ঢাকা বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

বাড়িঘর ভাঙচুর-লুটপাট

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বৃদ্ধের রহস্যজনক মৃত্যু

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০২ এএম

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলায় এক বৃদ্ধের মৃত্যু নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। অভিযোগ উঠেছে, প্রতিপক্ষকে মামলায় ফাঁসাতে বৃদ্ধের মাদকাসক্ত ছেলে রুবেল মিয়া নিজেই তার বাবা মতি ভূইয়াকে (৬০) পিটিয়ে হত্যা করেছেন। ঘটনার পর থেকে ওই পক্ষের লোকজন বাড়ি ছাড়া। এই সুযোগে আসামি পক্ষের লোকজনদের বাড়ি ভাঙচুর ও লুটপাট চালানো হয় বলে অভিযোগ রয়েছে।

জানা গেছে, গত ২৩ সেপ্টেম্বর দুপুরে উপজেলার সিঙ্গারবিল ইউনিয়নের শ্রীপুর গ্রামের বাসিন্দা বৃদ্ধ মতি ভূইয়ার মৃত্যু হয়। তার পরিবারের অভিযোগ, প্রতিবেশি জামির হোসেন ও রহিম মিয়ার সাথে পূর্ববিরোধের জেরে তারা মতিকে পিটিয়ে হত্যা করেছেন। এই অভিযোগ মিথ্যা দাবি করে মতির মাদকাসক্ত ছেলে রুবেলই তাকে মেরেছেন বলে পাল্টা অভিযোগ করছেন জামির ও রহিম।
বৃদ্ধ মতি হত্যাকান্ডের ঘটনায় গত ২৪ সেপ্টেম্বর তার ছেলে মো. রাকিব বাদী হয়ে জামির ও রহিমসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর আসামি পক্ষের লোকজন বাড়ি ছেড়ে যান। এ সুযোগে রহিমের বাড়ির ২টি ঘর এবং জামিরের একটি ঘরে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও লুটপাট করা হয়। নাম প্রকাশ না করার শর্তে নিহত মতি ভূইয়ার কয়েকজন প্রতিবেশি জানান, রুবেল দীর্ঘদিন ধরে মাদকাসক্ত। এ নিয়ে তার বাবার সাথে প্রায়ই ঝগড়া হতো। ইতোপূর্বে রুবেল তার বাবার গায়েও হাত তুলেছে। গত ২৪ সেপ্টেম্বর দুপুরে রুবেলই মাদকসংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বাকবিতন্ডার জেরে তার বাবাকে পিটিয়ে হত্যা করেছে। তবে রুবেল মিয়া বলেন, বাড়ির জায়গা নিয়ে রহিম ও জামিরের সাথে আমাদের বিরোধ রয়েছে। এর জের ধরেই ওইদিন হঠাৎ করে রহিমের ছেলে রিফাতসহ ১২/১৪ জন এসে বাবাকে পিটিয়ে মারে। আসামি পক্ষের ঘর-বাড়িতে ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ মিথ্যা। বিজয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আতিকুর রহমান বলেন, বাড়ির সীমানা নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে মামলা চলছে। এর জের ধরেই এই হত্যকান্ড ঘটেছে কিনা সেটি আমরা তদন্ত করে দেখছি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন