ঢাকা শনিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ০২ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউল সানী ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্বাধীন দেশে হবেই

সাবেক মেয়র হানিফের স্মরণসভায় মাহবুব উল আলম হানিফ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৯ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

ভাস্কর্য নির্মাণ প্রতিহত করার কোনো অপশক্তি দেশে নেই বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ। তিনি বলেছেন, স্বাধীন দেশে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য হবেই। কোনো অপশক্তি নেই এটা প্রতিহত করার। যারা এই ভাস্কর্যের বিরুদ্ধে কথা বলবেন, তাদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্র আইনি ব্যবস্থা নেবে, জনগণ প্রতিহত করবে। গতকাল শনিবার বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ আয়োজিত মরহুম মোহাম্মদ হানিফের স্মরণসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, ভাস্কর্য নিয়ে কিছু আলেম ওলামা-মাশায়েখ উগ্র কথা বলছেন। তারা নাকি ইসলামের ধারক-বাহক। ইসলামে জঙ্গিবাদ ও মৌলবাদের স্থান নেই। ইসলাম শান্তির ধর্ম। অথচ তারা শান্তির ভাষায় কথা বলছেন না। তাদের যে উগ্রতা সেটা ইসলামের কথা হতে পারে না। শান্তির ধর্মের কথা হতে পারে না। ওলামা-মাশায়েখদের কাছে প্রশ্ন উত্থাপন করে তিনি আরো বলেন, আপনারা কোন ইসলামের কথা বলছেন? আপনাদের এই ভাষা জনগণ বরদাশত করবে না।

মাহবুবুল আলম হানিফ বলেন, ওলামা-মাশায়েখরা ধর্মের নামে অপব্যাখ্যা দিয়ে উগ্র-জঙ্গিবাদ টাইপের কথা বলছেন। ইসলাম সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের ভাষা নয়। এদেশে সরকার আছে, জনগণ আছে। পাকিস্তানের প্রেতাত্মাদের হুমকি শোনার জন্য এদেশ স্বাধীন হয়নি- এটা পরিষ্কার মনে রাখবেন।

শাপলা চত্বরের কথা বলে যারা হুমিক দিচ্ছে তাদের সমালোচনা করে তিনি বলেন, যারা শাপলা চত্বরের কথা বলছেন তাদের লজ্জা হওয়া উচিত। সেদিন রাতের অন্ধকারে যারা পালিয়ে গেছেন তারা এখন আবার কোন মুখে সরকারকে হুমকি দেয়?

ইন্দোনেশিয়া, সউদী আরব, ইরান, জর্ডান এমনকি পাকিস্তানসহ পৃথিবীর বিভিন্ন মুসলিম দেশে ভাস্কর্য রয়েছে দাবি করে হানিফ বলেন, ওইসব দেশে ভাস্কর্য নিয়ে তো কেউ কথা বলে না।

মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ সভাপতি আবু আহম্মেদ মান্নাফির সভাপতিত্বে স্মরণ সভায় আরো বক্তৃতা করেন মো. হুমায়ুন কবির, নুরুল আমিন রুহুল, শহীদ সেরনিয়াবাত, কাজী মোর্শেদ হোসেন কামাল, মিরাজ হোসেন প্রমূখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
বয়ড়া খাল পাড় ২৯ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০৯ এএম says : 0
আওয়ামী সব নেতাদের ( বড়, মেঝ, ছোট, পাতি) ভাস্কর্য তৈরী করা হওক ।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন