সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ৩০ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

৩১ মামলায় আসামি ১৩ হাজার, গ্রেফতার ৩০০

কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে অপ্রীতিকর ঘটনার পর ফেসবুকের দুইশ’ অ্যাডমিনের প্রোফাইল কালো তালিকাভুক্ত

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৯ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০০ এএম

কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন শরিফ রেখে দেয়ার ঘটনার জের ধরে গত বুধবার থেকে ডিএমপিসহ দেশের ১০ জেলায় পূজামণ্ডপ ও মন্দিরে হামলার ঘটনায় ৩১টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ সব মামলায় ১৩ হাজার জনকে আসামি করা হয়েছে। মামলায় এ পর্যন্ত প্রায় তিন শত জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে জামায়াত-বিএনপির কয়েকজন নেতাও রয়েছেন। এদের মধ্যে ৪৮জনকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। ঢাকা মহানগরের তিন থানা, ফেনী, নোয়াখালী, চাঁদপুর, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, লক্ষ্ীপুর, সিলেট, কুড়িগ্রাম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও গাজীপুর জেলায় এ সব মামলা দাযের করা হয়। পুলিশ সূত্রে এ সব তথ্য জানা গেছে।

এদিকে একটি গোয়েন্দা সংস্থার একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা গতকাল দৈনিক ইনকিলাবকে বলেন, কুমিল্লায় পবিত্র কোরআন অবমাননার ঘটনাকে কেন্দ্র করে দেশের বিভিন্ন স্থানে দুর্গাপূজার মণ্ডপে হামলার রহস্য উদ্ঘাটনের চেষ্টা করছে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার বিভিন্ন ইউনিট। এক্ষেত্রে সরকারের উচ্চপর্যায় থেকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, বিদেশি কোনো গোয়েন্দা সংস্থার ইন্ধন আছে কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সম্প্রীতি বিনষ্ট করতেই এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে। এটি উদ্দেশ্যমূলকভাবে কারও ইন্ধনে হয়েছে। এর সঙ্গে তৃতীয় কোনো শক্তিও জড়িত থাকতে পারে। আমরা অনেক কিছুই দেখছি, অনেক কিছুই অনুমান করছি বলে ওই কর্মকর্তা মন্তব্য করেন।

ওই গোয়েন্দা কর্মকর্তা আরও জানান, কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে অপ্রীতিকর ঘটনার পর গুজব রটানোর অভিযোগে ফেসবুকের দুইশ এডমিনের প্রোফাইল কালো তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। তাদেরও আইনের আওতায় আনার পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। পাশাপাশি সবকটি গোয়েন্দা সংস্থা মাঠে আছে। হামলার আশপাশে সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে। প্রতিমা ভাঙচুরে যারা অংশ নিয়েছে ওইসব ফুটেজ দেখে তাদের চিহ্নিত করা হয়েছে। আড়ালে থেকে যারা উসকানি দিয়েছে তাদের অনেককে শনাক্ত করা হয়েছে। শনাক্ত হওয়াদের পূর্ণাঙ্গ বায়োডাটা সংগ্রহ করা হচ্ছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, এ ঘটনায় রাজধানীর চকবাজার, রমনা ও পল্টন থানায় পৃথক তিনটি মামলায় ৪ হাজারজনকে আসামি করে মামলা করেছে পুলিশ। এদের মধ্যে আসামিদের অনেকেই অজ্ঞাত। এ তিনটি মামলায় গতকাল পর্যন্ত পুলিশ ৪২জনকে গ্রেফতার করেছে। এদের মধ্যে ২১জনকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। গত শনিবার সন্ধ্যায় ফেনী শহরে হামলা-ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে ফেনী মডেল থানায় পৃথক দুটি মামলা করে। একটি মামলায় ২০০-২৫০ জন এবং অপর মামলায় ১০০-১৫০ জন অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে। নোয়াখালীর হাতিয়ায় মন্দির ও বসতঘরে দুই দিন ধরে চলা হামলা-ভাঙচুরের ঘটনায় থানায় গত রোববার মামলা হয়েছে ছয়টি। এসব মামলায় আসামি করা হয়েছে ১ হাজার ২৯৩ জনকে। এসব মামলায় এ পর্যন্ত ১০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ওই সূত্র আরো জানায়, চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে গত বুধবার রাতে বিভিন্ন স্থানে হামলার ঘটনায় পৃথক তিনটি মামলা হয়েছে। এসব মামলায় আটজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ২ হাজার ৯৫০ জনকে আসামি করা হয়। পুলিশ বুধবার রাতে সাতজন ও শনিবার রাতে আটজনকে গ্রেপ্তার দেখায়। কুমিল্লা নগরে উত্তেজিত জনতার বিক্ষোভ, ইটপাটকেল নিক্ষেপ, বিভিন্ন মন্দির ও পূজামণ্ডপে অগ্নিসংযোগ, হামলা, ভাঙচুর এবং ফেসবুকে উসকানিমূলক বক্তব্য ছড়ানোর অভিযোগে পুলিশ চারটি ও র‌্যাব বাদী হয়ে একটি মামলা করেছে। এসব মামলায় কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের জামায়াতের ৩ কাউন্সিলরসহ এজাহারনামীয় ৬২ জন ও অজ্ঞাতনামা আসামি আছেন ৫০০ জন। এর মধ্যে পুলিশ ৩৯ জনকে ও র‌্যাব একজনকে গ্রেপ্তার করেছে। চট্টগ্রাম নগর ও জেলায় পূজামণ্ডপে হামলা ও তোরণ ভাঙচুরের ঘটনায় পৃথক চারটি মামলা হয়েছে। এসব মামলায় ১৫০ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতপরিচয় ১ হাজার ৩০০ জনকে আসামি করা হয়।

সূত্র জানায়, সিলেট নগরের দুটি পূজামণ্ডপে গত শুক্রবার দুপুরে হামলার ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে ৪২ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ২০০-২৫০ জনকে আসামি করে মামলা করেছে। এ ঘটনায় পুলিশ শনিবার দিবাগত রাতে ১২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। মামলার বাদী জালালাবাদ থানার এসআই কাজী জামাল। সিলেটের জকিগঞ্জের কালীগঞ্জ বাজারে বুধবার রাতে স্থানীয় প্রশাসন ও পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর এবং হামলার ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে অজ্ঞাত ৪০০-৫০০ জনকে আসামি করে মামলা করেছিল। পুলিশ তিনজনকে ওই মামলায় গ্রেপ্তার করে। গাজীপুর সিটি করপোরেশনের কাশিমপুর এলাকায় তিনটি মন্দিরের প্রতিমা ভাঙচুরের ঘটনায় পৃথক তিনটি মামলা হয়েছে। এসব মামলায় ২০ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা ৬০০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন