বুধবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

সারা বাংলার খবর

মধ্যরাত থেকে শুরু হচ্ছে ইলিশ শিকারে ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) উপজেলা প্রতিনিধি | প্রকাশের সময় : ৬ অক্টোবর, ২০২২, ৪:০৯ পিএম

মা ইলিশের বাধাহীন প্রজননের জন্য ৬ অক্টোবর মধ্যরাত থেকে সাগর ও নদ-নদীতে শুরু হচ্ছে ইলিশ শিকারে ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা। এরমধ্যে দক্ষিণের বৃহৎ মৎস্য বন্দর মহিপুর ও আলীপুর ঘাটসহ শিববাড়িয়া নদীতে এসে পৌঁছেছে সমুদ্রগামী মাছধরা হাজারো ট্রলার।

তবে অবরোধকালীন সময়ে জেলেদের প্রদেয় প্রণোদনা বাড়ানোসহ দেশের সীমানায় প্রতিবেশী দেশের জেলেদের মাছ ধরা বন্ধে কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন মৎস্যজীবীরা।

উপজেলা মৎস্য বিভাগ জানায়, ২০০৬ সাল থেকে এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে আসছে সরকার। এতে বেড়েছে ইলিশের উৎপাদন। এই ২২ দিন ইলিশ আহরণ, পরিবহন, মজুত, ক্রয়-বিক্রয় এবং বিনিময় সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এই নিষেধাজ্ঞাকালীন সময়ে নির্দেশ অমান্যকারীদের এক থেকে দুই বছর সশ্রম কারাদণ্ড বা ৫ হাজার টাকা জরিমানা অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হতে পারে। তবে এই সময়ে উপজেলার নিবন্ধিত সব ইলিশ শিকারি জেলেদের ২০ কেজি করে চাল প্রদান করা হবে বলে জানায় মৎস্য বিভাগ।

মহিপুর ঘাটের ইলিশ শিকারি খালেক জানান, এ বছর সাগরে প্রথম দিকে তেমন ইলিশ ধরা পড়েনি। তবে শেষের দিকে ইলিশের দেখা মিললেও এখন নিষেধাজ্ঞার সময় বেধে দেওয়া হয়েছে। সরকারের নির্দেশ অবশ্যই পালন করব। তাই ট্রলার নিয়ে ঘাটে ফিরে এসেছি।

এদিকে একই ঘাটের জেলে বেল্লাল জানান, নিষেধাজ্ঞাকালীন সময়ে পার্শ্ববর্তী দেশের জেলেরা বাংলাদেশর সীমানায় প্রবেশ করে মাছ ধরে নিয়ে যায়। পরে আর মাছ থাকে না, আমাদের জালেও তেমন ধরা পড়ে না। তাই এই ২২ দিন সাগরে প্রশাসনের আরো বেশি টহল বাড়ানোর দাবি জানান তিনি। এছাড়া অবরোধ শুরুর প্রথম দিকেই চাল পাওয়ার দাবিসহ প্রণোদনা বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন জেলেরা।

কলাপাড়া উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা অপু সাহা জানান, অবরোধ সফল করতে আমরা জেলে ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠক করেছি। এছাড়া জেলে পল্লীগুলোতে ব্যাপক প্রচারণা চালানো হয়েছে। এই সময়ে উপজেলার নিবন্ধিত ১৮ হাজার ৩০০ জন জেলেকে ২০ কেজি করে চাল প্রদান করা হবে। এছাড়া এই সময়ে জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশ, কোস্টগার্ড, নৌ-পুলিশ ও নৌবাহিনী জলে ও স্থলে অবরোধ সফল করতে কাজ করবে বলেও জানান তিনি।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন