মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

আফগান যুদ্ধে পরাজয় স্বীকার যুক্তরাষ্ট্রের

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১০:০৭ এএম

দীর্ঘ ২০ বছরের আফগান যুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের পরাজয় হয়েছে বলে স্বীকার করেছেন দেশটির জয়েন্ট চিফস অফ স্টাফের চেয়ারম্যান জেনারেল মার্ক মিলে। যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ হাউস অফ রিপ্রেজেন্টেটিভসের স্ট্যান্ডিং কমিটি হাউস আর্মড সার্ভিসেস কমিটির কাছে স্থানীয় সময় বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) তিনি এ স্বীকারোক্তি দেন। সংবাদমাধ্যম এএফপির প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।
যুক্তরাষ্ট্রের জয়েন্ট চিফস অফ স্টাফের চেয়ারম্যান জেনারেল মিলে বলেন, এটি সবার কাছে পরিষ্কার, আমাদের মনমতো আফগান যুদ্ধের সমাপ্তি হয়নি। তালেবান ফের ক্ষমতায় আসুক, এটা আমরা চাইনি।
আফগানিস্তান থেকে নিজেদের সেনা প্রত্যাহার ও দেশি-বিদেশি নাগরিকদের উদ্ধার কার্যক্রমে কাবুল বিমানবন্দরে সৃষ্ট বিশ্ঙ্খৃলা সম্পর্কে মিলে বলেন, ‘আফগান যুদ্ধে আমরা কৌশলগতভাবে ব্যর্থ হয়েছি। ‘এ পরাজয় শেষ ২০ দিন এমনকি ২০ মাসেও হয়নি।’
যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের শীর্ষ সামরিক উপদেষ্টা জেনারেল মিলে বলেন, ‘একের পর এক ভুল কৌশলগত সিদ্ধান্তের প্রভাব পরাজয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।
‘আল কায়েদার হাত থেকে নিজেদের রক্ষা করতে আমরা সফল হয়েছি। তবে সামগ্রিকভাবে মূল্যায়ন করলে বলতেই হবে, আফগান যুদ্ধের সমাপ্তি একেবারে ভিন্নভাবে হয়েছে, যা আমরা চাইনি।’
তিনি বলেন, ‘আফগান যুদ্ধ থেকে আমাদের অনেক কিছু শেখার রয়েছে। কেন আমাদের পরাজয় হয়েছে, তা মূল্যায়নের সময় এসেছে।’
আফগান যুদ্ধে পরাজয়ের কারণ হিসেবে নিজের কয়েকটি পর্যালোচনা তুলে ধরেন মিলে।
২০০১ সালে আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক অভিযানের পরপরই আল কায়েদা নেতা ওসামা বিন লাদেনকে ধরা বা হত্যা করার সুযোগ হারানো পরাজয়ের অন্যতম কারণ হিসেবে দেখছেন মিলে।
এ ছাড়া ২০০৩ সালে ইরাক আক্রমণ আফগান যুদ্ধে হারের আরেক কারণ বলে মনে করছেন মিলে।
তিনি বলেন, ‘ওই আক্রমণের সময় আফগানিস্তান থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা ইরাকে স্থানান্তরিত করা হয়। এতে তালেবানের আশ্রয়দাতা পাকিস্তানকে কার্যকরভাবে মোকাবিলা করা সম্ভব হয়নি।’ সূত্র : এএফপি

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (4)
Md. Azad hossain ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১০:৩১ এএম says : 0
পৃথিবীর সব মুসলামই চায় আমেরিকা দংশ হোক। মানুষের দোয়া কাজে লেগেছে। আমেরিক তেল ও খনিজ সম্পদ চুরির জন্য দেশ দখল করে। যখন চুরি করা শেষ তখন পরাজয় বরণ করে। মানুষ হত্যা করে পৃথবিীতে কেহই শান্তিতে থাকতে পারে না। আরবের তেল চুরির টাকা দিয়ে ইসরাইলকে অস্ত্র কেনার সাহায্য করে। মোদি আফগানিস্তানে ৩০০ কোট টাকা খরচে করেছে পাকিস্তানে বিশৃঙ্গখলা করার জন্য সেই মোদির টাকা গুলো জলে গেলে মোদি সব দেশের সাথে যুদ্ধ করতে চায় কিন্তু বারবার হেরে যায়। মোদিও মুসলমানের দুসমন।
Total Reply(0)
Shanto ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১০:২৯ এএম says : 0
পশ্চিমা বিষাক্ত রাজনৈতিক শক্তির জোট তাদের বিষাক্ত রাজনৈতিক এজেন্ডার জন্য আল কায়েদা তালেবান সহ আরো অনেক সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোর সৃষ্টি করেছিল, এবং তাদের দ্বারা নানা রকম মিথ্যা ভন্ডামি প্রতারণা ষড়যন্ত্রমূলক নাটকের একটি অধ্যায় স্বরূপ ৯/১১ তে নিউইয়র্কে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে সন্ত্রাসী হামলার নাটক সাজিয়ে পৃথিবীর একের পর এক মুসলিম দেশগুলোকে ধ্বংস করে দেওয়া হয়। এখন আবার সেই পশ্চিমা বিষাক্ত রাজনৈতিক অপশক্তি এই তালেবানদেরকে আফগানিস্থানে ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত করছে, কী উদ্দেশ্যে? অবশ্যই কোন বড় বিষাক্ত ষড়যন্ত্র মূলক উদ্দেশ্যে! আর সেটা হতে পারে পূর্বের চাইতেও আরো বিষাক্ত, হতে পারে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ। পশ্চিমা বিষাক্ত রাজনৈতিক অপশক্তি তাদের স্বার্থের জন্য যেকোনো ধরনের বিষাক্ত কর্মকান্ড করতে পারে।
Total Reply(0)
Sifath Äzfar ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৬:২৩ পিএম says : 0
America is biggest terrorist country in the world
Total Reply(0)
মেহের আলী ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৬:২৯ পিএম says : 0
শুধু পরাজয় স্বীকার করলে হবে না, ক্ষতিপূরণও দিতে হবে।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন