বৃহস্পিতবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ০৩ ভাদ্র ১৪২৯, ১৯ মুহাররম ১৪৪৪

জাতীয় সংবাদ

উত্তপ্ত হচ্ছে সুপ্রিম কোর্ট বার

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৯ মে, ২০২২, ১২:০৬ এএম

ফের উত্তপ্ত হচ্ছে সুপ্রিম কোর্ট বার। সার্বিক রাজনৈতিক পরিস্থিতির সঙ্গে সঙ্গতি রেখে শুরু হয়েছে আইনজীবীদের প্রতিবাদ, বিক্ষোভ। গত বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্ট অঙ্গনে সরকারদলীয় ছাত্র সংগঠনের হামলা ও ভাঙচুরের প্রতিবাদে ওইদিন তাৎক্ষণিকভাবে প্রতিবাদ মিছিল করেন বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা। এর ধারাবাহিকতায় আজও বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা বিক্ষোভ সমাবেশ এবং মিছিল করবেন বলে জানা গেছে। তবে উত্তাপ ছড়ানোর বিষয়টি সরাসরি স্বীকার করেননি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)র আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল। তিনি এ প্রতিবেদককে বলেন, আমরা বহিরাগত সন্ত্রাসীমুক্ত সুপ্রিম কোর্ট চাই। আমরা যারা পেশাদার আইনজীবী তারা আইনের শাসন দেখতে চাই। যেখানে যখনই এর ব্যত্যয় ঘটবে আমরা তার প্রতিবাদ জানাব। এর সঙ্গে আদালত অঙ্গনের বাইরের রাজনীতির কোনো সম্পর্ক নেই।

তিনি বলেন, পত্রপত্রিকায় যেভাবে এসেছে তাতে দিবালোকের মতো স্পষ্ট যে, গত বৃহস্পতিবার সরকারি মদদপুষ্ট ছাত্র সংগঠন অনুপ্রবেশ করে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণকে রক্তাক্ত করেছে। আমরা এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি চাই না। ওই ঘটনার পরপর আমরা তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া হিসেবে বিক্ষোভ মিছিল বের করেছি। আইনমন্ত্রী এবং অ্যাটর্নি জেনারেলের পদত্যাগ দাবি করেছে। আমরা চাই এমন ন্যক্কারজনক ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত হোক। তদন্ত সাপেক্ষে দোষী ব্যক্তিদের শাস্তির আওতায় আনা হোক।

এদিকে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম, সুপ্রিম কোর্ট ইউনিটের একজন নেতা নাম প্রকাশ না করে বলেন, ২০০৬ সালে আওয়ামীপন্থী আইনজীবীরা বহিরাগতদের সহায়তায় সুপ্রিম কোর্ট অঙ্গনে এক নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছিল। ১৬ বছর পর একই কায়দায় তারা সুপ্রিম কোর্টে তাণ্ডব চালিয়েছে। এ ঘটনার যতক্ষণ না তদন্ত ও বিচার হবে ততক্ষণ আমাদের প্রতিবাদ, বিক্ষোভ অব্যাহত থাকবে। সুপ্রিম কোর্ট বারের নির্বাচনী ফলাফল প্রসঙ্গ টেনে এই আইনজীবী বলেন, আপনারা দেখেছেন, সরকার সমর্থক আইনজীবীরা কিভাবে দিবালোকে তারা তালা ভেঙে সন্ত্রাসী কায়দায় ব্যালট বাক্স খুলে ভোট পুনঃগণনার নামে ফলাফল ছিনিয়ে নেয়া হয়েছে। আইনজীবীদের মনে এই ঘটনার ক্ষত এখনো রয়ে গেছে। পেশাজীবী আইনজীবীদের দাবিÑ সুপ্রিম কোর্ট অঙ্গনকে বহিরাগত সন্ত্রাসীদের ঠিকানা হতে দেয়া যাবে না। কোনো ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড হতে দেয়া যাবে না। সুপ্রিম কোর্ট অঙ্গনের শান্তিপূর্ণ পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে এবং সুপ্রিম কোর্ট বারে পেশাদার আইনজীবীদের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠার জন্য আমাদের প্রতিবাদ-সমাবেশ অব্যাহত থাকবে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্ট অঙ্গনে হামলা-ভাঙচুরের পর সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নেতাদের নিয়ে জরুরি বৈঠক করে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন। রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. বজলুর রহমান, হাইকোর্টের রেজিস্ট্রার মো. গোলাম রব্বানী, পুলিশের রমনা অঞ্চলের ডিসি, আপিল বিভাগের রেজিস্ট্রার ও নিরাপত্তা সংশ্লিষ্টদের সমন্বয়ে জরুরি বৈঠক হয়। বৈঠকে আজ থেকে সুপ্রিম কোর্ট অঙ্গনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদারের সিদ্ধান্ত হয়। এ প্রেক্ষাপটে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম প্রতিবাদ সমাবেশ অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেন।

গত বৃহস্পতিবার তাৎক্ষণিক বিক্ষোভ সমাবেশে আইনজীবী ফোরামের নেতৃবৃন্দ সুপ্রিম কোর্ট অভ্যন্তরে প্রবেশ করে আইনজীবীদের ওপর হামলা ও গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনায় আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ও অ্যাটর্নি জেনারেল এএম আমিন উদ্দিনের পদত্যাগ দাবি করেন। সমাবেশে বক্তারা বলেন, ছাত্রলীগের গুন্ডাবাহিনী সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে ‘জয় বাংলা’ সেøাগান দিয়ে তিন ছাত্রকে বেধড়ক পিটিয়ে জখম করেছে। আইনজীবীদের ওপর হামলা করেছে। গাড়ি ভাঙচুর করেছে। বক্তারা প্রধান বিচারপতির কাছে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে রক্তক্ষয়ী ঘটনায় দায়ীদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান। তবে এ দাবির প্রেক্ষিতে সুপ্রিম কোর্ট কর্তৃপক্ষ গতকাল শনিবার পর্যন্ত আইনানুগ কোনো ব্যবস্থা নিয়েছে বলে জানা যায়নি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন