শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৮ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

এবছর নোবেল পেলেন যারা

আব্দুল মোমিন | প্রকাশের সময় : ১২ অক্টোবর, ২০২১, ২:২১ পিএম

বিশ্বের সবচেয়ে সম্মানজনক পুরস্কার হিসেবে ধরে নেওয়া হয় নোবেলকে। পৃথিবীর সব ধরনের পুরস্কারের মধ্যে সবচেয়ে কাঙিক্ষত এটি। চলতি বছর গত ৪ অক্টোবর চিকিৎসার নোবেল বিজয়ী হিসেবে লেবানিজ বংশোদ্ভূত মার্কিন বিজ্ঞানী আর্ডেম পাতাপুতিয়ান ও মার্কিন বিজ্ঞানী ডেভিড জুলিয়াসের নাম ঘোষণার মধ্যদিয়ে নোবেল পুরস্কারের অনুষ্ঠানের শুরু হয়। সোমবার (১১ অক্টোবর) অর্থনীতিতে নোবেল বিজয়ী ঘোষণার মধ্য দিয়ে শেষ হলো এবছরের নোবেল পুরস্কার ঘোষণার।

১৯০১ সালে পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, চিকিৎসাবিজ্ঞান, সাহিত্য ও শান্তিতে নোবেল পুরস্কার দেওয়া শুরু হয়। ১৯৬৮ সালে সুইডেনের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ভেরিজ রিক্সব্যাংকের এই পুরস্কারের প্রবর্তন করে। পরের বছর থেকে রয়্যাল সুইডিশ একাডেমি অব সায়েন্সেস অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার দেওয়া শুরু করে। সুইডিশ বিজ্ঞানী আলফ্রেড নোবেলের সম্মানে এই পুরস্কারের পুরো নাম রাখা হয় ‘আলফ্রেড নোবেল স্মৃতি রক্ষার্থে অর্থনীতিতে ভেরিজ রিক্সব্যাংক পুরস্কার।’

আলফ্রেড তার জীবদ্দশায় ডিনামাইটসহ ৩৫৫টি উদ্ভাবন করেন। এসবের মাধ্যমে প্রচুর অর্থবিত্তের মালিক হয়েছিলেন তিনি। অর্জিত সব অর্থ দান করে ১৮৯৫ সালে একটি উইল করেন তিনি। যার পরিপ্রেক্ষিতে ১৯০১ সাল থেকে পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, চিকিৎসাশাস্ত্র, সাহিত্য এবং শান্তি-এই পাঁচটি বিষয়ে নোবেল পুরস্কার প্রচলন করা হয় এবং পরে অর্থনীতি বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত হয় ১৯৬৯ সালে।

এ বছর নোবেল পেলেন যারা

রসায়ন : এবছর রসায়নে নোবেল পেয়েছেন দুই বিজ্ঞানী। তার হলেন— বেঞ্জামিন লিস্ট ও ডেভিড ডব্লিউ.সি. ম্যাকমিলান। অপ্রতিসম অর্গানোক্যাটালাইসিস বা জৈব-অনুঘটন বিক্রিয়া আবিষ্কারের জন্য নোবেল লাভ করেন এ দুই বিজ্ঞানী। তাদের এই আবিষ্কার ওষুধ গবেষণায় বড় প্রভাব ফেলেছে এবং রাসায়নিক প্রক্রিয়া বা উৎপাদন-পদ্ধতিকে আরও পরিবেশবান্ধব বা সবুজ করেছে।

পদার্থবিজ্ঞান : পদার্থবিজ্ঞানে এ বছর নোবেল পেয়েছেন তিন বিজ্ঞানী। তারা হলেন জাপানের আবহাওয়া ও জলবায়ুবিদ সাইকুরো মানাবে, জার্মানির সমুদ্রবিজ্ঞানী ক্লাউস হাসেলম্যান এবং ইতালির তাত্ত্বিক পদার্থবিদ জর্জিও প্যারিসি। জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়ে পূর্বাভাস ও জটিল ফিজিক্যাল সিস্টেম নিয়ে কাজ করায় তারা এই নোবেল পেয়েছেন। পুরস্কারের চার ভাগের অর্ধেক পাবেন পদার্থবিজ্ঞানী জর্জিও প্যারিসি। বাকি অর্ধেক সমানভাগে ভাগ করে নেবেন বাকি দুই পদার্থবিদ।

শান্তি : এ বছর শান্তিতে সম্মানজনক নোবেল পুরস্কার জিতেছেন দুই সাংবাদিক। তারা হলেন ফিলিপাইনি বংশোদ্ভূত মার্কিন সাংবাদিক মারিয়া রেসা এবং রাশিয়ার সাংবাদিক দিমিত্রি মোরাতোভ। প্রতিবছরের মতো এ বছরও নোবেল পুরস্কারের এই ক্যাটাগরি নিয়েই সবার আগ্রহ ছিল।

নোবেল কমিটি বলেছে, মত প্রকাশের স্বাধীনতা রক্ষায় নিজেদের ভূমিকার কারণে মারিয়া রেসা এবং দিমিত্রি মোরাতোভকে এই পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। নোবেল কমিটি মনে করে, গণতন্ত্র এবং দীর্ঘমেয়াদি শান্তির পূর্ব শর্তই হচ্ছে মত প্রকাশের স্বাধীনতার সুরক্ষা।

সাহিত্য : সাহিত্যে এ বছর নোবেল পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন তানজানিয়ার সাহিত্যিক আব্দুলরাজাক গুর্নাহ। ‘প্যারাডাইস’ নামে উপন্যাসের জন্য তিনি এ সম্মাননা পান। ৭ অক্টোবর সুইডিশ একডেমি নোবেলজয়ী হিসেবে তার নাম ঘোষণা করে। জানজিবারে জন্ম নেওয়া আবদুল রাজাক গুরনাহ ইংল্যান্ডে সাহিত্যচর্চা করছেন। সুইডিশ একাডেমি বলছে, ঔপনিবেশিকতার প্রভাব নিয়ে তার আপসহীন ও সহানুভূতিশীল লেখনীর জন্য তাকে এই স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে।

চিকিৎসা : চলতি বছর চিকিৎসা বিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের ডেভিড জুলিয়াস ও লেবাননের আরডেম পাতাপোশিয়ান। ৪ অক্টোবর নোবেল কমিটি তাদের নাম ঘোষণা দেয়। ডেভিড জুলিয়াস শরীরতত্ত্ব ও আর্ডেম প্যাটাপোসিয়ান ওষুধের ওপর এই পুরস্কার পেলেন।

তাপমাত্রা ও স্পর্শের জন্য রিসেপ্টর আবিষ্কারের গবেষণায় চিকিৎসায় তারা যৌথভাবে নোবেল পুরস্কার পান। নোবেল অ্যাসেম্বলি জানায়, তাদের আবিষ্কার জানতে সাহায্য করেছে যে, কীভাবে গরম, ঠাণ্ড এবং যান্ত্রিক শক্তি স্নায়ুর উত্তর দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করে থাকে। যা পারিপার্শ্বিক দুনিয়ার প্রতি দৃষ্টিভঙ্গি নির্ধারণ এবং সেই দুনিয়ার সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে সাহায্য করে থাকে।

অর্থনীতি: চলতি বছর অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন তিন অর্থনীতিবিদ। তারা হলেন- কানাডিয়ান অর্থনীতিবিদ ডেভিড কার্ড, মার্কিন অর্থনীতিবিদ জোশুয়া অ্যাংগ্রিস্ট এবং ডাচ–মার্কিন অর্থনীতিবিদ গুইডো ইমবেনস। সোমবার (১১ অক্টোবর) দ্য রয়াল সুইডিশ একাডেমি অব ইকোনমিক সায়েন্সের সভাপতি পিটার ফ্রেডরিকসন অর্থনীতিতে পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেন।

আলফ্রেড নোবেলের স্মৃতি রক্ষার্থে অর্থনীতিতে এ বছর ভেরিজ রিক্সব্যাংক পুরস্কারের অর্ধেক পাবেন ডেভিড কার্ড এবং বাকি অর্ধেক যৌথভাবে পাবেন জোশুয়া ডি অ্যাঙ্গরিস্ট এবং গুইডো ডব্লিউ ইমবেনস। প্রাকৃতিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার ব্যবহারের মাধ্যমে অর্থনীতিবিদ ডেভিড কার্ড শ্রমবাজারে ন্যূনতম মজুরি, অভিবাসন এবং শিক্ষার প্রভাব বিশ্লেষণ করে অর্থনীতির এই নোবেল পেয়েছেন। ন্যূনতম মজুরি বৃদ্ধি কর্মের ওপর কী ধরনের প্রভাব ফেলে সে বিষয়ে প্রাকৃতিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে অনুসন্ধান চালিয়েছেন তিনি। এর আগে, গত বছর নিলাম তত্ত্বের উন্নতি এবং নতুন নিলাম বিন্যাস উদ্ভাবনের স্বীকৃতি হিসেবে অর্থনীতিতে যৌথভাবে নোবেল পান দুই মার্কিন অর্থনীতিবিদ পল আর. মিলগ্রোম ও রবার্ট বি. উইলসন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন