বৃহস্পিতবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ০৩ ভাদ্র ১৪২৯, ১৯ মুহাররম ১৪৪৪

জাতীয় সংবাদ

সুশাসনের অভাব এবং সরকারের অদক্ষতায় পণ্যমূল্য বাড়ছে

এফডিসিতে ড. খলীকুজ্জামান

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২ এপ্রিল, ২০২২, ১২:০০ এএম

দেশে সুশাসনের অভাব এবং সরকারি সংস্থাগুলোর অদক্ষতার কারণে দেশে পণ্যমূল্য লাগামহীন ভাবে বাড়ছে বলে মন্তব্য করেছেন সরকারি দলের অনুসারি হিসেবে পরিচিত বুদ্ধিজীবী পল্লি কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) চেয়ারম্যান অর্থনীতিবিদ ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ। তিনি বলেছেন, কিছু অতিলোভী অসাধু ব্যবসায়ী পণ্য মজুদ করে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে দ্রব্যমূল্য বাড়িয়ে জনজীবনে দুর্ভোগ তৈরি করছে। দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির জন্য বৈশ্বিক পরিস্থিতিকে দায়ী করা হলেও প্রকৃতপক্ষে সুশাসনের অভাব এবং সরকারি সংস্থাগুলোর অদক্ষতা ও সমন্বয়হীনতা এর জন্য দায়ী। গতকাল শুক্রবার এফডিসিতে ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি’র আয়োজনে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির কারণ নিয়ে এক ছায়া সংসদে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ড. খলীকুজ্জামান আহমদ বলেন, আসন্ন রমজানে পুন্য অর্জনের জন্য দ্রব্যমূল্য কমে আসার কথা। কিন্তু উল্টো কিছু অসাধু ব্যবসায়ী কৌশলের মাধ্যমে রমজানের আগেই বেশি দামে পণ্য বিক্রি শুরু করেছে। দেশে সম্পদের অভাব নেই। রয়েছে সম্পদের সুষ্ঠু ও ন্যায্য বণ্টনের অভাব। সমাজে ধনী-গরিবের বৈষম্য ব্যাপক হারে বাড়ছে।
পিকেএসএফ চেয়ারম্যান বলেন, ভোজ্যতেল নিয়ে যারা কারসাজি করেছে তারা যত শক্তিশালী হোক তাদের বিচারের আওতায় আনা উচিৎ। দৃশ্যমানভাবে কয়েকজনকে শাস্তি দিতে পারলেই অন্যরা বাজার সিন্ডিকেটসহ অন্যান্য অনিয়ম করতে ভয় পাবে।

ড. খলীকুজ্জমান বলেন, বিশ্বে দ্রুত ধনী হওয়ার হার বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি। অথচ ধনীলোকদের মধ্যে কর প্রদানের প্রবণতা কম, ফলে অভ্যন্তরীণ ঋণের পরিমাণ বাড়ছে, যা দীর্ঘমেয়াদে অর্থনৈতিক সংকট তৈরি করতে পারে। দেশে দরিদ্র লোকের সংখ্যা বাড়লেও সরকারের নীতি নির্ধারকরা এটি স্বীকার করছেন না। যে কোনো সমস্যা অস্বীকার করলে তার সমাধান সহজ হয় না।

সংগঠনের চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরনের সভাপতিত্বে এ ছায়া সংসদ অনুষ্ঠিত হয়। ছায়া সংসদের প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ ইসলামি ইউনিভার্সিটিকে হারিয়ে আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি-বাংলাদেশ এর বিতার্কিকরা বিজয়ী হয়। ইউসিবি পাবলিক পার্লামেন্ট শিরোনামে প্রতিযোগিতায় বিচারক ছিলেন প্রতিযোগিতায় বিচারক ছিলেন অধ্যাপক আবু মোহাম্মদ রইস, ড. এস এম মোর্শেদ, কৃষিবিদ ফালগুনী মজুমদার প্রমূখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন