প্রথম জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে জনমত গঠনে সম্পাদকীয় নীতি গ্রহণ করে। তবে এটা ঠিক আধুনিক শিক্ষার সঙ্গে মাদরাসা শিক্ষাকে তাল মিলিয়ে চলতে বিষয়ভিত্তিক পাঠ্য পুস্তকে সংস্কার, আনার ক্ষেত্রে জনমত সৃষ্টিতে কাজ করছে নিরলসভাবে। এতে করে দেশের তথাকথিত কিছু প্রগতিশীল মাদরাসা শিক্ষার বিরুদ্ধে অবস্থান গ্রহণ করে ‘মাদরাসা জঙ্গি তৈরির কারখানা’ অপপ্রচার করে। ইনকিলাব তাদের মুখোশ খুলে দেয়। পরবর্তীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, তৎকালীন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, অনেক মন্ত্রী, পুলিশ বাহিনীর প্রধানসহ বিশিষ্টজনেরা বক্তব্য দেন যে ‘জঙ্গির সঙ্গে মাদরাসা শিক্ষার কোনো সম্পর্ক নেই। বরং ইংরেজি মাধ্যম ও আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিতদের মধ্যে জঙ্গি বেশি। এতোসব প্রতিকূলতার মধ্যেও ইনকিলাব সত্যনিষ্ঠ খবরের পাশাপাশি বিজাতীয় সংস্কৃতির আগ্রাসনের বিরুদ্ধে সোচ্চার থেকে এবং ইসলামী আকিদায় সমাজ বিনির্মাণে দেশের মানুষকে উদ্বুদ্ধ করে চলেছে।

আমি বিশ্ববিদ্যালয়ের লেখাপড়া শেষ করেই ইনকিলাবের সম্পাদক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করি। দেশের সবচেয়ে কম বয়সী সম্পাদক হিসেবে তখন থেকেই দেশের বহু প্রবীণ সাংবাদিক, জ্ঞানী-গুণীজন, লেখক-বুদ্ধিজীবী-ইসলামী চিন্তাবিদ-পীর-মাশায়েখের সহযোগিতা লাভ করেছি। তাদের সহযোগিতা ইনকিলাবকে সামনে এগিয়ে নিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছে। সেই বিশিষ্টজনদের অনেকেই ইন্তেকাল করেছেন, অনেকেই এখনো বেঁচে রয়েছেন। যারা ইন্তেকাল করেছেন আল্লাহ তাদের বেহেস্ত নছিব করুন; যারা রয়েছেন তাদের সকলকে মোবারকবাদ জানাচ্ছি। পরিশেষে, আবারো ইনকিলাবে এখনো যারা কর্মরত রয়েছেন, তারাসহ পাঠক বিজ্ঞাপনদাতা ও শুভাকাক্সক্ষীদের অভিনন্দন জানাই।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (43)
Fazlul Haque ৪ জুন, ২০২০, ১২:৫৩ এএম says : 0
আলহামদুলিল্লাহ। ইসলামি তাহজিব তামাদ্দুন রক্ষার মুখপত্র দেশের শীর্ষস্থানীয় দৈনিক ইনকিলাবের জন্য রইল শুভ কামনা।
Total Reply(0)
সাইফুল ইসলাম চঞ্চল ৪ জুন, ২০২০, ১২:৫৩ এএম says : 0
প্রিয় পত্রিকা ইনকিলাবের জণ্য শুভকামনা রইল।
Total Reply(0)
আবদুর রহমান ৪ জুন, ২০২০, ১২:৫৩ এএম says : 0
ইনকিলাবকে আন্তরিক অভিনন্দন " এগিয়ে যাউ ইনকিলাব
Total Reply(0)
তাসফিয়া আসিফা ৪ জুন, ২০২০, ১২:৫৪ এএম says : 0
কলকাতার হিন্দুত্ববাদী সংস্কৃতির দৌরাত্ম্যে দেশের আলেম সমাজের সম্মানবোধ নিয়ে বেঁচে থাকা যখন দূরূহ, দিশাহীন আলেম সমাজ নীরব দর্শকের ভূমিকায় অবতীর্ণ; তখন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের-‘বলাকা’ কবিতার ‘ওরে সবুজ, ওরে অবুঝ, ওরে আমার কাঁচা/আধমরাদের ঘা মেরে তুই বাঁচা’-এর মতোই ইনকিলাব ঘুমন্ত আলেম সমাজকে ঝাঁকুনি দিয়ে জাগিয়ে তোলে। দিশা ফিরে পায় আলেম সমাজ। আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভকামনা রইলো ইনকিলাবের জন্য।
Total Reply(0)
জোবায়ের আহমেদ ৪ জুন, ২০২০, ১২:৫৬ এএম says : 0
আলহামদুলিল্লাহ, ইনকিলাবের সফল পথচলায় নিজেকে আনন্দিত মনে করছি। ইনকিলাব আমার প্রাণের পত্রিকা, ভালোবাসার পত্রিকা। কারণ বিগত শতকের আশির দশকে দেশের সংবাদপত্র শিল্পে ছিল সঙ্কটময় মুহূর্ত। মুসলমানের দেশে মাদরাসা শিক্ষা কার্যত এতিমের মতো খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে চলত। প্রগতিশীলতার নামে দেশে বল্গাহীন ঘোড়ার মতো মিডিয়া জগতে দাপিয়ে বেড়াত ইসলামবিদ্বেষী চেতনা। একদিকে ইসলামবিদ্বেষ; মাদরাসা শিক্ষা ও আলেম-ওলামাদের কোণঠাসা করে রাখা; অন্যদিকে আকাশ সংস্কৃতির নামে দেশকে বিজাতীয় সংস্কৃতিচর্চার উর্বর ভূমিতে পরিণত করা হয়। শিল্প-সংস্কৃতি চর্চার নামে উলঙ্গ নৃত্যের তালে দেশের আলেম-ওলামা-মাদরাসা শিক্ষা, পীর-মশায়েখ-দাড়ি-টুপিকে তুচ্ছজ্ঞান করাই ছিল কিছু শিক্ষিত ব্যক্তির নিত্যচর্চা। দেশের মিডিয়াগুলো সেই স্রোতে গা ভাসিয়ে দেয়। সেই প্রতিকুল সময়ে জন্ম নেয়া দৈনিক ইনকিলাব সত্যনিষ্ঠ খবরের পাশাপাশি বিজাতীয় সংস্কৃতির আগ্রাসনের বিরুদ্ধে ঘুরে দাঁড়িয়ে ইসলামী আকিদায় সমাজ বিনির্মাণে দেশের মানুষকে উদ্বুদ্ধ করেন।
Total Reply(0)
তোফাজ্জল হোসেন ৪ জুন, ২০২০, ১২:৫৭ এএম says : 0
ইসলাম ধর্মের বিষয়ে কোনো আপোষ না করেও প্রতিটি ধর্মের মানুষের মতামতের সমান গুরুত্ব দিয়েছে। ------------ That's why we love The Daily Inqilab
Total Reply(0)
কায়সার মুহম্মদ ফাহাদ ৪ জুন, ২০২০, ১২:৫৭ এএম says : 0
দোয়া করি দৈনিক ইনকিলাব কিয়ামত পর্যন্ত দেশ ও ইসলামের খেদমতে নিয়োজিত থাকুক।
Total Reply(0)
কে এম শাকীর ৪ জুন, ২০২০, ১২:৫৮ এএম says : 0
দৈনিক ইনকিলাবের চিন্তা চেতনা, লক্ষ্য উদ্দেশ্য, অবস্থা অবস্থান এবং দৃষ্টিভঙ্গি অত্যান্ত সুন্দরভাবে তুলে ধরায় প্রিয় সম্পাদককে অসংখ্য ধন্যবাদ।
Total Reply(0)
নাঈম বি এস এল ৪ জুন, ২০২০, ১২:৫৮ এএম says : 0
আলহামদুলিল্লাহ। ইনকিলাব যতদিন তার নীতি নৈতিকতায় অটল থাকবে, ততদিন এদেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানগণ তাদের পাশে থাকবে।
Total Reply(0)
সেলিম উদ্দিন ৪ জুন, ২০২০, ১২:৫৯ এএম says : 0
ইনকিলাব অন্যায়ের কাছে মাথা নোয়াবার নয়, ইনকিলাব আমাদের অস্তিত্বের সারথী, ইনকিলাব একটি বটবৃক্ষ, বটবৃক্ষ বেঁচে থাকলেই কেবল আমরা তার ছায়া তলে বেঁচে থাকতে পারবো। শুভ কামনা।
Total Reply(0)
তরিকুল ইসলাম ৪ জুন, ২০২০, ১২:৫৯ এএম says : 0
বীরদর্পে এগিয়ে যাক প্রাণের প্রিয় পত্রিকা দৈনিক ইনকিলাব।
Total Reply(0)
শাহাদাত স্বপন ৪ জুন, ২০২০, ১২:৫৯ এএম says : 0
খুবই ভালো খবর। আমি ইসলামের প্রতিনিধিত্ব করায় ইনকিলাব পত্রিকাকে খুবই পছন্দ করি। ইনকিলাবের উত্তরাত্তোর সফলতা কামনা করছি এবং সকলকে অভিনন্দন জাানচ্ছি।
Total Reply(0)
কামাল ৪ জুন, ২০২০, ১:০০ এএম says : 0
অভিনন্দন ইনকিলাব পরিবারকে। সত্য সংবাদ প্রকাশে আরও সক্রিয়তা ও বলিষ্ঠতা কামনা করছি।
Total Reply(0)
নাঈম বি এস এল ৪ জুন, ২০২০, ২:২৮ এএম says : 0
প্রথমেই অভিনন্দন জানাচ্ছি। তিন যুগ আগেও দেশের ইসলামী স্কলার ও আলেম-ওলামার কথা বলা এবং মত প্রকাশের মিডিয়া (প্লাটফর্ম) ছিল না। ইনকিলাবের জন্ম শুধু সেই অভাব পূরণই করেনি; সাথে দেশের মাদরাসা শিক্ষা ব্যবস্থায় বিপ্লব ঘটিয়েছে। মাদরাসা শিক্ষা এখন ইংরেজি ও বাংলা মাধ্যমের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এগিয়ে চলছে। হাজারো গণমাধ্যমের ভিড়ে ইসলামী মূল্যবোধ তুলে ধরার চ্যালেঞ্জ নিয়েই ইনকিলাব পাঠকদের উদ্বুদ্ধ করেছে। এখন সাধারণ মানুষ তো বটেই; দেশের তরুণ-তরুণী, যুবক-যুবতীরাও ইসলামী চেতনায় নিজেদের গড়ে তুলতে প্রয়াস পাচ্ছেন।
Total Reply(0)
Mohammed Zakir Congratulation ৪ জুন, ২০২০, ৮:২০ এএম says : 0
35 years the inquilab newspaper আশা করব সামনের দিনের সঠিক এবং সততা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ উপস্থাপক করবেন ধন্যবাদ
Total Reply(0)
Khalilur Rahman ৪ জুন, ২০২০, ৮:২১ এএম says : 0
ইনকিলাব পত্রিকার কথা বল্লেই চাঁদপুরের কৃতি সন্তান সাবেক ধর্মমন্ত্রী মাওলানা আব্দুল মান্নান সাহেবের কথা মনে পড়ে ।আললাহ তাঁকে জান্নাতের উঁচু মাকান দান করুন । "আমিন "
Total Reply(0)
Md Anamul Haque ৪ জুন, ২০২০, ৮:২১ এএম says : 0
আলহামদুলিল্লাহ । শুভকামনা।
Total Reply(0)
Md Amin Uddin ৪ জুন, ২০২০, ৮:২১ এএম says : 0
অভিনন্দন দীর্ঘ এই পথ চলায়।
Total Reply(0)
Shahead Ahmed ৪ জুন, ২০২০, ৮:২১ এএম says : 0
ইসলাম ও বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদের পক্ষের প্রত্রিকা,, অভিনন্দন
Total Reply(0)
Gazi Bashir Ahmed ৪ জুন, ২০২০, ৮:২২ এএম says : 0
মোটামুটি 35 বছর ধরেই ইনকিলাব পড়ি। মোবায়েদুর রহমান, হারুনুর রশিদের লেখা গুলো পড়ি।
Total Reply(0)
Mamun Rashid ৪ জুন, ২০২০, ৮:২২ এএম says : 0
অভিনন্দন। আমার খুব প্রিয় একটি পত্রিকা সব সময় ইসলামিক খবর ও মুসলিম বিশ্বের খবর প্রচার করে
Total Reply(0)
Sahabur Rahman ৪ জুন, ২০২০, ৮:২২ এএম says : 0
অভিনন্দন প্রিয় ইনকিলাব সাথে ছিলাম সাথে আছি সাথে থাকবো।
Total Reply(0)
Belal Ahmad ৪ জুন, ২০২০, ৮:২২ এএম says : 0
ধন্যবাদ দৈনিক ইনকিলাবকে সত্য প্রকাশে এক ধাপ এগিয়ে থাকায়, তবে ইসলামের খেদমত আরো বেশি করতে হবে।
Total Reply(0)
saif ৪ জুন, ২০২০, ৯:৩৬ এএম says : 0
অভিনন্দন ইনকিলাব সংশ্লিষ্ট সকলকে
Total Reply(0)
Mamun Rashid ৪ জুন, ২০২০, ১২:৩৯ পিএম says : 0
অভিনন্দন। আমার খুব প্রিয় পত্রিকা। নিয়মিত পড়ি।
Total Reply(0)
Md.Kamrul Islam ৪ জুন, ২০২০, ৯:২৮ এএম says : 0
অসংখ্য শুভকামনা রইল জাতীয় পত্রিকা ইনকিলাবের জন্য। সামনের বছর গুলোতে যেন আরও ভাল কিছু উপহার দিতে পারে সে জন্য রইল অসংখ্য শুভেচ্ছা। আমাদের জন্য সরকারি চাকরির খবর পোস্ট কইরেন।
Total Reply(0)
Ahmed ৪ জুন, ২০২০, ৯:৫৫ এএম says : 0
35 বছরে পদার্পন করায় ইনকিলাবকে আন্তরিক অভিনন্দন। আশা করি ইসলাম প্রতিষ্ঠায় ইনকিলাব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। আলেম সমাজের ঐক্য গঠনে অগ্রনী ভূমিকা পালন করবে। জনগনের কথা বলবে। ইনকিলাব চিরজীবি হোক।
Total Reply(0)
Asifa Khanom Ayesha ৪ জুন, ২০২০, ১২:৪০ পিএম says : 0
অভিনন্দন আপনাদের।আপনাদের ওয়েবপেইজের design খুব সুন্দর ।ভাল লাগে
Total Reply(0)
ইনকিলাব জিন্দা বাদ। ৪ জুন, ২০২০, ১২:৩৮ পিএম says : 0
ইনকিলাব জিন্দাবাদ।
Total Reply(0)
Alamin Marine ৪ জুন, ২০২০, ১২:৩৮ পিএম says : 0
১৯৯৬ সাল থেকে নিয়মিত চোখবুলাই
Total Reply(0)
Bely Rahman ৪ জুন, ২০২০, ১২:৩৮ পিএম says : 0
অভিনন্দন,,,, , শুভ কামনা রইলো দি ডেইলি ইনকিলাবের জন্য ।
Total Reply(0)
Jabair Ahammad ৪ জুন, ২০২০, ১২:৩৯ পিএম says : 0
মাওলানা আব্দুল মান্নান সাহেবর জন্য দোআ করি আল্লাহ তাকে জান্নাতের সুউচ্চু মকাম দান করুন আর সাথে সাথে বাহাউদ্দিনের জন্য শুভ কামনা করছি।
Total Reply(0)
Kamrul Mohammad ৪ জুন, ২০২০, ১২:৩৯ পিএম says : 0
৩৫ বছরে ইনকিলাব এর জন্য অসংখ্য শুভকামনা রইল। সামনের বছরগুলোতে যেন আরও ভাল কিছু উপহার দিতে পারে সে জন্য রইল অসংখ্য শুভেচ্ছা। আরো বেশি করে সরকারি চাকরির খবর পোস্ট করবেন। তাতে আমি অনেকটা উপকৃত হব। জয় হোক দৈনিক ইনকিলাব এর।
Total Reply(0)
SA Shabir ৪ জুন, ২০২০, ১২:৪০ পিএম says : 0
অভিনন্দন। আশা করি সবসময় সঠিক খবর ও দেশের দুর্নীতি সম্পর্কে সোচ্চার হবেন।
Total Reply(0)
ম নাছিরউদ্দীন শাহ ৪ জুন, ২০২০, ২:৫৪ পিএম says : 0
ইনকিলাব বাংলাদেশের কোটি কোটি তৌহিদী মুসলিম জনগোষ্ঠীর প্রীয় পত্রিকা সত‍্য ন‍্যায়ের আলোর পথের দিশারী মৌলানা হয়রত আব্দুল মান্নান সাহেবের আদশ‍্য দিন ইসলামের বাগিছা। আল্লাহ্ সম্পাদক ও সম্পাদকীয় মন্ডলীর সদস্য সহ উক্ত পত্রিকার সম্মানিত জাতীয় ও আন্তর্জাতিক মানের সাংবাদিক কলা কৌশলী বিজ্ঞ আলেমদিন অত্যন্ত সম্মানিত ইসলামের খাদেম গন সবাই কে তিন যুগের সুচনার দ্বারপ্রান্তে অভিনন্দন সুভেচ্ছ সালাম। আশাকরি মহান আল্লাহর রহমতে শতাব্দীর পর শতাব্দী ইনকিলাব এগিয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ।
Total Reply(0)
Fokir Ayub Shah ৪ জুন, ২০২০, ৩:৩২ পিএম says : 0
শুভকামনা ও শুভেচ্ছা রইলো।
Total Reply(0)
Belal Hossin ৪ জুন, ২০২০, ৩:৩২ পিএম says : 0
অনেক আগে থেকেই ইনকিলাব পত্রিকা পড়তেছি।ড. এম এ বাশারের হাত ধরে এ পত্রিকার সাথে পরিচয়।
Total Reply(0)
Md Omar Faruk Arif ৪ জুন, ২০২০, ৩:৩২ পিএম says : 0
ভালোবাসায় স্নিগ্ধ ভরা ইনকিলাব
Total Reply(0)
ফজলুল হক ৪ জুন, ২০২০, ৪:২৩ পিএম says : 0
দৈনিক ইনকিলাবের প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই আমি এই পত্রিকার নিয়মিত পাঠক। প্রতিদিন এটা না পড়লে মনে হয় যেন দিন অসম্পূর্ণ থেকে গেলো। ইনকিলাব পড়া আমার দৈনন্দিন কাজের মত হয়ে গেছে। আজ দৈনিক ইনকিলাব ৩৫ বছরে পদার্পণ করল। পত্রিকা সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি রইলো অনেক দোয়া ও ভালোবাসা....
Total Reply(0)
শামসুল হক শারেক ৪ জুন, ২০২০, ৪:২৩ পিএম says : 0
প্রাণঢালা শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন প্রিয় দৈনিক ইনকিলাবকে।
Total Reply(0)
সাব্বির আহমেদ বাবু ৪ জুন, ২০২০, ৯:১৬ পিএম says : 0
দৈনিক ইনকিলাব সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন সাহেবের দীর্ঘায়ু কামনা করছি
Total Reply(0)
আবদুল কাদের ৪ জুন, ২০২০, ৯:৩১ পিএম says : 0
দৈনিক ইনকিলাবের ৩৫ বছরে পদার্পণকালে এই দোয়া করছি যে, আল্লাহ যেন তাদের এই পথ চলাকে আরও সুগম করে দেন
Total Reply(0)
Md. Nur Karim ৫ জুন, ২০২০, ১২:০২ এএম says : 0
Go ahead
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন