ঢাকা শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

মাদারীপুরের ডাসারে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে কিশোরী ধর্ষণ, অভিযুক্ত গ্রেফতার

মাদারীপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১১ অক্টোবর, ২০২০, ৫:১৮ পিএম

মাদারীপুরের ডাসারে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে-(১৫) বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ধর্ষণের ঘটনায় থুুুানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছে ভূক্তভোগী পরিবার। শনিবার সকালে অভিযুক্ত শাহীন মোল্লা-(২২)কে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ।

মামলা ও ভুক্তভোগী পরিবার সুত্রে জানাগেছে,্ ডাসার থানার বালিগ্রাম এলাকার পশ্চিম বোতলা গ্রামের আয়নাল মোল্লার ছেলে রং মিস্ত্রী শাহীন মোল্লার সঙ্গে একই এলাকার ওই কিশোরীর প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছে। এর সুত্র ধরে গত বৃহস্পতিবার রাত ১১ টার দিকে ওই কিশোরীর বাড়িতে দেখা করতে আসেন রং মিস্ত্রী শাহীন মোল্লা। এসময় ওই কিশোরীকে ঘরে একা পেয়ে জোরপূর্বক তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ করে শাহীন মোল্লা। পরে ওই কিশোরীর ডাক-চিৎকার শুনে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে শাহীন মোল্লা পালিয়ে যায়। এ ধর্ষনের ঘটনায় শুক্রবার রাতে ওই ধর্ষিত কিশোরীর মা বাদী হয়ে ডাসার থানায় একটি ধর্ষন মামলা দায়ের করেন। পরে থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে শনিবার সকালে শাহীন মোল্লাকে গ্রেফতার করেন।
ভুক্তভোগী কিশোরীর মা মামলার বাদী অভিযোগ করে বলেন, আমার মেয়েকে শাহীন জোরপূর্বক ধর্ষণ করেছে। তাই আমি তার বিরুদ্ধে মামলা করেছি। আমি তার বিচার চাই।
এ ব্যাপারে ডাসার থানার ওসি মুহাম্মদ আবদুল ওহাব বলেন, ওই কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় তার মা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। নির্যাতিতা কিশোরীকে মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে ও গ্রেফতারকৃতকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
এক পথিক ১১ অক্টোবর, ২০২০, ১০:২৭ পিএম says : 0
".....আয়নাল মোল্লার ছেলে রং মিস্ত্রী শাহীন মোল্লার সঙ্গে একই এলাকার ওই কিশোরীর প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছে।" .......বিবাহ-বহির্ভুত এসব বস্তাপচা প্রেমের খেলা আমাদের সমাজে ধর্ষণকে মহামারী হিসেবে নিয়ে এসেছে। এসব প্রেমের খেলার খেলোয়াড়দের মাঝে বিবাহ-বহির্ভুত যৌন মিলনকে কোনো কারণে একপক্ষ ধর্ষণ বলে আখ্যায়িত করলেও তাকে প্রকৃতপক্ষে ধর্ষণ বলা যায় না। পবিত্র কোরান এবং সহীহ হাদিস থেকে এসব বস্তাপচা প্রেমের খেলা বন্ধ করার ঔষধ জেনে নিয়ে তা যথাযথ প্রয়োগ করলে ধর্ষণের এ মহামারী ইনশাল্লাহ অচিরেই কমে আসবে; শুধু ধর্ষককে মৃত্যুদণ্ড দিয়ে এটাকে বন্ধ করা যাবে না, বরং অনেক ক্ষেত্রে অন্য রকম ফায়দা লুটার জন্য " ধর্ষণের জন্য মৃত্যুদণ্ড" আইনের অপব্যবহার করা হতে পারে।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন