ঢাকা, শনিবার ২৫ মে ২০১৯, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৯ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

জাতীয় সংবাদ

২১ এপ্রিলই পবিত্র শবে বরাত

প্রেস ব্রিফিংয়ে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী আগামী ২১ এপ্রিল দিবাগত রাতেই পবিত্র শবে বরাত পালিত হবে। শাবান মাসের চাঁদ দেখা নিয়ে বিভ্রান্তি নিরসনে দেশের শীর্ষপর্যায়ের ওলামায়ে কেরামগণের সমন্বয়ে গঠিত ১১ সদস্যবিশিষ্ট সাব-কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আলহাজ শেখ মো. আব্দুল্লাহ এ ঘোষণা দেন। ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, চাঁদ দেখার বিষয়টি সম্পূর্ণ ধর্মীয়। এটা নিয়ে কোনো রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের সুযোগ নেই।
প্রেস ব্রিফিংয়ে বলা হয়, যারা চাঁদ দেখেছেন বলে দাবি করেছিলেন, তাদের সাক্ষ্য গ্রহণ এবং তা যাচাইয়ের জন্য গতকাল সাব-কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। সাক্ষীগণ সাব-কমিটির বারবার অনুরোধের পরও সাক্ষ্য প্রদানের জন্য সভায় উপস্থিত হননি। বরং সাক্ষ্য প্রদানের জন্য এমন কিছু শর্ত জুড়ে দিয়েছেন যেভাবে সাক্ষ্য গ্রহণের শরীয়তে কোনো ভিত্তি নেই, তাই চাঁদ দেখার কোনো সাক্ষী না পাওয়ায় ইসলামী শরিয়াহ অনুযায়ী জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির গত ৬ এপ্রিল ঘোষিত সিদ্ধান্ত বহাল রেখেছে সাব-কমিটি। সেই মোতাবেক আগামী ২১ এপ্রিল পবিত্র শবে বরাত অনুষ্ঠিত হবে। সাব-কমিটির প্রধান করা হয় মারকাযুদ দাওয়াহ আল ইসলামিয়া ঢাকার শিক্ষা সচিব মাওলানা মুফতি মুহাম্মাদ আব্দুল মালেককে।
প্রেস ব্রিফিংয়ে আরো উপস্থিত ছিলেন, ধর্ম সচিব মো. আনিছুর রহমান, মাওলানা মুফতি মুহাম্মাদ আব্দুল মালেক, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম মুফতি মাওলানা মুহাম্মদ মিজানুর রহমান, ধর্ম প্রতিমন্ত্রী এপিএস সৈকত ও সিনিয়র জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আনোয়ার হোসাইন।
উল্লেখ্য, জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি গত ৬ এপ্রিল সন্ধ্যায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বায়তুল মোকাররম সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় দেশের সব জেলা প্রশাসন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রধান কার্যালয়, বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়, আবহাওয়া অধিদপ্তরের সব কার্যালয়, মহাকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে প্রাপ্ত তথ্য পর্যালোচনা করে সিদ্ধান্ত হয় যে, বাংলাদেশের আকাশে কোথাও শাবান মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। সে হিসেবে আগামী ২১ এপ্রিল দিবাগত রাতে সারা দেশে পবিত্র শবে বরাত উদযাপন হবে।
এরপর দেশের আকাশে সেদিন চাঁদ দেখা গেছে মজলিসু রুইয়াতিল হিলাল এমন তথ্য প্রকাশ করলে বিতর্ক দেখা দেয়। এমন অবস্থায় দফায় দফায় বৈঠক শেষে গত ১৩ এপ্রিল ১১ সদস্যের সাব-কমিটি গঠন করা হয়। গতকাল এই কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে আগের ঘোষণাই বহাল রাখা হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (11)
Ataur Rahaman ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ২:৫৮ এএম says : 0
Ammen .
Total Reply(0)
Sharif Khan ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ২:৫৯ এএম says : 0
finally the debate is over!
Total Reply(0)
Jahed Islam ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:০০ এএম says : 0
এই রজনী আমাদের উচিত বেশি বেশি আল্লাহর ইবাদাত বন্দেগী করা।
Total Reply(0)
Md Mohsin ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:০১ এএম says : 0
ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ঠিকই বলেছেন, চাঁদ দেখার বিষয়টি সম্পূর্ণ ধর্মীয়। এটা নিয়ে কোনো রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের সুযোগ নেই।
Total Reply(0)
Billal Khan ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:০২ এএম says : 1
পবিত্র কুরআন ও হাদীসের অসংখ্য বর্ণনা অনুযায়ী এ রাত মর্যাদাময় রাত।
Total Reply(0)
Faruk Hussain ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:০২ এএম says : 0
পবিত্র শবে বরাত যে মুসলিম উম্মাহর জন্য একটি বরকতময় ও ফজিলতপূর্ণ রাত এতে সন্দেহের অবকাশ নেই।
Total Reply(0)
Younous ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:০৩ এএম says : 0
ইসলামের ইতিহাসে পবিত্র এই রাতটি বিশ্বের মুসলমানদের ন্যায় বাংলাদেশের মুসলমানরাও যথাযোগ্য মর্যাদায় এবাদত বন্দেগীর মাধ্যমে পালন করবে। এ পবিত্র রাতের এবাদতের অন্তর্ভুক্ত থাকবে কুরআন তেলাওয়াত, নফল নামাজ, ওয়াজ, জিকির আজকার, জিয়ারত, মিলাদ ও মুনাজাত।
Total Reply(0)
Yeasin Rana ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:০৬ এএম says : 0
আল্লাহ আমাদের ইবাদাত করার তাওফিক দান করুন। আমিন
Total Reply(0)
হান্নান ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৯:৪৬ এএম says : 0
আমিন
Total Reply(0)
হান্নান ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৯:৪৭ এএম says : 0
আমিন
Total Reply(0)
মোহাম্মদ মুছা ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৮:০৫ পিএম says : 0
আল্লাহপাক যেন পবিত্র শবেবরাতের রজনীকে গনীমত হিসাবে অক্ষুন্ন রেখে উক্তরজনীকে ইবাদাতবন্দেগীর মাধ্যমে অতিবাহিত করতে পারি, মহান মাবুদের কাছে এই প্রার্থনাই রইল। আমিন।
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন