ঢাকা, শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ২৪ বৈশাখ ১৪২৮, ২৪ রমজান ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র হিসেবে টিকে থাকবে বাংলাদেশ- ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো.ফরিদুল হক খান

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৬:৪২ পিএম

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান এমপি বলেছেন, বাংলাদেশ অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র হিসেবে সবসময় টিকে থাকবে। জাতির পিতার নেতৃত্বে লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে বাংলাদেশ অসা¤প্রদায়িক রাষ্ট্র হিসেবে জন্ম লাভ করেছিল । জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অসা¤প্রদায়িক উন্নত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সকল ধর্মীয় স¤প্রদায়ের উন্নয়নে বহু উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান সংস্কার ও উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে সরকারি সহায়তার পাশাপাশি নিজ নিজ স¤প্রদায়ের সামর্থবান ব্যক্তিগণ এই কাজে এগিয়ে আসলে মানসম্পন্নভাবে কাজটি সম্পন্ন করা যায়। বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান উন্নয়ন ও সংস্কারে সরকার যে অর্থ বরাদ্দ প্রদান করে থাকে কোন কোন ক্ষেত্রে তা অপর্যাপ্ত হওয়ায় মান সম্পন্ন কাজ করা সম্ভব হয়না।

রোববার প্রতিমন্ত্রী জামালপুর জেলার ইসলামপুর উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট আয়োজিত "সমগ্র দেশে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মন্দির ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন ও সংস্কার" প্রকল্পের জামালপুর জেলার কার্যক্রম বিষয়ক অবহিতকরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ সব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী জানান, সমগ্র দেশের সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মন্দির ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান উন্নয়ন ও সংস্কার প্রকল্পটি মার্চ ২০১৯ হতে ডিসেম্বও ২০২১ মেয়াদে সারাদেশে বাস্তবায়িত হচ্ছে। প্রকল্পের আওতায় প্রায় ১৮১২ মন্দির ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন এবং সংস্কার কাজ সম্পন্ন করা হবে। এর মধ্যে জামালপুর জেলার ৭টি উপজেলায় ৩০ টি মন্দিরের উন্নয়ন ও সংস্কার কাজ এগিয়ে চলছে। এ প্রকল্পের আওতায় প্রতিটি মেট্রোপলিটন এলাকার মন্দিরের জন্য ১৫ লক্ষ এবং মেট্রোপলিটনের বাহিরের এলাকার মন্দিরের জন্য ১০ লক্ষ টাকা বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে প্রকল্পের আওতায় মন্দির ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন ও সংস্কার কার্যক্রম এর দরপত্র আহ্বান করে বাস্তবায়নের কাজ শুরু করা হয়েছে। প্রকল্পের কার্যক্রম সুন্দর ও সুষ্ঠুভাবে বাস্তবায়নের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসক ও উপজেলা প্রশাসনকে সম্পৃক্ত করা হয়েছে। ইসলামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসএম মাজহারুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম ৫ম পর্যায় প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক(অতিরিক্ত সচিব) শ্রী রঞ্জিত কুমার দাস, প্রকল্প পরিচালক শ্রী রণজিত কুমার, হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের সচিব বিষ্ণু কুমার সরকার, ইসলামপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এস এম জামাল আব্দুন নাছের (বাবুল) ও ইসলামপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আব্দুস সালাম।

অনুষ্ঠানে জামালপুর জেলার ৭ টি উপজেলার বিভিন্ন মন্দির কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগণ, জামালপুর জেলার মন্দির ও ধর্মীয় উন্নয়ন প্রতিষ্ঠান উন্নয়ন ও সংস্কার কাজে যুক্ত ঠিকাদারগণ উপস্থিত ছিলেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন